ক্লাসরুমে জায়গা নেই, সাইকেল স্ট্যান্ডে-মেঝেয় চলছে পরীক্ষা

Apr 28, 2017 02:31 PM IST | Updated on: Apr 28, 2017 02:31 PM IST

#মালদহ: কোনও পাঠশালায় নয়, এমন দৃশ্য দেখা গেল মালদহ কলেজে স্নাতকস্তরের পরীক্ষায় ৷ ফের বিতর্কে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় ৷ অতিরিক্ত ক্লাসরুমের অভাবে সাইকেল স্ট্যান্ডে চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরের পরীক্ষা ৷ ক্লাসরুমেও মাথা খোঁজার ঠাঁই নেই ৷ এক বেঞ্চে বসানো হয়েছে পাঁচ পরীক্ষার্থীকে ৷ বেঞ্চে জায়গা না পেয়ে মাটিতে, সাইকেল স্ট্যান্ডের জায়গায় বসে পরীক্ষার্থীদের লিখতে দেখা গিয়েছে ৷

প্রশ্ন উঠেছে, এটা পরীক্ষা না প্রহসন ৷ মালদহে এই মুহূর্তে তীব্র গরমে পারদ ছুঁয়েছে ৩৯-এর কোঠা ৷ এমন পরিস্থিতিতে ক্লাসরুমে এক বেঞ্চে ঠাসাঠাসি করে বসে পরীক্ষা দেওয়া রীতিমতো শাস্তির সমান ৷ এইরকম গরমে রীতিমতো মাটিতে, এমনকী সাইকেল স্ট্যান্ডে বসিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার অভিযোগ উঠল মালদহ কলেজে ৷

ক্লাসরুমে জায়গা নেই, সাইকেল স্ট্যান্ডে-মেঝেয় চলছে পরীক্ষা

স্নাতক স্তরের পরীক্ষায় মালদহ কলেজে আসনের অতিরিক্ত পরীক্ষার্থীদের সিট ফেলায় এই সমস্যা বলে জানাচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষ ৷ কলেজের অধ্যক্ষ উত্তমকুমার সরকারের দাবি, ‘কলেজে মাত্র ১৪০০ জনের বসার পরিকাঠামো রয়েছে ৷ এদিকে একসঙ্গে ৪ হাজার ছাত্রছাত্রীর পরীক্ষার সিট পড়েছে ৷ গতকাল উপাচার্য ফোন করে তাঁবু খাটিয়ে হলেও পরীক্ষা নিতে বলেন ৷’

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক সনাতন দাস ঘটনার দায় সম্পূর্ণ এড়িয়ে গিয়ে জানান, ‘ মালদহ কলেজ অসহযোগিতা করেছে ৷ ওদের যথেষ্ট জায়গা ছিল ৷ কলেজের কয়েকটি ঘর তালাবন্ধ ছিল ৷ তাই ওই পরিস্থিতি তৈরি হয় ৷ চেষ্টা করলেই সুষ্ঠু ব্যবস্থা করা যেত ৷ গোটা বিষয়টির তদন্ত হবে ৷’

সম্প্রতি সিসিটিভি নজরদারিতে পরীক্ষা নিয়ে নজির স্থাপন করে গৌরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় ৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার খাতায় পরীক্ষার্থীরা প্রেমের গান ও কবিতা লিখে রাখায় তৈরি হয় বিতর্ক ৷ দোষী ছাত্রছাত্রীদের দুবছরের জন্য সাসপেন্ড করে বিশ্ববিদ্যালয় ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES