GST নিয়ে কি এই ভুল ধারণায় ভুগছেন? কিনতে গিয়ে ঠকে যাওয়ার আগে জেনে নিন..

Jul 03, 2017 01:38 PM IST | Updated on: Jul 03, 2017 01:39 PM IST

#নয়াদিল্লি: ১৭ বছরের অপেক্ষার শেষে চালু হল এক দেশ এক কর। ১৯৪৭ সালের পর ২০১৭। ৭০ বছর পর আবারও সংসদে মধ্যরাতের অধিবেশন। আবারও রচিত ইতিহাস ৷ মধ্যরাতের অধিবেশনে সংসদের সেন্ট্রাল হলে অ্যাপের মাধ্যমে চালু হল GST অর্থাৎ Goods and Services Tax ৷

এরই সঙ্গে ১৭ ধরনের ট্যাক্স ও ২৩ ধরনের সেস-এর অবসান ঘটিয়ে লাগু হল GST ৷ পাঁচশোরও বেশি করের ধার ঘুচিয়ে এখন এক দেশ এক কর এক বাজার ৷ কিন্তু জিএসটি চালুর পর থেকেই নতুন কর ব্যবস্থা নিয়ে ধোঁয়াশায় ক্রেতা থেকে বিক্রেতা ৷ কোন জিনিসের কী হারে দাম নেওয়া হবে? কোন জিনিসের দাম কতটা বাড়বে বা কমবে? সংসার খরচ কী আরও বাড়বে? আশঙ্কার দোলাচলে ক্রেতা থেকে বিক্রেতা সকলেই। এরমধ্যেই ঘোলাজলে মাছ ধরতে নেমে পড়েছে একদল ব্যবসায়ীও।

GST নিয়ে কি এই ভুল ধারণায় ভুগছেন? কিনতে গিয়ে ঠকে যাওয়ার আগে জেনে নিন..

জিএসটি নিয়ে একাধিক ভুল ধারণার অবসান ঘটালেন রাজস্ব বিভাগের সেক্রেটারি হাসমুখ আধিয়া ৷ কেন্দ্রের রাজস্ব বিভাগের বিবৃতি অনুযায়ী জিএসটি-র যেসব বিষয় নিয়ে ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা, তা আসলে শুধুমাত্র ভুল ধারণা ৷ জিএসটি-র ফলে যে বিপুল দাম বাড়তে চলেছে এই রটনারও অবসান ঘটাল রাজস্ব বিভাগ ৷

ভুল ধারণা ১ - GST হার আগের ভ্যাট করের তুলনায় অনেক বেশি ৷ এই যুক্তি দেখিয়ে অনেক অসৎ ব্যবসায়ী জিনিসের চড়া দাম হাঁকছেন ৷

বাস্তব- ভ্যাট, এক্সসাইজ, সার্ভিস করের বদলে এখন শুধুমাত্র দিতে হবে GST ৷ সব কটি কর আলাদা ভাবে না দিয়ে এই একটি করের অন্তর্ভুক্ত বলে চোখে দেখে GST এর হার বেশি মনে হচ্ছে ৷ কিন্তু দামে বিশেষ হেরফের হচ্ছে না ৷

ভুল ধারণা ২- GST চালু হওয়ার পর ব্যবসা করতে গেলে কম্পিউটার ব্যবহার বাধ্যতামূলক বলে অনেকেরই ধারণা তৈরি হয়েছে ৷ সমস্ত বিল হতে হবে ইনভয়েস কম্পিউটার জেনারেটেড ৷

বাস্তব- রাজস্ব বিভাগ জানাচ্ছে যেকোন কেনাকেটার বিল কম্পিউটার জেনারেটেড হতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধকতা নেই ৷ বিল সাধারণ অর্থাৎ ম্যানুয়ালি হলেও হবে ৷

ভুল ধারণা ৩- GST লাগু হওয়ার পর ব্যবসা করতে গেলে থাকতেই হবে ইন্টারনেট সংযোগ ৷

বাস্তব- রাজস্ব বিভাগ জানিয়েছে এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা ৷ শুধু মাত্র মাসিক রিটার্ন অনলাইনে জমা করার সময় লাগবে ইন্টারনেট সংযোগ ৷ তা যে কোনও কম্পিউটার থেকেই করা সম্ভব ৷

ভুল ধারণা ৪- ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদেরও প্রতিটি ক্রয়-বিক্রয়ের বিস্তারিত তথ্য রির্টানে জানাতে হবে ৷

বাস্তব- রাজস্ব বিভাগ জানাচ্ছে, যারা রিটেল ব্যবসায়ে যুক্ত তাদের শুধু মোট ক্রয়-বিক্রয়ের সারসংক্ষেপটুকু জানাতে হবে ৷

ভুল ধারণা ৫- প্রতিমাসে তিনবার রিটার্ন জমা করতে হবে ব্যবসায়ীদের ৷ তাতে খরচ ও ঝামেলা দুইই অনেক বাড়বে ৷ এই কারণ দেখিয়ে অনেক ব্যবসায়ী আবার অধিক মূল্যও দাবি করছেন ৷

বাস্তব- GST নিয়মে বলা হয়েছে একটি রিটার্নই তিনটি অংশে ভাগ করার কথা বলা হয়েছে ৷ ডিলারকে একটি জমা দিতে হবে ৷ বাকি দুটি অটোমেটিক্যালি জমা পড়বে ৷ এর জন্য বাড়তি কোনও খরচ লাগবে না ৷

ভুল ধারণা ৬- ব্যবসায়ীরা ভাবছেন প্রভিশনাল আইডি দিয়ে আর ব্যবসা করা যাবে না ৷

বাস্তব- আসলে এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা ৷ নিয়ম অনুযায়ী প্রভিশনাল আইডি-ই হল চুড়ান্ত GSTIN নম্বর ৷ সুতরাং ব্যবসা চালিয়ে নিয়ে যেতে কোনও বাধা নেই ৷

ভুল ধারণা ৭- অনেক ব্যবসায়ীদের প্রশ্ন পূর্বের নিয়ম অনুযায়ী তাদের পণ্য বা ব্যবসা রেজিস্ট্রার্ড ছিল না ৷ তাই পয়লা জুলাই থেকে নয়া নিয়ম চালুর পর রেজিস্ট্রেশন না থাকায় ব্যবসা বন্ধ করে দিতে হবে ৷

বাস্তব- রাজস্ব বিভাগ জানিয়েছে, এমন আশঙ্কার কোনও কারণ নেই ৷ নতুন নিয়ম চালুর পর রেজিস্ট্রেশন ছাড়াও ব্যবসা চালিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব ৷ কিন্তু ৩০ দিনের মধ্যে অতি অবশ্যই GST সিস্টেমে রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নিতে হবে ৷ নচেৎ ভবিষ্যতে অসুবিধায় পড়তে হতে পারে ৷

এছাড়াও GST নিয়ে ধোঁয়াশা কাটাতে হেল্পলাইন চালু করেছে ৷ আগামী ৬ মাস ২৪ ঘণ্টা চালু থাকবে হেল্পলাইন ৷ যেকোনও সময়ে ফোনে সাহায্য মিলবে ৷

জিএসটি চালুর রাতেই নতুন কর ব্যবস্থা নিয়ে ধোঁয়াশা ও ধন্দের পরিপ্রেক্ষিতে মজার একটি উদাহরণ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন চশমা বানালে প্রথমে চোখে অভ্যস্ত হতে সময় লাগে। চোখ এদিকে ওদিকে করে ধীরে ধীরে অভ্যাস করতে হয়। এটিও তেমনই। আইনস্টাইন বলেছিলেন কর ব্যবস্থাকে বোঝা সবচেয়ে জটিল কাজ । তাহলে আমাদের দেশের এত ধরনের কর ব্যবস্থাকে দেখলে উনি কী বলতেন ?’ তাঁর মতে, ‘GST সরল প্রক্রিয়া ৷ গুড অ্যান্ড সিম্পল ট্যাক্স ৷ কিছুটা সমস্যা হবে, কিন্তু মারাত্মক হবে না ৷’ একইসঙ্গে জিএসটি নিয়ে অপপ্রচার বন্ধ করার জন্য সতর্কও করেন ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES