ওভালে পাক বোলারদের কাছে আত্মসমর্পণ কোহলিদের, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির রং এবার সবুজ

Jun 18, 2017 09:40 PM IST | Updated on: Jun 18, 2017 11:03 PM IST

পাকিস্তান : ৩৩৮/৪ ( ৫০ ওভার)

ভারত: ১৫৮ ( ৩০.৩ ওভার)

ওভালে পাক বোলারদের কাছে আত্মসমর্পণ কোহলিদের, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির রং এবার সবুজ

Photo Courtesy: ICC

১৮০ রানে জিতে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান 

#লন্ডন: ক্রিকেট খেলা এই জন্যই হয়তো তীব্র অনিশ্চয়তার খেলা ৷ যেখানে  র‌্যাঙ্ক তালিকায় শীর্ষে থাকা দলও যে কোনওদিন ধুলোয় গড়াগড়ি খেতে পারে ৷ খাতায়-কলমে কোনও দল যতোই এগিয়ে থাকুক না কেন, ম্যাচ শেষ হওয়া না পর্যন্ত কারোর জয়ই নিশ্চিত বলে ধরে নেওয়া সম্ভব নয় ৷ রবিবার ওভালে ঠিক তেমনটাই করে দেখালেন সরফরাজরা ৷ যে দলের টুর্নামেন্টে অংশ ( আইসিসি-র ওয়ান ডে র‌্যাঙ্কিংয়ে অষ্টম স্থানে ছিল পাকিস্তান)  নেওয়াটাই একসময় অনিশ্চিত ছিল ৷ সেই দলের হাতেই কী না শেষপর্যন্ত উঠল চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি !

ভারতের কাছে বিশ্রী হেরেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অভিযান শুরু করেছিল পাকিস্তান ৷ সরফরাজদের সেইসময় তুলোধনাও কিছু কম করেননি পাক সমর্থকরা ৷ কুশপুতুল পোড়ানোর পাশাপাশি পাক ক্রিকেটারদের শ্রাদ্ধের কাজও সেরে ফেলেছিলেন ক্ষুব্ধ সমর্থকরা ৷ আজ,রবিবার দেশবাসীর হাতে এবছরের সবচেয়ে বড় উপহারটা তুলে দিতে সফল সরফরাজরা ৷ ইমরান খানের নেতৃত্বে ১৯৯২ বিশ্বকাপ এবং ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ফের কোনও আইসিসি টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পেল পাকিস্তান ৷ সেইসঙ্গে এবারই প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতল পাকিস্তান ৷

‘সুপার সানডে’ ফাইনালটা অবশ্য শুরু হয়েছিল ভারতের পক্ষেই ৷টস জিতে এদিন প্রথমে ফিল্ডিং নিতে বিশেষ ভাবেননি ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৷ কিন্তু এরপর থেকে গোটা ম্যাচে যে আর কোনও কিছুই ঠিকঠাক যাবে না গতবারের চ্যাম্পিয়নদের, তা হয়তো আশা করেননি অতি বড় পাক সমর্থকও ৷ কারণ এদিনের ফাইনাল ভারত শুধু হারেনি, পাকিস্তানের কাছে এককথায় আত্মসমর্পণ করেছে ৷ ফাইনালের মতো মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বিরাটদের এমন জঘন্য পারফরম্যান্স একেবারেই কাঙ্খিত নয় ৷ ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং, ক্রিকেটের এই তিন বিভাগেই ভারতকে এদিন টেক্কা দিতে সফল সরফরাজরা ৷

টস হেরে ব্যাট করতে নামার পর থেকেই এদিন আগাগোড়া চ্যাম্পিয়নের মতো খেলেছে পাকিস্তান ৷ ইনিংসের শুরুতে বুমরাহের বলে আউট হয়েও নো বলে বেঁচে যান পাকিস্তানের তরুণ প্রতিভা ফকর জামান ৷ এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে ৷ ১০৬ বলে ১১৪ রানের একটা চোখধাঁধানো ইনিংস খেলেন পাক ওপেনার ৷ জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরিরও স্বাদ পেলেন তিনি ৷ তাও আবার ভারতের বিরুদ্ধে মহাগুরুত্বপূর্ণ ফাইনালে ৷ ফকর জামানের পাশাপাশি বড় রান পেয়েছেন আজহার আলি (৫৯), বাবর আজম (৪৭) এবং অভিজ্ঞ মহম্মদ হাফিজও (৫৭ নট আউট) ৷

৩৩৯ রানের টার্গেট খুব সহজ কাজ না হলেও টি২০-র যুগে এই রান তাড়া করাটা এখন অসম্ভব কিছু নয় ৷ কিন্তু বাঁ-হাতি পাক পেসার মহম্মদ আমেরের প্রথম স্পেলেই সব শেষ হয়ে যায় ভারতের ৷ একে একে প্যাভিলিয়ানে ফেরেন রোহিত শর্মা (০), অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৫) এবং শিখর ধাওয়ান (২১)৷ এরপর যুবরাজ (২২) কিছুটা চেষ্টা করলেও বেশি দূর এগোতে পারেননি ৷ চূড়ান্ত ব্যর্থ ধোনি (৪) এবং কেদার যাদবও (৯) ৷ এই ম্যাচ থেকে ভারতের প্রাপ্তি শুধু একটাই, সেটা প্রথমবারের জন্য ইংল্যান্ডের মাটিতে খেলা হার্দিক পাণ্ডিয়ার ব্যাটিং ৷ মাত্র ৪৩ বলে ৭৬ করে এদিন বিপক্ষকে একসময় চাপে ফেলে দিয়েছিলেন ৷ কিন্তু তিনি রান আউট হতেই সব আশা শেষ হয়ে যায় ভারতের ৷১৮০ রানে শেষপর্যন্ত ম্যাচ জিতে নেয় পাকিস্তান ৷ ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন ফকর জামান ৷ পাশাপাশি টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার পেয়েছেন পাক পেসার হাসান আলি ৷

Photo: ICC Photo: ICC

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES