মাতাল প্রধান শিক্ষক, স্কুলের বাইরেই শুয়ে থাকেন বেহুঁশ হয়ে

Mar 20, 2017 03:54 PM IST | Updated on: Mar 20, 2017 03:54 PM IST

#বেলদা: কখনও মাটিতে শুয়ে গড়াগড়ি। কখনও বিড়বিড়। আবার কখনও চিৎকার করে চলছে অকথ্য গালিগালাজ। প্রশ্ন করলেই মিলছে উলটো উত্তর। কাছে যেতে অবাক সকলে। আরে। এ তো যুগল দলুই। পোক্তাপোল প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক। বেহেড মাতাল শিক্ষকের এহেন কীর্তিতে হতবাক এলাকাবাসী। ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা।

আক্ষরিক অর্থেই বেহেড মাতাল। কী বলছেন, কী করছেন হুঁশ নেই। থাকবে কী করে? স্কুলে ঢোকার আগেই যে আকণ্ঠ পান করে ফেলেছেন বেলদার পোক্তাপোল প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক যুগলকিশোর দলুই।

মাতাল প্রধান শিক্ষক, স্কুলের বাইরেই শুয়ে থাকেন বেহুঁশ হয়ে

বেলা এগারটায় স্কুল শুরু। স্কুলের বাইরে রাস্তায় শুয়ে প্রধান শিক্ষক। তাঁকে টপকেই স্কুলে ঢুকছে পড়ুয়ারা। খুব একটা হেলদোল নেই কারও। হেডস্যারকে এভাবেই দেখতে অভ্যস্ত পড়ুয়া থেকে শিক্ষক সকলেই। প্রায় রোজই মদ খেয়েই স্কুলে আসেন হেডস্যার। প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ ও স্কুল পরিদর্শককে বিষয়টি জানিয়েও লাভ হয়নি কোনও।

মাঝেই মাঝেই স্কুল কামাই। তারপর এসে একসঙ্গে সই। কীর্তিমান প্রধান শিক্ষকের এরকম আরও অনেক কীর্তি। মিড ডে মিলের হিসেব দিতে না পারায় এক সপ্তাহ আগেই তাঁকে সাবধান করেন পঞ্চায়েত প্রধান। তাঁর বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে প্রাথমিকে ভরতির অভিযোগও আছে। তবু তের-বছর ধরে পোক্তাপোল প্রাইমারি স্কলের প্রধান শিক্ষক তিনি-ই।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES