আসানসোলে উদ্বোধন প্রতিযোগিতা তুঙ্গে, আবারও বাবুল সুপ্রিয়র আগেই রাস্তার উদ্বোধন

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 28, 2017 07:34 PM IST
আসানসোলে উদ্বোধন প্রতিযোগিতা তুঙ্গে, আবারও বাবুল সুপ্রিয়র আগেই রাস্তার উদ্বোধন
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 28, 2017 07:34 PM IST

#আসানসোল: উদ্বোধন ঘিরে লুকোচুরি খেলা। কারও উদ্বোধন করার আগেই রাতের অন্ধকারে রাস্তা চালু করে দিচ্ছে কোনও পক্ষ। আবার কখনও বা ঢাকঢোল পিটিয়ে মন্ত্রীমশাই ফিতে কাটতে পৌঁছে শুনলেন একমাস আগেই নাকি উদ্বোধন হয়ে গেছে ওই প্রকল্পের। আসানসোলের রাজনীতিতে এখন উদ্বোধন মানেই প্রচুর হাস্যরস আর কৌতুকের উপাদান মজুত। যুযুধানেরাও পরিচিত। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বনাম তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। বৃহস্পতিবার রাত থেকে দফায় দফায নতুন নাটকের সাক্ষী আসানসোলবাসী।

আসানসোলে হচ্ছে টা কী? উদ্বোধন তরজা যে পিছুই ছাড়ছে না পশ্চিম বর্ধমানের শিল্পশহরকে। প্রকল্প একটা। অথচ উদ্বোধন হচ্ছে বারদুয়েক। এমনই ছেলেমানুষিতে মেতেছে যুযুধান দুই শিবির। আর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা এলাকার সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র পাকা ধানে মই দিতে যেন সদা প্রস্তুত আসানসোলের মেয়র সাহেব। এই দুই নেতার এহেন অবাক করা কাজিয়ায় মাস তিনেকের ফারাকে দু দুটি রাস্তার উদ্বোধন হল দু দু'বার। শুক্রবার গিরমীট মোড় থেকে গিরমীট কোলিয়ারি পর্যন্ত সাত কিলোমিটার রাস্তা উদ্বোধন করেন বাবুল । কিন্তু রাস্তা যে উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে বারো ঘণ্টা আগেই।

২৭ এপ্রিল, ২০১৭

বৃহস্পতিবার রাতেই মেয়র পারিষদ পূর্ণশশী রায় ও পুরআধিকারিকরা গিয়ে ওই রাস্তার উদ্বোধন করে আসেন। মেয়রের দাবি, সাংসদ তহবিলের অনুদানে রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ হয়নি। পুরসভাকেই কাজ শেষ করতে হয়েছে।

বারবারই তাঁর আগে প্রকল্পের উদ্বোধন করা হচ্ছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া কিছুই নয়। তেমনটাই দাবি সাংসদের।

আর কাজিয়া তো শুধু রাস্তাতেই থেমে নেই। উদ্বোধন তরজা তরতরিয়ে উঠছে সিঁড়ি বেয়েও। শুক্রবার আসানসোল স্টেশনে চলমান সিঁড়ির উদ্বোধন করেন বাবুল। আমন্ত্রিত থাকলেও অনুষ্ঠানে যোগ দেননি মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি এবং মন্ত্রী মলয় ঘটক।

জিতেন্দ্র তিওয়ারি যতই বাবুলকে বন্ধু ডাকুন না কেন, সাংসদ কিন্তু মেয়রকে সহজে ছেড়ে দিতে নারাজ। আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারির দাবি, এক মাস আগেই ওই সিঁড়ির উদ্বোধন হয়ে গেছে। সেকারণেই এদিনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত থাকলেও যাননি মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি ও রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক। যদিও বিতর্ককে আমল দিতে নারাজ স্থানীয় সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। গতকাল রাতেও আসানসোলের গিরমিতে বাবুলের আগেই একটি রাস্তার উদ্বোধন করে দেয় আসানসোলের এক মেয়র পারিষদ। পানাগড়েও বাবুলের আগেই রাস্তার উদ্বোধন করে দিয়েছিলেন মলয় ঘটক।

১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

এমন কাণ্ড নতুন নয়। ১০ ডিসেম্বর, ঘোষণা মতো ২ নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে পানাগড় বাইপাসের উদ্বোধন করেন বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু তার আগেই রাস্তার উদ্বোধন করে দিয়ে এসেছিলেন মন্ত্রী মলয় ঘটক।

রাস্তা কতদিন টিকবে বা স্টেশনের চলমান সিঁড়ি কতদিন সচল থাকবে, তা সময়ই বলবে। তবে এইসব প্রকল্পের উদ্বোধন ঘিরে দুই শিবিরের এই সরস দড়ি টানাটানি কিন্তু তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন আসানসোলবাসী।

First published: 07:34:48 PM Apr 28, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर