জেলায় একের পর এক খুন, নদিয়ার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে অসন্তুষ্ট মুখ্যমন্ত্রী

May 05, 2017 07:43 PM IST | Updated on: May 05, 2017 07:55 PM IST

#নদিয়া: নদিয়া জেলায় একের পর এক খুন, ডাকাতির ঘটনায় বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে পুলিশের সামনেই ক্ষোভ উগরে দিলেন তিনি। রোষের মুখে পড়লেন রাজ্য পুলিশের ডিজি থেকে নদিয়ার পুলিশ সুপার। সিআইডি তদন্ত দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দিলেন। বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে অপরাধ বন্ধ করতে জেলা পুলিশকে আরও কড়া ব্যবস্থা নিতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

কৃষ্ণনগরের রবীন্দ্রভবনে নদিয়া জেলার প্রশাসনিক বৈঠক চলছে। সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরায় লাইভ সম্প্রচারও হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখে পড়লেন রাজ্য পুলিশের ডিজি। নদিয়া জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জেলায় একের পর এক খুন, নদিয়ার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে অসন্তুষ্ট মুখ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া নদিয়ায় একের পর এক খুন, ডাকাতি। টার্গেট হচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরাও। চলতি বছরের ষোলো এপ্রিল। হাঁসখালিতে তৃণমূলের দলীয় দফতরে ঢুকে তাণ্ডব চালায় দুষ্কৃতীরা। খুন হন হাঁসখালির তৃণমূল ব্লক প্রেসিডেন্ট দুলাল বিশ্বাস।

দুলাল বিশ্বাস খুনের ঘটনায় তদন্ত করছে সিআইডি। সবমিলিয়ে পাঁচ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। কিন্তু মূল অভিযুক্তরা এখনও অধরাই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, বেছে বেছে তৃণমূল কংগ্রেসের লোকদের মার্ডার করা হচ্ছে। একটার পর একটা। পুলিশ কিছু জানে না আমি বিশ্বাস করি না।

শুধু দুলাল বিশ্বাস নন। বেহাল নদিয়া জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি।

১৩ জুন, ২০১৬ রানাঘাটের তৃণমূল যুবনেতা অরুণ সিকদার খুন

৩১ মার্চ, ২০১৭ তাহেরপুরে তৃণমূল যুবনেতা দেবদাস সরকার খুন

২২ এপ্রিল, ২০১৭ চাকদহের চৌগাছায় পিটিয়ে খুন রাহুল শিয়ালী

২৯ মার্চ, ২০১৭ কল্যাণী সেতুর নীচে স্কুল ছাত্রীর অচৈতন্য দেহ উদ্ধার

২০১৫-এর ১৪ মার্চ। রানাঘাটের চুয়াত্তর বছরের বৃদ্ধা সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনায় বাংলাদেশি দুষ্কৃতীদের নাম সামনে আসে। দুষ্কৃতীরা সীমান্ত পেরিয়ে এসেছিল। ঘটনার চুরানব্বই দিন পর শিয়ালদহ স্টেশন থেকে গ্রেফতার করা হয় নজরুল ইসলাম ওরফে নজুকে। নদিয়ায় ভারত-বাংলাদেশের একশো দশ কিলোমিটার আন্তর্জাতিক সীমান্ত রয়েছে। সীমান্ত এলাকায় আরও সতর্ক হতে নদিয়া প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নারীপাচার, শিশুপাচার বন্ধ করতে কড়া ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, ‘মাইকের দাপট বন্ধ করুন ৷ অফিসে বসে না থেকে রাস্তায় বেরোন ৷ পাশাপাশি থানার মধ্যে যেন যোগাযোগ থাকে ৷ চোরা কারবার, নারীপাচার রুখতেই হবে ৷ বাইরের লোক এসে অশান্তির চেষ্টা করছে ৷ টাকা দিয়ে লোক পাঠিয়ে হিংসা ছড়াচ্ছে ৷ কড়া নজর রাখুন ৷ সীমান্তে নিরাপত্তা আরও স্ট্রং করুন, বোল্ড করুন। বর্ডার সিল করুন।’

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES