ফের ফেসবুকে উস্কানিমূলক ভুয়ো পোস্ট, ধৃত আসানসোলের বিজেপি নেতা

Jul 12, 2017 12:38 PM IST | Updated on: Jul 12, 2017 07:02 PM IST

#কলকাতা: সতর্ক করা সত্ত্বেও ফেরেনি হুঁশ ৷ ফের হিংসায় প্ররোচনার উদ্দেশ্যে ফেসবুকে ভুয়ো পোস্ট তৈরি অভিযোগ উঠল এক বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে ৷ ভিনরাজ্যের ছবি এ রাজ্যের বলে পোস্ট করে ধর্মীয় উস্কানি ও হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে আসানসোলের বিজেপি নেতা তরুণ সেনগুপ্তকে গ্রেফতার করল সিআইডি ৷

গুজরাতের ছবি বসিরহাটের ঘটনা বলে ফেসবুকে পোস্ট করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা ৷ এবার বিজেপির আসানসোল আইটি সেল ইনচার্জ তরুণ সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে উঠল একইধরনের অভিযোগ ৷

ফের ফেসবুকে উস্কানিমূলক ভুয়ো পোস্ট, ধৃত আসানসোলের বিজেপি নেতা

হিন্দুর উপর লাঠিচার্জ করছে মুসলিম পুলিশ অফিসার ৷ ভিনরাজ্যের একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনার ভিডিও পোস্ট করে সিউড়িতে হনুমান জয়ন্তীর দিন লাঠিচার্জের ঘটনা বলে উল্লেখ করেন আসানসোলের ওই বিজেপি নেতা ৷ হনুমান জয়ন্তীতে সিউড়িতে মিছিল করে বিজেপি। অভিযোগ, মিছিলে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। সেই ঘটনাকে হাতিয়ার করেই ফেসবুক ও টুইটারে উসকানি দিতে নামেন তরুণ। গত সতেরোই এপ্রিল ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করেন তিনি। সেইসঙ্গে উত্তরপ্রদেশে পুলিশের লাঠিচার্জের ছবি এরাজ্যের বলে চালিয়ে দেন তিনি। ঘটনায় তরুণ সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করে বীরভূমের সাইবার থানা। অভিযোগ পেয়ে তাঁকে গ্রেফতার করে সিআইডি ৷

কীভাবে জালে তরুণ?

- বীরভূমের সাইবার থানা মামলাটি সিআইডি-কে দেয়

- সিআইডি জানতে পারে যে দুই পুলিশকর্তার নাম তরুণের পোস্টে রয়েছে তাঁরা সেসময় কলকাতায়

- তরুণের ভিডিও ভুয়ো বলে জানায় গুজরাতের একটি নিউজ ওয়েবসাইট

- তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ভুয়ো ভিডিওর কথা জানতে পারে সিআইডি

- এরপরই, ডেকে পাঠানো হয় তরুণ সেনগুপ্তকে

- কিন্তু, সিআইডি-র অফিসে যাননি তরুণ

- মঙ্গলবার রাতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়

১৫ বছর ধরে বিজেপি-র সঙ্গে যুক্ত তরুণ সেনগুপ্ত ৷ এলাকায় জ্যোতিষী বলে পরিচিত তিনি ৷ আসানসোলের ডলিলজ এলাকায় পেশায় শিক্ষিকা স্ত্রী ও মেয়ের সঙ্গে থাকেন অভিযুক্ত তরুণ সেনগুপ্ত ৷ ধৃত বিজেপি নেতার দাবি, তিনি হোয়াটস অ্যাপ থেকে ভিডিও-টি পেয়েছিলেন ৷ কিন্তু হনুমান জয়ন্তীর দিন বীরভূমেও এমন ঘটনা ঘটেছে বলে সাফাই দিয়েছেন তরুণ সেনগুপ্ত ৷  বিজেপির জেলা সভাপতির দাবি, ‘ফাঁসানো হয়েছে বিজেপি নেতা তরুণকে ৷’

এর আগে বসিরহাটের ঘটনাকে বোঝাতে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে গুজরাট হিংসার ছবি পোস্ট করেছিলেন নূপুর শর্মা ৷ এই ছবি দিয়েই তিনি বাংলার পরিস্থিতিকে বোঝাতে চান ৷ বিজেপি নেত্রীর এই পোস্ট নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক ৷ যা নিয়ে বিভ্রান্তও ছড়িয়েছে নানা জায়গায় ৷

আরও পড়ুন

‘কাল থেকে রেকর্ড হবে আপনার সমস্ত ফোন কল, হোয়াটস অ্যাপ, মেসেজ’, এমন বার্তার পিছনে সত্যিটা জানেন?

নূপুরের বিরুদ্ধে তিনটি থানায় এফআইআর দায়ের ৷ গড়িয়াহাট, রিজেন্ট পার্ক , লেক থানায় মামলা দায়ের করা হয় ৷

ভুয়ো পোস্ট করে উত্তেজনা বা আতঙ্ক ছড়ানো নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ কলকাতা পুলিশের ডিজিও সতর্কতা জারি করেছিলেন ৷

তরুণের গ্রেফতারে চক্রান্তের ছায়া দেখছে বিজেপি। শুধু তরুণই নয়। এর আগেও কয়েকজন গ্রেফতার হয় ভুয়ো পোস্টের অভিযোগে ৷

উসকানি ছড়িয়ে গ্রেফতার

- বাদুড়িয়ায় উসকানি ছড়িয়ে গ্রেফতার ১৭ বছরের কিশোর

- ভুয়ো ছবি পোস্ট করায় সোনারপুর থেকে ধৃত ভবতোষ ভট্টাচার্য নামে এক ব্যক্তি

- নদীয়ার কালীগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয় আহমেদ হোসেন নামে এক দমকলকর্মীকে

শুধু রাজ্যের মধ্যেই নয়। রাজ্যের বাইরে থেকেও জারি সোশ্যাল সাইটে উসকানি। কেন গ্রেফতার হবেন না বিজেপি মুখপাত্র নূপুর শর্মা বা তেলঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক রাজা সিং? সেই প্রশ্নই উঠছে বারবার।

সম্প্রতি ফেসবুকে ভুয়ো পোস্ট করে উত্তেজনা ছড়ানোর অভিযোগে এক দমকলকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ ৷ নদিয়ার কালীগঞ্জের এই বাসিন্দার নাম আহমেদ হোসেন ৷ ফেসবুকে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট খুলে রাজু খান নাম দিয়ে ফেসবুকে স্পর্শকাতর ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিষয়ে পোস্ট করার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে নদিয়ার কালীগঞ্জের এই দমকলকর্মীকে গ্রেফতার করে বিধানগর সাইবার ক্রাইম থানা।

ফেসবুকে এক কিশোরের কিছু পোস্টকে ঘিরেই উত্তেজনা ছড়ায় উত্তর চব্বিশ পরগনারর বিস্তীর্ণ এলাকায়। গ্রেফতার করা হয় কিশোরকে। রাজ্য পুলিশের ডিজি আবেদন করেন, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে কেউ যেন কোনওরকম উস্কানিমূলক পোস্ট না করেন। তার পরেই বন্ধ হয়নি ভুয়ো পোস্ট পর্ব ৷

এই ভিডিওটিই অভিযুক্ত বিজেপি নেতা নিজের ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES