সংসদে তিস্তা চুক্তি নিয়ে সরব তৃণমূল, ‘যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো বিরুদ্ধ’ বলে অভিযোগ

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 27, 2017 04:36 PM IST
সংসদে তিস্তা চুক্তি নিয়ে সরব তৃণমূল, ‘যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো বিরুদ্ধ’ বলে অভিযোগ
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 27, 2017 04:36 PM IST

#নয়াদিল্লি: শেখ হাসিনার ভারত সফরের আগেই তিস্তা চুক্তি নিয়ে লোকসভায় প্রতিবাদের ঝড় তুলল তৃণমূল কংগ্রেস। সৌগত রায়ের অভিযোগ, ২৫ মে চুক্তি সই হবে, অথচ রাজ্য তা জানেই না। রাজ্যকে অন্ধকারে রেখে চুক্তি করতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাঁর হুঁশিয়ারি, রাজ্যের স্বার্থকে অগ্রাহ্য করে কখনই এই চুক্তি নয়।

৭ এপ্রিল ভারত সফরে আসছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সফরেই কি তিস্তা চুক্তি সইয়ের ভিত গাঁথা হবে? এমন আশাই জোরাল হচ্ছে ওপার বাংলায়। কিন্তু, তিস্তার জলবণ্টন নিয়ে কী বলছে রাজ্য? সোমবার কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করে লোকসভায় প্রতিবাদের ঝড় তুলল তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যের শাসক দলের তরফে লোকসভায় সৌগত রায়ের সওয়াল, ‘জলবণ্টন চুক্তি নিয়ে কেন্দ্রের দুমুখো অবস্থান৷ চুক্তির ব্যাপারে রাজ্যকে জানাতে হবে ৷ রাজ্যকে না জানিয়ে চুক্তি করা যাবে না ৷ সিন্ধু জলচুক্তি নিয়ে কড়া অবস্থান রাজ্যের ৷ তিস্তা চুক্তি নিয়ে তাড়াহুড়ো করছে কেন্দ্র ৷ রাজ্যকে না জানিয়েই চুক্তির পথে হাঁটছে কেন্দ্র ৷’

কয়েকদিন আগে তিস্তা জলবণ্টন নিয়ে একটি বেসরকারি চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, জলবণ্টন চুক্তি হবে শোনা গেলেও, রাজ্য সরকার তার কিছুই জানে না। এবার সেই সুর সৌগত রায়ের গলাতেও। তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায়ের বক্তব্য, ‘রাজ্যের স্বার্থকে ক্ষুণ্ণ করা যাবে না, এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি ৷’

২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তিস্তা নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে ছিটমহল বিনিময়ের মাধ্যমে বাংলাদেশেকে সৌহার্দ্রের বার্তাও দেন তিনি। কিন্তু, নানাকারণে সম্পর্কের অবনতি হওয়াতেই কি রাজ্যকে এড়ানোর চেষ্টা মোদি সরকারের? প্রশ্ন উঠছে।

First published: 04:36:19 PM Mar 27, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर