রাজ্যে ফের বড়সড় অপরাধের ঘটনায় মিলল বাংলাদেশ যোগ

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 04, 2017 09:19 AM IST
রাজ্যে ফের বড়সড় অপরাধের ঘটনায় মিলল বাংলাদেশ যোগ
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 04, 2017 09:19 AM IST

#কলকাতা: রানাঘাটের পর সোনারপুর। রাজ্যে ফের বড়সড় অপরাধের ঘটনায় মিলল বাংলাদেশ যোগ। তবে এলাকা না চেনায়, ডাকাতির পর ভুল পথে হাঁটতেই কিনারা হল সোনারপুরের ডাকাতির। এক মাস আগে রাজ্যে প্রবেশ। বাসন্তীতে গা-ঢাকা দিয়েছিল বাংলাদেশের নারাইলের সাত দুষ্কৃতী। ডাকাতির আগে এলাকায় রেইকিও করেছিল। ঘটনায় এক বাংলাদেশি-সহ  গ্রেফতার তিন। উদ্ধার অস্ত্র-সহ লুঠের গয়নাও। সোনারপুরের পাশাপাশি, এক মাস ধরে এই দুষ্কৃতী দল আরও ডাকাতি করেছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

রানাঘাটের মিশনে সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধাকে ধর্ষণের ঘটনায় বাংলাদেশি দুষ্কৃতীদের যোগ মিলেছিল। এবার সোনারপুরে সোনার দোকানে দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনাতেও সামনে এল প্রতিবেশী রাষ্ট্রের দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্য। রবিবার ভরসন্ধেয় ডাকাতির পিছনে বাংলাদেশি দুষ্কৃতী দলের হদিশ পেয়েছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে,

- ১০ দিন আগে রাজ্যে আসে বাংলাদেশি দুষ্কৃতীদের দল

- বসিরহাট সীমান্ত দিয়ে দেশে ঢোকে

- বাসন্তীতে কাশেম নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে গা ঢাকা দেয়

- ডাকাতির আগে সোনারপুরে বেশ কয়েকবার রেইকিও করে

- লুঠপাট চালানোর পর ভিড়ে মিশে পালানোর ছক ছিল দুষ্কৃতীদের

- পরিকল্পনামতো রবিবার বাসন্তী থেকে অটোয় চেপে সোনারপুর পৌঁছয় দুষ্কৃতীরা

- আতিয়ার রহমান লস্কর নামে এক ব্যক্তি নিজের অটোয় দুষ্কৃতীদের পৌঁছে দেয়

- সোনারপুর ব্রিজের কাছে রাখা হয় অটোটি

- তারপর সোনার দোকানে ঢুকে চলে লুঠপাট

- পালানোর সময়ে দোকান মালিক রুখে দাঁড়ানোতেই বিপত্তি

- হুড়োহুড়িতে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় দুষ্কৃতীরা

ছত্রভঙ্গ হয়ে এক দুষ্কৃতী উলটোপথে হাঁটতেই, ডাকাতির কিনারা করে ফেলে পুলিশ।

ডাকাতির কিনারা

- পালানোর সময় রাস্তা হারায় বাংলাদেশি দুষ্কৃতী লাবলু সর্দার

- একটি মোটরভ্যানে উঠে ভাঙড় পৌঁছে যায় সে

- পুলিশ দেখে ভয়ে মোটরভ্যান থেকে নেমে পড়ে

- পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জানায় সে সোনারপুর যাচ্ছে

- অথচ লাবলু সর্দার ঠিক উলটোদিকে যাচ্ছিল

- সন্দেহ হওয়ায় তাকে তল্লাশি করে পুলিশ

- তল্লাশিতেই তার ব্যাগ থেকে মেলে বেশকিছু গয়না

- বাংলাদেশের নারাইলের বাসিন্দা এই লাবলু

লাবলুকে জেরা করেই একে একে পুলিশের জালে ধরা পড়ে আরও কয়েকজন দুষ্কৃতী। বাসন্তী থেকে কাসেমের স্ত্রী মঞ্জিলা খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় অটোচালক আতিয়ার রহমান লস্করকেও। ধৃত লাবলু সর্দারকে সোমবার টিআই প্যারেডের জন্য আলিপুর জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেয় বারুইপুর মহকুমা আদালত। বাকি দু'জনকে ১০ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। ইতিমধ্যেই সোনারপুরের চণ্ডীতলা রেলগেট লাগোয়া একটি পুকুর থেকে ব্যাগভরতি লুঠে গয়না উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই ব্যাগ থেকে মিলেছে একটি ওয়ান শটার পিস্তলও। ডাকাতির ঘটনায় যুক্ত বাকি দুষ্কৃতীদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

First published: 09:19:20 AM Apr 04, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर