খুন করতেই স্ত্রী-কে নিতে শ্বশুরবাড়ি থেকে কাটোয়ায় নিয়ে এসেছিলেন উজ্জ্বল !

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jul 24, 2017 10:17 AM IST
খুন করতেই স্ত্রী-কে নিতে শ্বশুরবাড়ি থেকে কাটোয়ায় নিয়ে এসেছিলেন উজ্জ্বল !
Photo : AFP
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jul 24, 2017 10:17 AM IST

#কাটোয়া: খুন করতেই স্ত্রী-কে শ্বশুর বাড়ি থেকে কাটোয়ায় নিয়ে এসেছিলেন উজ্জ্বলভাস্কর ঘোষ। বধূ নির্যাতনের মামলার বদলা নিতে চেয়েছিলেন তাঁর মা-ও। পুলিশের কাছে চাঞ্চল্যকর স্বীকারক্তি ধৃত শিক্ষকের। দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্যই আনা হয়েছিল অতিরিক্ত বাইক। তদন্ত রিপোর্টে আদালতকে জানাল পুলিশ।

বধূ নির্যাতনের মামলার বদলা নিতেই স্ত্রী মহুয়া ঘোষকে খুন করেছিলেন। একথা আগেই স্বীকার করেছিলেন কাটোয়া ধৃত উজ্জ্বলভাস্কর ঘোষ। কিন্তু কীভাবে ধীরে ধীরে এই খুনের পরিকল্পনা করা হয়। ধৃত শিক্ষক জেরায় তা স্বীকারও করেন।

ধীরে ধীরে স্ত্রী-কে খুনের পরিকল্পনা

- ২০১৪ সালে কেতুগ্রাম থানায় বধূ নির্যাতনের অভিযোগ জানায় মহুয়া

- ৪৯৮এ ধারায় গ্রেফতার উজ্জ্বলভাস্কর ঘোষ

- খোরপোশ দেওয়ার শর্তে ১৩ দিন পর মেলে জামিন

- মাসে ৬০০০ টাকা খোরপোশ দিতে রাজি হন উজ্জ্বল

- বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে বাপের বাড়ি চলে যান মহুয়া

- কয়েক মাস পর খোরপোশ দেওয়া বন্ধ

- শ্বশুরবাড়ি থেকে স্ত্রীকে আনতে যান উজ্জ্বলভাস্কর

- মিটিয়ে দেন বকেয়া ১০ মাসের খোরপোশ

- ফের একসঙ্গে থাকতে রাজি হন দু'জন

ধৃত শিক্ষক পুলিশকে আরও জানান, বিয়ের পর থেকেই তাঁর মায়ের সঙ্গে স্ত্রীর বনিবনা হতো না। তিনিও চাইতেন মহুয়ার বিরুদ্ধে বদলা নিতে। এদিন কাটোয়া মহকুমা আদালতে তোলা হলে উজ্জ্বলভাস্কর ঘোষকে সাত দিনের পুলিশ হেফাজত ও তাঁর মা ছবিরানি ঘোষকে সাত দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

আদালতে পেশ করা পুলিশের তদন্ত রিপোর্টে উঠে এসেছে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য।

খুনের আগে পরিকল্পনা 

- পেশাদার সুপারি কিলার আজাদ শেখ ও জাকির হোসেনের সঙ্গে খুনের চুক্তি করেন উজ্জ্বলভাস্কর

- ঘটনার দিন আরও দু'জনকে নিয়ে আসা হয়

- ৩টি বাইকে মোট ৪জন সুপারি কিলার আসে

- দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্যই আনা হয় অতিরিক্ত বাইক

ওড়নার ফাঁস দিয়ে মহুয়াকে খুন করা হলেও, আত্মরক্ষার স্বার্থে সুপারি কিলাররা অস্ত্র নিয়ে যায় বলে জেরায় জানান উজ্জ্বলভাস্কর। সেই অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশকে সাহায্যে করতে রাজি ধৃত শিক্ষক।

First published: 10:11:05 AM Jul 24, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर