লক আপের মধ‍্যে কম্বল ছিঁড়ে আত্মহত‍্যা, প্রশ্নের মুখে পুলিশের নজরদারি

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:May 06, 2017 09:42 AM IST
লক আপের মধ‍্যে কম্বল ছিঁড়ে আত্মহত‍্যা, প্রশ্নের মুখে পুলিশের নজরদারি
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:May 06, 2017 09:42 AM IST

#মেমারি: পুলিশ লক আপে এক অভিযুক্তের মৃত্যু নিয়ে কাঠগড়ায় মেমারি থানার পুলিশ। নারী নির্যাতনের অভিযোগে শুকদেব টুডু নামে এক ব‍্যক্তিকে থানায় তুলে আনে পুলিশ। এই ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করা হয়। যদিও, শেষপর্যন্ত ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বর্ধমানের পুলিশ সুপার।

স্ত্রী’র অভিযোগে শুকদেব টুডুকে থানায় তুলে আনে পুলিশ। থানার লক আপেই তার মৃত‍্যু হয়। পুলিশের দাবি

- বৃহস্পতিবার মৌখিক অভিযোগ জানিয়েছিলেন স্ত্রী

- বৃহস্পতিবার তাকে ডেকে আনা হয়েছিল, পড়ে ছেড়ে দেওয়া হয়

- শুক্রবার তাকে আবার থানায় তুলে আনা হয়। কম্বল ছিঁড়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত‍্যা করেন শুকদেব

- সিসিটিভি ফুটেজে তার প্রমাণ মিলেছে

যদিও পুলিশের এই দাবিতে বিস্তর অসঙ্গতি মিলেছে

- স্ত্রীর অভিযোগে শুকদেবকে তুলে আনা হলেও কেন ছেড়ে দেওয়া হয়

- শুক্রবার আবার কেন তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হল ?

- গ্রেফতার না হলে কেন লক আপে রাখা হল

- লক আপের সিসিটিভি তে যদি কম্বল ছিঁড়তে দেখা যায়, তবে তখনই কেন বাধা দেওয়া হল না

- প্রায় ৪০ ছুঁইছুঁই তাপমাত্রায় কার জন‍্য লক আপে কম্বল রাখা হয়েছিল

গ্রেফতার নিয়ে পুলিশ যা বলছে, সেই দাবি ঠিক না বলে জানিয়েছেন মৃত শুকদেবের স্ত্রী।

যে কোনও গ্রেফতারে নির্দিষ্ট কতগুলি আইন মানতে হয় পুলিশকে।

শুকদেব টুডুর মৃত‍্যুতে দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাতে পথ অবরোধ করে স্থানীয় আদিবাসী মানুষজন।

First published: 09:29:20 AM May 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर