‘‘এবার গোর্খাল্যান্ড হবেই, কেউ আটকাতে পারবে না ’’: বিমল গুরুং

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jun 23, 2017 09:24 AM IST
‘‘এবার গোর্খাল্যান্ড হবেই, কেউ আটকাতে পারবে না ’’: বিমল গুরুং
Photo : AFP
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jun 23, 2017 09:24 AM IST

#দার্জিলিং: এবার গোর্খাল্যান্ড হবেই। কেউ আটকাতে পারবে না। জিএলপি-র ইউনিফর্মে গোপন ডেরা থেকে নিউজ ১৮ বাংলাকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার বিমল গুরুংয়ের। মোর্চা প্রধানের আরও দাবি, কেন্দ্রীয় সরকারও পৃথক রাজ্যের দাবি বিবেচনা করে দেখছে। তাঁর অভিযোগ, পুলিশের গুলিতেই মৃত্যু হয়েছে তিন মোর্চা সমর্থকের। সিংমারি সংঘর্ষের পর মোর্চাপ্রধানের এই প্রথম কোনও সাক্ষাৎকার।

রাজ্যের কৌশলে চাপে মোর্চা। ক্রমশই চেপে বসছে ফাঁস। এমন পরিস্থিতিতে গোর্খাল্যান্ডের দাবিকেই আঁকড়ে ধরছে মোর্চা। সেই দাবিকে সামনে রেখেই আন্দোলনের তীব্রতা বাড়ানোর রণকৌশলই নিল মরিয়া গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। শিলিগুড়িতে রাজ্যের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকের পর, গোপন ডেরা থেকে সেই বার্তাই দিলেন বিমল গুরুং।

বৃহস্পতিবার, কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকেই স্থির হয়, এখন গোর্খাল্যান্ডই লক্ষ্য মোর্চার। পৃথক রাজ্যের দাবি আদায়ে গোপন ডেরা থেকে লড়াই চালানোর হুমকিই দিচ্ছেন মোর্চা প্রধান।

গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে বারবারই কেন্দ্রকে জড়াতে চেয়েছে মোর্চা। এবারও সেই দাবি কার্যত এড়িয়ে গিয়েছে দিল্লি। উল্টে দার্জিলিং-এ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার বার্তাই দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। যদিও, পৃথক রাজ্যের জন্য কেন্দ্রের দিকেই তাকিয়ে গুরুংরা।

তিন মোর্চা সমর্থকের মৃত্যুতে বিমল গুরুং ও তাঁর স্ত্রী আশা গুরুংয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে। তাতে ষড়যন্ত্রের তত্ত্বই খাড়া করছেন মোর্চা সভাপতি।

জাতিসত্ত্বার আবেগকে সামনে রেখে পাহাড়ের অন্যান্য দলগুলিকে একজোট করতে চাইছে মোর্চা। কোন পথে যাচ্ছে তাহলে আন্দোলন ? পাহাড়ে চেনা পরিচিত হিংসার ছকই ক্রমশ স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

রিপোর্টার: আবীর ঘোষাল

First published: 09:16:07 AM Jun 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर