এই গ্রামের সকলের নামই রাম! কেন জানেন?

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 30, 2017 05:18 PM IST
এই গ্রামের সকলের নামই রাম! কেন জানেন?
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 30, 2017 05:18 PM IST

#বাঁকুড়া: দুটি মানুষ দেখতে এক হলে যে কি বিপদ তা সেক্সপিয়ারের কমেডি অফ এরর বা বিদ্যাসাগরের ভ্রান্তিবিলাস চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে । কিন্তু যদি একটি পাড়ার সমস্ত পুরুষের নাম একই হয় তাহলে কি হতে পারে একবারও ভেবে দেখেছেন ? হ্যাঁ নামের মধ্যে সূক্ষ্ম পার্থক্য থাকলেও বাঁকুড়া শহর লাগোয়া একটি গ্রামের গোটা পাড়ায় আট থেকে আশি সকলেরই নাম রাম । আর শুধু জীবিত পুরুষেরাই নন গত পাঁচ শাতশ বছর ধরে যারা ওই পাড়ায় জন্মেছেন তাঁদের প্রত্যেকেরই নাম সেই রাম । ভবিষ্যতে যারা জন্মাবে তাদের পরিচয়ও হবে একই । তাই ওই গ্রামে রাম বাবুর খোঁজ করতে যাওয়ার চেষ্টা ভুলেও করবেন না যেন ।

কথায় বলে নাম দিয়ে কাম কী? না, নাম দিয়ে কাম আছে বৈকি। আর নাম যদি হয় রাম। তাও আবার গ্রামের সকলের। তাহলে তো ভারী মুশকিল। কাকে ছেড়ে কাকে ডাকবেন! জানেন কি? এই গ্রাম কোথায় আছে ?

বাঁকুড়া শহর লাগোয়া পশ্চিম সানাবাঁধ গ্রাম । প্রাচীন এই জনপদের একটি পাড়ার নাম রাম পাড়া । এই পাড়ায় একসময় ছিল মুখোপাধ্যায় দের জমিদারী । মুখোপাধ্যায় পরিবারের কুল দেবতা রাম চন্দ্র । মূর্তি না হলেও পাড়ায় থাকা রাম মন্দিরে থাকা একটি শালগ্রাম শিলাকে শতকের পর শতক ধরে রাম হিসাবে পুজো করে আসছেন ওই পরিবারের সদস্যরা । এই পরিবার যখন থেকে নিজেদের কুলদেবতা হিসাবে রাম চন্দ্রকে গ্রহন করেন তখন থেকেই পরিবারের পুরুষদের রাম এর নামে নামকরণ প্রথা চালু হয় । তারপর কেটে গেছে শতকের পর শতক । সময়ের সাথে সাথে মুখোপাধ্যায় পরিবার ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে একটি গোটা পাড়ার আকার নিলেও নামকরনের রীতি বদলায়নি ।

৫০০-৭০০ বছর ধরে এই পরম্পরাই চলছে গ্রামে। এমনকী ভবিষ্যতেও নাম রাখতে গিয়ে বাবা-মায়েরা এই পথেই হাঁটবেন। কিন্তু কেন? শোনা যায়, এখানে একসময় ছিল মুখোপাধ্যায় পরিবারের জমিদারি। তাঁদের কুলদেবতা রামচন্দ্র। মূর্তি না থাকলেও পাড়ায় রামমন্দিরে থাকা একটি শালগ্রাম শিলাকে কয়েক শতক ধরে রাম হিসেবে পুজো করতেন ওই পরিবারের সদস্যরা। সেই থেকেই এই নামকরণ প্রথা চালু।

ফলে পাড়ার সকল পুরুষেরই নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে রাম । তবে শুধু রাম নামে নামকরনের নানা অসুবিধার কথা ভেবে রামের সঙ্গে  অনুষঙ্গ হিসাবে জুড়ে দেওয়া হয় জীবন , শরন , দুলাল , রবি , রঞ্জন , কৃষ্ণ , কলি , আশিস , কানাই ,ময় এই সব । আর সেই পুরো নাম ধরেই ডাকা হয় সকলকে । পাড়ার বাসিন্দাদের দাবি একেবারে অতীত থেকে ধরলে সকলের নামের প্রথম অংশ রাম হলেও পরের অংশ মৌলিক ভাবেই দেওয়া হয় । যার ফলে কখনও তেমন সমস্যা হয়নি ।

First published: 05:18:29 PM Jun 30, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर