সংসদে ‘আমরা-ওরা’, ভারত ছাড়ো আন্দোলনকে সামনে রেখে মোদির একজোট হওয়ার বার্তা

Aug 09, 2017 02:45 PM IST | Updated on: Aug 09, 2017 03:22 PM IST

#নয়াদিল্লি: রাজ্যসভায় আহমেদ প্যাটেলের জয় নিয়ে টানটান নাটক শেষ হলেও, তার রেশ বজায় রইল সংসদে। বুধবার সংসদে, বেয়াল্লিশের ভারত ছাড় আন্দোলনের পঁচাত্তর বছর পূর্তিতে দেশ জুড়ে ‘সংকল্প সে সিদ্ধি’ কর্মসূচির ডাক দেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের উন্নয়নে একজোট হয়ে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। কিন্তু, তাতে সায় দিয়ে বিজেপির হাতে অস্ত্র তুলে দিতে নারাজ কংগ্রেস। লোকসভায় নাম না করে সঙ্ঘ পরিবারকে তীব্র আক্রমণ করেন সোনিয়া গান্ধি।

মঙ্গলবার গুজরাত থেকে ফোটোফিনিশে লড়াই জিতেছেন আহমেদ প্যাটেল। এককথায় বিজেপির মুখের গ্রাস কেড়ে নিয়েছে কংগ্রেস। সেই ধাক্কা হজম করেই কৌশল বদল বিজেপির। চলতি বছরেই ১৯৪২-এর ভারত ছাড় আন্দোলনের ৭৫ তম বর্ষপূর্তি। সেই ঘটনাকে সামনে রেখেই বুধবার সংসদে মোদির গলায় গান্ধিজির প্রশস্তি।

সংসদে ‘আমরা-ওরা’, ভারত ছাড়ো আন্দোলনকে সামনে রেখে মোদির একজোট হওয়ার বার্তা

তিনি বলেন,

‘স্বাধীনতা আন্দোলনে আজকের দিন গুরুত্বপূর্ণ ৷ আজকের দিনের গুরুত্ব অপরিসীম ৷ মহান বিপ্লবীদের আত্মত্যাগেই স্বাধীনতা আসে ৷ ৪২-এর আন্দোলনে গোটা দেশ সামিল হয় ৷ করেঙ্গে ইয়া মরেঙ্গের বার্তা ছিল গান্ধিজির ৷ তাঁর ডাকে দেশবাসী একজোট হয় ৷ গান্ধিজির আন্দোলন সম্বন্ধে যুবকদের জানা উচিত ৷ ভারতেই শেষ হয় ব্রিটিশ উপনিবেশ ৷ গোটা পৃথিবীকে পথ দেখিয়েছিল ভারত ৷’

প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য, দেশে অসহিষ্ণুতা বাড়ছে। দেশকে নতুন দিশা দেখানোর জন্য লোকসভার মঞ্চ থেকে সব রাজনৈতিক দলকেই আহ্বান জানান মোদি। লক্ষ্যপূরণে ২০১৭ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছেন তিনি।

গুজরাতে শেষমুহূর্তে আহমেদ প্যাটেলের জয় কিছুটা অক্সিজেন দিয়েছে কংগ্রেসকে। প্রেস্টিজ ফাইটে এগিয়ে গিয়েছে হাতশিবির। তাই বিজেপিকে একতরফা কৃতিত্ব দিতে নারাজ সোনিয়া গান্ধি। বুধবার, বিরোধিতার সুর চড়িয়ে আক্রমণ শানান তিনি। লক্ষ্য ছিল সঙ্ঘ পরিবার।

স্বচ্ছ ভারত থেকে সংকল্প সে সিদ্ধি। একাধিক কর্মসূচিতে বারবারই মহাত্মা গান্ধিজিকে টেনে এনেছেন মোদি। কিন্তু, তা কার্যত গেরুয়া শিবিরের বিজ্ঞাপন হিসেবেই দেখছে কংগ্রেস। সেইসঙ্গে রাজ্যসভা নির্বাচন নিয়ে তিক্ততা তাতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES