ভাঙড় কাণ্ডের জেরে ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত আবদুল্লার

Feb 17, 2017 06:51 PM IST | Updated on: Feb 17, 2017 06:51 PM IST

#ভাঙড়: কেটে গিয়েছে একমাস। ভাঙড়ে জমি আন্দোলনকে কেন্দ্র করে শুরু হয় জনতা পুলিশ খণ্ডযুদ্ধে ৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত পিছু হটতে হয় পুলিশকে। পোড়ানো হয় একের পর এক পুলিশের গাড়ি। এলাকায় পাওয়ার গ্রিড বন্ধের দাবিতে রাস্তায় নেমে আন্দোলন করতে গিয়ে মৃত্যু হয় দু’জনের। আহত হয়েছেন বহু মানুষ এবং পুলিশ কর্মীও। সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর, পুলিশের উপর হামলা-সহ একাধিক কারণে ঘটনার দিন দশজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে ছিল ভাঙড় ২ নম্বর ব্লকের পোলেরহাট হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল্লা বিন কাসেমও। ঘটনার পর একমাস কেটে গেলেও এখনো মুক্তি পায়নি আবদুল্লা। উল্টে ইউএপিএ এর মত ধারা যুক্ত হয়েছে আবদুল্লা-সহ ভাঙড় কাণ্ডে বাকি ধৃতদের উপর। আর মাত্র কয়েকদিন বাদেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা আবদুল্লার । ভাঙড়ের এই ঘটনার পর কার্যত অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখে দাঁড়িয়ে আবদুল্লা বিন কাসেম নামে এই কিশোর।

ঠিক কি হয়েছিল সেই দিন ? এখনও পরিবারের সকলের চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ। আবদুল্লার মা কাদিরা বিবির এখন বেশিরভাগ সময় কাটে ঘরের সামনের সিঁড়িতে বসেই। সারাদিন ছেলের পথ চেয়ে বসে থাকেন তিনি। শুধু ছেলে নয়, ভাঙড় কাণ্ডে পুলিশের হাতে ধরা পরে একই মামলায় জেলে রয়েছেন তার স্বামী আব্দুস সামাদ মোল্লা। সেদিনের ঘটনার কথা বলতে গিয়ে কার্যত কেঁদেই ফেললেন আবদুল্লার মা।

ভাঙড় কাণ্ডের জেরে ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত আবদুল্লার

তার দাবি পুলিশই সেদিন বাড়ির ভিতর ঢুকে সন্ত্রাস চালিয়েছে। এখনও ঘরের ভিতর ভাঙা টিভি, ভাঙা পাখা এদিক ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। ঘটনার দিন সকালে ছেলে ও স্বামী বাড়িতেই ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন। বাড়ির ভিতর ঢুকে পুলিশ ও র‍্যাফ তাণ্ডব চালায় ৷ মহিলা -সহ সকলকে মারধার করারও অভিযোগ উঠেছে ৷ এরপর ঘর থেকে টানতে টানতে স্বামী ও ছেলেকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ। একমাস কেটে গেলেও মুক্তি পায়নি কেউই। উপরন্তু সন্ত্রাসবাদী আখ্যা দিয়ে ইউএপিএ এর মত ধারা যুক্ত হয়েছে আবদুল্লা সহ বাকী ধৃতদের উপর। আর মাত্র কয়েকদিন বাদে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সামান্য কৃষক পরিবারে জন্ম হলেও পড়াশোনা করে সরকারি চাকরি করে পরিবারের মুখে হাসি ফোটাবে আবদুল্লা। এমনই আশা ছিল ৷ কিন্তু এই পাওয়ার গ্রিড নিয়ে এলাকায় ঝামেলার জেরে এখন ভবিষ্যতই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে আবদুল্লার।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES