ময়ূরাক্ষী নদীতে তলিয়ে যাওয়া ছাত্রের দেহ উদ্ধার

Jun 22, 2017 02:11 PM IST | Updated on: Jun 22, 2017 02:11 PM IST

#সিউড়ি: ময়ূরাক্ষী নদীতে তলিয়ে যাওয়া ছাত্রের দেহ উদ্ধারের ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। পুলিশ দেহ উদ্ধার গেলে, পুলিশকেও আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। অবৈধ বালি খাদানের জন্যই এই দুর্ঘটনা বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। পরে পুলিশের আশ্বাসে দেহ ছাড়া হলেও স্থানীয় তৃণমূল অঞ্চল সভাপতিকে মারধর করা হয়। ঘটনা বীরভূমের সিউড়ির।

ঘটনার প্রায় ২৪ ঘণ্টা পরে ময়ূরাক্ষী নদী থেকেই উদ্ধার হল নিখোঁজ ছাত্র অর্ণব রায়ের দেহ। বুধবার বন্ধুদের সঙ্গে খটঙ্গার ভাণ্ডিরবন এলাকায় স্নান করতে নেমে তলিয়ে যায উচ্চমাধ্যমিক পাশ ওই ছাত্র। অনেক খোঁজাখুঁজি পরেও দেহ উদ্ধার হয়নি রাতে। বৃহস্পতিবার সকালে দেহ উদ্ধারের পরেই বারুদের মতো ছড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভ। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, নেতাদের মদতে নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালি তোলা হচ্ছে, এর ফলে বালি বসে গিয়ে সৃষ্টি হচ্ছে গর্ত। বর্ষায়

ময়ূরাক্ষী নদীতে তলিয়ে যাওয়া ছাত্রের দেহ উদ্ধার

সিউড়ি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে, পুলিশকেও ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাাসীরা। এলাকায় যান তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সঞ্জিত রায় । তার নেতৃত্বেই বালি তোলায় মদত দেওয়া হত বলে অভিযোগ করে তাকে মারধর করেন স্থানীয়রা।

পরে অতিরিক্তি পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গেলে দেহ ছাড়া হয়। কিন্তু অবৈধভাবে বালি তোলার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। বালি তোলার জন্য অজয় দামোদর সহ ময়ূরাক্ষী নদীর গতিপথেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে বলে আশঙ্কা নদী বিশেষজ্ঞদের।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES