অ্যাসিড হামলায় মৃত ছাত্রী, আমৃত্যু কারাদণ্ড অভিযুক্তের

May 11, 2017 07:47 PM IST | Updated on: May 11, 2017 07:47 PM IST

#কৃষ্ণনগর: সাত মাসের মধ্যে সাজা ঘোষণা। অ্যাসিড হামলাকারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ। সঙ্গে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা। আজ এই নির্দেশ দেয় কৃষ্ণনগর আদালত। গত বছর দুর্গা পুজোর সময়ে হাঁসখালিতে অ্যাসিড হামলায় মৃত্যু হয় এক ছাত্রীর। মা ও মেয়ের উপর অ্যাসিড হামলার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় রাজমিস্ত্রি ইমন আলি শেখকে। ঘটনার সাত মাস পর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হল হামলাকারীর।

অ্যাসিড হামলায় মৃত ছাত্রী, আমৃত্যু কারাদণ্ড অভিযুক্তের

২০১৬ । ১০-ই অক্টোবর। নবমীর রাত। চারদিকে দুর্গাপুজোর হইচই। হাঁসখালি থানার গাজনায় নিজেদের বাড়িতে ঘুমোচ্ছিলেন টুলু রজক ও তাঁর স্কুল ছাত্রী মেয়ে মৌ। আচমকাই ঘরের জানলা দিয়ে ভিতরে অ্যাসিড ছুড়ে দেয় এক দুষ্কৃতী। এনআরএসে ভরতি করা হয় দুজনকে। মা সুস্থ হয়ে উঠলেও, ঘটনার আটদিন পর মৃত্যু হয় মেয়ের। তদন্তে নেমে ইমন আলি শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর,

----পেশায় রাজমিস্ত্রি ইমন আলি শেখ

----মৌ-র সঙ্গে ইমনের ফোনে আলাপ

----ছাত্রীকে বিয়ে করতে চায় ইমন

----তাকে প্রত্যাখ্যান করে মৌ

-- বদলা নিতে মা ও মেয়ের উপর অ্যাসিড ছোঁড়ে ইমন

মামলা শুরু হয় রানাঘাট আদালতে। কিন্তু সাক্ষী দিতে ভয় পাচ্ছিলেন অভিযোগকারীরা। মামলা নিয়ে যাওয়া হয় কৃষ্ণনগর আদালতে। দ্রুত মামলা শেষে জোর দেওয়া হয়। সাত মাস পর অবশেষে বুধবার দোষী সাব্যস্ত করা হয় ইমন আলি শেখকে। বৃহস্পতিবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় কৃষ্ণনগর আদালত। সঙ্গে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা।

কখনও প্রেমে প্রত্যাখান। কখনও কুপ্রস্তাবে সাড়া না পাওয়া। কখনও জমি দখল। কখনও সম্পত্তি। অ্যাসিড অ্যাটাকের ঘটনায় নানারকম অজুহাত উঠে আসে। কেউ শাস্তি পায়। কেউ ঘুরে বেড়ায় বহাল তবিয়তে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে মামলা চলে ৬/৭/৮ বছর ধরে। গ্রাম থেকে শহর মহানগর। মফস্বল থেকে মহকুমা। সর্বত্রই এক ছবি। এসবের মাঝেই কম সময়ে ব্যতিক্রমী রায়ে নজির গড়ল কৃষ্ণনগর আদালত।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES