দুর্গাপুরের স্কুলে পড়ুয়াদের তাণ্ডব, ভাঙচুর

Jul 09, 2017 10:34 AM IST | Updated on: Jul 09, 2017 10:34 AM IST

#দুর্গাপুর: স্কুলের অনুমোদন নেই। হস্টেল নিয়েও বিস্তর সমস্যা। দিনে দিনে ক্ষোভ বাড়ছিল পড়ুয়াদের মধ্যে। শুক্রবার এক ছাত্রকে স্কুলের ডিরেক্টর মারধর করায় আগুনে ঘি পড়ে। প্রতিবাদে একাধিক স্কুল বাস, অফিস রুমে ভাঙচুর হস্টেলের পড়ুয়াদের। কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হল দুর্গাপুরের নারায়ণা স্কুল।

চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ভাঙা আসবাব। মেঝেতে পড়ে ভাঙা কম্পিউটার, ল্যাপটপ, প্রিন্টার। কাঁচের জানলা থেকে চেয়ার, টেবিল অবশিষ্ট নেই কিছুই। ছবিটা দুর্গাপুরের বিধাননগরের নারায়ণা স্কুলের। পড়ুয়াদের তাণ্ডবে কার্যত ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

দুর্গাপুরের স্কুলে পড়ুয়াদের তাণ্ডব, ভাঙচুর

File Picture

ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার রাতে। হোস্টেলে ছাত্রদের কথা বলার জন্য ডেকে পাঠান স্কুলের ডিরেক্টর মাধব আচার্য। অভিযোগ, সেই সময় এক ছাত্র ঘুমিয়ে পড়ায় তাকে মারধর করেন ডিরেক্টর। এরপরই উত্তেজনা ছড়ায়। মারধরের প্রতিবাদে স্কুলে ভাঙচুর শুরু করে পড়ুয়ারা। ভাঙচুর করা হয় স্কুলের বাস ও ডিরেক্টরের গাড়ি। বেগতিক দেখে স্কুল ছেড়ে পালিয়ে যান ডিরেক্টর। সকালে আরেক প্রস্ত ভাঙচুর চালায় পড়ুয়ারা। পুলিশ ডাকতে বাধ্য হয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্কুলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে পড়ুয়া এবং অভিভাবকরা। তাদের অভিযোগ, স্কুলের কোনও অনুমোদন নেই। অন্য স্কুলের নামে বোর্ডের পরীক্ষা দেন পড়ুয়ারা। শিক্ষকের অভাবে ক্লাসও হয় না ঠিকমত। এই নিয়ে বারবার অভিযোগ জানিয়ে আসলেও কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ।

স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকলেও পড়ুয়াদের এই ধরণের আচরণ কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ইতিমধ্যে পড়ুয়া এবং অভিভাবকদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

RECOMMENDED STORIES