চোর সন্দেহে অমানবিক অত্যাচার, মারধরের পাশাপাশি একাধিক জায়গায় ফোটানো হয় সুচ

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 28, 2017 10:28 AM IST
চোর সন্দেহে অমানবিক অত্যাচার, মারধরের পাশাপাশি একাধিক জায়গায় ফোটানো হয় সুচ
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 28, 2017 10:28 AM IST

#জয়নগর: শরীরে সুচের খোঁচা। ক্ষতবিক্ষত দুই চোখ। শুধুমাত্র চোর সন্দেহে চলল এমনই পাশবিক অত্যাচার। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি জয়নগরের বাসিন্দা গোলাম বারি গাজি। এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার দুই।

২৬ অগাস্ট। জয়নগরের বামনগাজিতে জুলফিকর গাজির মুদিখানার দোকানে চুরি হয়। কাশীপুর গ্রামের বাসিন্দা গোলাম বারি গাজির উপর সন্দেহ হয় জুলফিকরের। এরপরই টোপ দিয়ে জয়নগরের দক্ষিণ বারাসত স্টেশনে গোলাম বারিকে ডেকে পাঠায় জুলফিকর।

স্টশনে পৌঁছতেই গোলাম বারিকে বামনগাজি এলাকায় তুলে নিয়ে যায় জুলফিকরের দলবল। এরপরই চোর অপবাদে শুরু হয় গোলাম বারিকে মারধর।

শুধু মারধরই নয়। শরীরের একাধিক জায়গায় ফোটানো হয় সুচ।

বামনগাজি থেকে খাকুরদহ হয়ে মনিপুর বাঁশতলায় গোলাম বারিকে নিয়ে যায় জুলফিকরের লোকেরা। সেখানে প্রথমে তাঁর রক্তাক্ত জামাকাপড় পালটানো হয়। এরপর চোখে বারবার সুচ ঢুকিয়ে চলে নির্মম অত্যাচার।

স্থানীয় বাসিন্দারা আক্রান্তকে দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। জয়নগর থানার পুলিশ গিয়ে গোলাম বারি গাজিকে উদ্ধার করে পদ্মের হাট গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আহতকে কলকাতায় রেফার করেন চিকিৎসকরা।

First published: 10:28:13 AM Aug 28, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर