‘‘মোদিবাবুর নোট বাতিলের দু’মাস আর সাধারণ মানুষের সর্বনাশ ’’ : মুখ্যমন্ত্রী

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jan 09, 2017 04:15 PM IST
‘‘মোদিবাবুর নোট বাতিলের দু’মাস আর সাধারণ মানুষের সর্বনাশ ’’ : মুখ্যমন্ত্রী
Photo Courtesy : Twitter
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jan 09, 2017 04:15 PM IST

#বর্ধমান : মাটি উৎসবেও উঠল নোট বাতিল প্রসঙ্গ ৷  বর্ধমানে আজ, সোমবার জেলা বীজ খামারের স্থায়ী মাটি উৎসব প্রাঙ্গণে মুখ্যমন্ত্রী ৬৫ টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন ৷ সবমিলিয়ে প্রায় ৩১৬ কোটি প্রকল্পের শিলান্যাস করেন তিনি ৷ মাটি উৎসবের মঞ্চে দাঁড়িয়েই নোট বাতিল ইস্যুতে ফের প্রধানমন্ত্রীকে বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‘ গত ২ মাসে রাজ্যে ৫৫০০ কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে ৷ এরকম চললে কর্মচারিদের বেতন দেব কোথা থেকে ? এমনিতেই সিপিএম রাজ্যটাকে শেষ করে গিয়েছে  ৷ মানুষের নিজের টাকাই মানুষ পাচ্ছে না ৷ মেয়ের বিয়ে দিতে পারছে না মানুষ ৷ ডিজিটাল ইকনমি তো আমরা আগেই করেছি ৷ আমাদের ই- গভর্ন্যান্স, ই-টেন্ডারগুলো কি মোদিবাবুর দয়ায় হয়েছে ? ’’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন আরও বলেন, ‘‘ক্যাশই নেই তো আবার ক্যাশলেস ইন্ডিয়া ৷ আধার কার্ড নাহলে ১০০ দিনের কাজ নয় ৷ ৯২ শতাংশ গ্রামে ব্যাঙ্ক-ডাকঘর নেই ৷ প্লাস্টিক মানি কী মানুষ খাবে ? মানুষ যাবে কোথায় ? কৃষক-শ্রমিক টাকা পাবে না ৷ ক্ষেত-মজুর করতে পাবে না ৷ কলকারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ৷ ৪০ শতাংশ ব্যাঙ্কে টাকা নেই ৷ আমরা সমীক্ষা করে দেখেছি ৷ আপনাকে কি এবার তাহলে পুজো করব মোদিবাবু ? ’’

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের কৃষিক্ষেত্রকে আরও উন্নত করতেই এই মাটি উৎসবের সূচনা করেন। আজ থেকে শুরু হয়ে আগামী ৫ দিন ধরে চলবে এই উৎসব। এবারের উৎসবে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দফতরের ১১৬টি বিপনন কেন্দ্র থাকবে এই উৎসব প্রাঙ্গনে যেখানে কৃষকরা সুযোগ পাবেন তাদের ফসল মানুষের সামনে তুলে ধরার ৷

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘ মাটি আমাদের অনুপ্রেরণা ৷ ২০১২ সালে আমরা মাটি উৎসবের সূচনা করেছি ৷ রাষ্ট্রসংঘ মাটি দিবস ঘোষণা করেছে ২০১৪-য় ৷ বাংলা আজ যা ভাবে ৷ গোটা বিশ্ব তা ভাবে আগামীকাল ৷ মাটি তীর্থেই প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হবে ৷ মাটি তীর্থ পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় হবে এর ফলে ৷ ’’

এছাড়া আগামী ১৪ মার্চ কৃষি সম্মান, কৃষকরত্ন এবং ল্যাংচা হাব উদ্বোধন করার কথাও এদিন মাটি উৎসবের মঞ্চে ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘ আমি গঠনমূলক কাজ পছন্দ করি ৷ ধ্বংসাত্মক কাজ আমি পছন্দ করি না ৷ নিজেরা মাছের চাষ করে মাছ বড় করুন ৷ তাহলে বড় মাছ অন্ধ্র থেকে কিনতে হবে না ৷ মুরগীর মতো হাঁসের পোলট্রি করা হোক ৷ লক্ষ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান হবে ৷ ৬০ লক্ষ ডিমের জোগানে ঘাটতি রয়েছে ৷ হাঁসের পোলট্রি হলে সেই ঘাটতি পূরণ হবে ৷ ’’

First published: 04:12:26 PM Jan 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर