ময়ূর ব্রহ্মচারী ! গরুকে জাতীয় পশু করার দাবির পর নতুন মন্তব্য রাজস্থানের বিচারপতির

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 31, 2017 07:41 PM IST
ময়ূর ব্রহ্মচারী ! গরুকে জাতীয় পশু করার দাবির পর নতুন মন্তব্য রাজস্থানের বিচারপতির
Photo : AFP
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 31, 2017 07:41 PM IST

#জয়পুর: ফের বোমা ফাটালেন রাজস্থানের বিচারপতি মহেশ চন্দ্র শর্মা ৷ ফের ‘অদ্ভুত’ মন্তব্য করে বিতর্ক তুললেন এই বিচারপতি ৷ CNN-News18-কে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে মহেশ জানালেন, ‘আমাদের জাতীয় পাখি ময়ূর আসলে ব্রহ্মচারী ৷ যৌনতায় তাঁর আসক্তি নেই ৷ সে কখনই ময়ূরীর সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হয় না ৷ ময়ূরী, ময়ূরের অশ্রুজল খেয়েই প্রেগন্যান্ট হয় ! এমনকী, এই কারণেই কৃষ্ণ ময়ূরের পালক মাথায় পরতেন ৷’

জানা গিয়েছে, বুধবারই বিচারপতি মহেশ শর্মার আদালতে শেষদিন ছিল ৷ এদিনই তিনি অবসর গ্রহণ করে ৷

বুধবার সকালে বিচারপতি মহেশ চন্দ্র শর্মা আদালতে রায় দিয়ে বলেন, ‘গরু আমাদের মাতা ৷ গরুর মধ্যে হিন্দু সব দেবতার রূপ বর্তমান ৷ তাই জাতীয় পশু হিসেবে গরুরই মর্যাদা পাওয়া উচিত ৷ এমনকী, নেপালের জাতীয় পশু গরুই !’

আচমকাই শুরু যুদ্ধ ৷ স্বীকৃতি নিয়ে যুযুধান লড়াইয়ে মেতেছে গরু ও বাঘ ৷ এযুদ্ধ কোনও জঙ্গল দখলের নয় ৷ সেভাবে বলতে গেলে স্বীকৃতি দখলের লড়াইয়ে লড়িয়ে দেওয়া হল জাতীয় পশু বাঘ ও সম্ভাব্য জাতীয় পশু গরুকে ৷

ফের সংবাদ শিরোনামে গরু ৷ পশু নির্দেশিকা নিয়ে দেশজোড়া বিতর্কের মধ্যেই এবার শুরু জাতীয় পশু বিতর্ক ৷ গবাদি পশু বিক্রিতে কেন্দ্রের নির্দেশিকায় মাদ্রাজ হাইকোর্টের স্থগিতাদেশের একদিন পরেই ফের গরু নিয়ে আরেক হাইকোর্টের নির্দেশ ৷ অবিলম্বে গরুকে জাতীয় পশু বলে ঘোষণা করতে হবে বলে কেন্দ্রকে প্রস্তাব দিল রাজস্থান হাইকোর্ট ৷

একইসঙ্গে গোহত্যায় দোষী সাবস্ত হলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দেওয়ার দাবিও তুলেছে রাজস্থান হাইকোর্ট ৷ সম্প্রতি জয়পুরের একটি গোশালার শোচনীয় অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে দায়ের হয় একটি পিটিশন ৷ তাতেই কেন্দ্রকে আদালতের এমন পরামর্শ ৷

তবে দেশে গরু এখন প্রায় জাতীয় বিষয় ৷ কখনও গোহত্যা রোধে নির্দেশিকা, কখনও আবার গরুর আধার কার্ড ৷ এবার আবার জাতীয় স্বীকৃতিও ছিনিয়ে নেওয়ার লড়াইয়ে নামল গো-মাতা ৷

চাষের কাজ ছাড়া খোলা বাজারে গরু, বাছুর, বলদ ও উট কেনাবেচা করা যাবে না। কেন্দ্রের এই নির্দেশে দেশের চামড়া ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ ব্যবস্থায় প্রবল অনিশ্চয়তা। বেঁকে বসেছে পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্যসিদ্ধান্ত রদের আবেদন জানিয়ে চিঠি দিচ্ছে ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন।নির্দেশিকাকে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি ও মুম্বই হাইকোর্টেও দায়ের হয়েছে জনস্বার্থ মামলা।

মঙ্গলবারই গবাদি পশু বিক্রিতে কেন্দ্রের নির্দেশিকায় ৪ সপ্তাহের স্থগিতাদেশ দেয় মাদ্রাজ হাইকোর্টের মাদুরাই বেঞ্চ। পশু নির্দেশিকার আইনি বৈধতা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিল আদালত। মাদ্রাজ হাইকোর্ট জানায়, কোন আইনে কেন্দ্রের এই নিষেধাজ্ঞা, তা স্পষ্ট নয়। শুধুমাত্র গেজেট নোটিফিকেশন জারি করে এত বড় সিদ্ধান্তে যথেষ্টই আইনি ফাঁক থেকে যেতে পারে। এব্যাপারে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে।

পশু নির্দেশিকার প্রতিবাদে বিফ ফেস্টের আয়োজনে সংঘর্ষ গড়াল আইআইটি ক্যাম্পাসেও। বিফ ফেস্টের আয়োজক এমটেক পড়ুয়া সূরজকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ বি-টেকের পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে। মারধরের জেরে চোখ হারাতে পারেন তিনি।

বুধবার পশু নির্দেশিকা নিয়ে আলোচনা হতে পারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে। তার আগে নির্দেশিকা বিতর্কে জেরবার কেন্দ্র।

First published: 07:41:15 PM May 31, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर