‘মাগো তলোয়ার নিয়ে খেলতে যেও না’, পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 08, 2017 08:52 AM IST
‘মাগো তলোয়ার নিয়ে খেলতে যেও না’, পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 08, 2017 08:52 AM IST

#আসানসোল: রাজনৈতিক মিছিলের নামে অস্ত্র নিয়ে ঘুরলে আইনি ব্যবস্থা নেবে রাজ্য। অস্ত্র হাতে বিজেপির মিছিল নিয়ে আরও একবার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর। আসানসোলের জনসভায় বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়ালেও এদিনই প্রধানমন্ত্রীর ডাকে দিল্লি গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার কথা তাঁর। রাজনীতি আর সাংবিধানিক দায়িত্ব যে আলাদা, মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরে যেন তারই বার্তা।

ধর্মের নামে দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা হলেও কেউ পাবে না। আসানসোলের জনসভা থেকে আরও একবার বিজেপিকে কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর। ধর্ম আর রাজনীতি এক নয়। সেকথা মনে করিয়েই বিজেপিকে হুঁশি্য়ারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তিনি বলেন, ‘রাজ্যে দাঙ্গা বাঁধানোর চেষ্টা চলছে ৷ আমরা মায়ের পুজো করি ৷ মাকে বাইরে ফেলে দিই না ৷ ধর্মকে সম্মান জানান ৷ তলোয়ার নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে ৷ অস্ত্র নিয়ে ঘুরলে আইন মেনে ব্যবস্থা নেব ৷ মাগো তলেয়ার নিয়ে খেলতে যেও না ৷ পাঞ্জাবিরা ধর্ম মেনে কৃপাণ রাখে ৷ আমি উপোস রেখে কালী পুজো করি ৷ সংখ্যালঘু ভাই বোনেরা সেখানে আসেন ৷’

ধর্ম আর রাজনীতি এক নয়। অথচ বিজেপি্ ধর্মকে সামনে রেখে রাজনীতির চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, এই রাজনীতির পরিণাম মারাত্মক। রাজ্যের মানুষকে সেই ফাঁদে পা না দেওয়ারও আবেদন তাঁর। তিনি বলেন, আপনাদের সঙ্গে জনগণ নেই ৷ তাই আপনাদের ধর্ম নিয়ে নামতে হচ্ছে ৷ আগুন লাগলে হিন্দুর বাড়ি পুড়লেও পুড়বে, আগুনে মুসলমানের বাড়ি পুড়লেও পুড়বে ৷ ৩০ হাজার টাকা দিলেই সব হয়ে যায় না ৷’

বিজেপিকে রাজনৈতিক লড়াইয়ে নামতেও সরাসরি চ্যালেঞ্জ মুখ্যমন্ত্রীর। বলেন, ‘বিজেপি তরোয়াল নিয়ে খেলছে ৷ মানুষ কাটার জন্য তরোয়াল নিয়ে খেলছে ৷ আমি বাংলা ভাগ করতে দেব না ৷ রাজনীতি করুন, স্বাগত জানাব ৷ ধর্ম আর রাজনীতি এক নয় ৷ মন্দিরে গিয়ে পুজো করতে হয় ৷ অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় নামতে হয় না ৷ আমি চাই শুভবুদ্ধির উদয় হোক ৷ অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় ঘুরলে আইন আছে ৷ ওদের সঙ্গে মানুষ নেই ৷ তাই ধর্ম নিয়ে পথে নেমেছে ৷’

অস্ত্র নিয়ে মিছিল করায় বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে এফআইআর জারি হয়েছে। বিজেপি ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করলে ভবিষ্যতেও রেয়াত করা হবে না। পুরুলিয়ার পর আসানসোলের জনসভাতেওসেই অবস্থান স্পষ্ট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

তবে রাজনৈতিক সেই অবস্থান প্রশাসনিক দায়িত্বে বাধা হচ্ছে না। আসানসোলের জনসভার পরই প্রধানমন্ত্রীর ডাকে দিল্লি গেলেন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি রয়েছে তাঁর।

First published: 08:52:40 AM Apr 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर