খড়গপুরে শ্রীনু নাইডু-সহ খুন ২, আটক ৫

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 12, 2017 09:14 AM IST
খড়গপুরে শ্রীনু নাইডু-সহ খুন ২, আটক ৫
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 12, 2017 09:14 AM IST

#খড়গপুর: বুধবার খড়গপুরের তৃণমূল পার্টি অফিসে হামলায় নিহত লোহা মাফিয়া শ্রীনু নাইডু। নিহত ধর্মা রাও নামে শ্রীনুর এক সাগরেদ ও নাইডুর আরও এক অনুগামীর। গুলিবিদ্ধ আরও ৩ ৷ গতকাল দুপুরে ফিল্মি কায়দায় তৃণমূল পার্টি অফিসে হামলা চালায় একদল সশস্ত্র দুষ্কৃতী। বোমাবাজি ও এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে চম্পট দেয় তারা।

গতবছরই তিন-তিনবার হামলা হয়েছিল। প্রতিবারই ভাগ্যের জোরে বেঁচে ফিরেছিল খড়গপুরের ডন। কিন্তু নতুন বছরে আর ভাগ্য সহায় হল না শ্রীনু নাইডুর। ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের পার্টি অফিসের শুটআউটে নিহত কুখ্যাত এই লোহা মাফিয়া। প্রাণ হারিয়েছে শ্রীনুর সাগরেদও।

ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ ৷ তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ৷ বুধবারই এসপি ভারতী ঘোষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন নিহত শ্রীনু নাইডুর স্ত্রী ৷ NRS-এ নিহত কে শ্রীনিবাস নাইডু ময়নাতদন্ত করা হবে ৷

জানা গিয়েছে, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল পার্টি অফিসে বসেছিল শ্রীনু নাইডু। সঙ্গে ছিল এন গোবিন্দ এবং সি শ্রীনু ওরফে কালী নামে তার দুই সাগরেদ। অফিসের বাইরে বসেছিল ধর্মা রাও। শ্রীনুর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন ডি গোবিন্দ রাও এক স্থানীয় বাসিন্দা ৷

আচমকা একটি চারচাকার গাড়ি ও একটি বাইক এসে থামে পার্টি অফিসের বাইরে ৷ বাইক থেকে নেমে আসে তিনজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী। প্রত্যেকেরই মুখ ঢাকা ছিল ৷ প্রথমেই অফিসের বাইরে বসে থাকা ধর্মা রাওকে গুলি মারে দুষ্কৃতীরা ৷ এরপর অফিসের ভেতরে বোমা মারে তারা ৷ পার্টি অফিসে ঢুকে এলোপাথারি গুলি চালাতে থাকে দুষ্কৃতীদর ৷  হামলার পর চম্পট দেয় তারা ৷

আশঙ্কাজনক অবস্থায় শ্রীনু নাইডু ও ধর্মাকে প্রথমে খড়গপুরের রেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আহত বাকি তিনজনকে খড়গপুর মহকুমা হাসপাতাল ও সেখান থেকে মেদিনীপুর মেডিক্যালে ভরতি করা হয়। শেষপর্যন্ত ৫ জনকেই কলকাতায় বাইপাসের ধারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিশ। সেখানেই শ্রীনু নাইডু ও ধর্মাকে নিহত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

ঘটনার পর থেকে থমথমে এলাকা। তৃণমূল পার্টি অফিসের বাইরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে হামলার ভাড়াটে গুন্ডা ব্যবহারের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ।

First published: 09:14:31 AM Jan 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर