সিয়াচেনের কাছে পাক যুদ্ধবিমান, ভারতের প্রত্যাঘাতের পর কী যু্দ্ধের প্রস্তুতি করছে পাকিস্তান ?

May 24, 2017 03:40 PM IST | Updated on: May 24, 2017 06:27 PM IST

#নয়াদিল্লি:

ভারতকে সমঝে দিতে নাকি নিজেই মিরাজ যুদ্ধবিমান উড়িয়ে সিয়াচেনে ঢুকে পড়েছিলেন পাক বায়ুসেনা প্রধান। মঙ্গলবার নওশেরায় বাঙ্কার হামলার জবাবেই নাকি পাকিস্তানের এই হুঁশিয়ারি। ভারতের আকাশে  পাক বিমানে উপস্থিতির কোনও প্রমাণ মেলেনি। তবে পাকিস্তানের তরফে উসকানি চলছেই। সবকটি এয়ারবেস পোস্টকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সক্রিয় করার নির্দেশ পাক বায়ুসেনা প্রধানের।  পাক অধিকৃত কাশ্মীরেও আনা হচ্ছে নতুন ডিভিশন।

সিয়াচেনের কাছে পাক যুদ্ধবিমান, ভারতের প্রত্যাঘাতের পর কী যু্দ্ধের প্রস্তুতি করছে পাকিস্তান ?

ভারতের গোলায় গুঁড়িয়ে গিয়েছে পাক  সেনাঘাঁটি। দুনিয়ার সামনে মুখরক্ষায় এবার কি ভুয়ো খবর ছড়িয়ে বাজার গরম করতে নামল পাকিস্তান?

ভারতের বাঙ্কার হামলার যোগ্য জবাব দেওয়া গিয়েছে। বুধবার দুপুর থেকে দাবি করতে শুরু করে পাক সংবাদমাধ্যম।  পাক বায়ুসেনা প্রধান সাহিল আমান  নাকি নিজেই মিরাজ যুদ্ধবিমান উড়িয়ে সিয়াচেনে ঢুকে পড়েছিলেন।  বিনা বাধায় ফিরেও আসেন।  কিন্তু সত্যিই কি ভারতের আকাশে ঢুকেছিল পাক যুদ্ধবিমান?  ভারতীয় বায়ুসেনার দাবি,

সিয়াচেনে পাক বিমানের অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেনি। সিয়াচেন সব সর্বত্রই বায়ুসেনা সতর্ক রয়েছে।  ইচ্ছাকৃতভাবে সেই চেষ্টা হলে যে কোনও বিমান

গুলি করে নামাতে সক্ষম বায়ুসেনা।

উপগ্রহ চিত্রে ধরা পড়েছে, সিয়াচেনের খুব পাশ দিয়ে উড়ে গিয়েছে পাক যুদ্ধবিমান। স্কারদু বিমানঘাঁটি থেকে মিরাজে উড়িয়েছেন পাক বায়ুসেনা প্রধানও।  তবে ভারতের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেনি পাক যুদ্ধবিমান। এই চাপানউতোরের মধ্যেই আন্তর্জাতিক সীমান্ত ও হান্দওয়ারায় আবারও জঙ্গি অনুপ্রবেশের ছক ভেস্তে দিয়েছে সেনা। সীমান্তে ছায়াযুদ্ধের জন্য তৈরি থাকতে হবে সেনাকে। বুধবার নতুন করে সেনা-জওয়ানদের সতর্কতা সেনার কাশ্মীর ডিভিশনের।

বুধবারই সন্ত্রাসদমনে মার্কিন অনুদান ছাঁটাইয়ের খবর এসেছে। সন্ত্রাস দমনে পাক উদ্যোগ নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। যদিও সেসব উপেক্ষা করেই সীমান্তে রীতিমতো যুদ্ধপ্রস্তুতিতে ব্যস্ত পাকিস্তান। বায়ুসেনার সঙ্গে বাড়তি সেনা ডিভিশনকেও আনা হচ্ছে আন্তর্জাতিক সীমান্তে। উত্তাপ বাড়ছে সীমান্তে।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES