অষ্টমদিনেও অশান্ত পাহাড়ে, চকবাজার থেকে কালিম্পং সর্বত্রই মোর্চার বিক্ষোভে উত্তাল

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 19, 2017 06:39 PM IST
অষ্টমদিনেও অশান্ত পাহাড়ে, চকবাজার থেকে কালিম্পং সর্বত্রই মোর্চার বিক্ষোভে উত্তাল
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 19, 2017 06:39 PM IST

#দার্জিলিং: বনধের অষ্টম দিনেও পাহাড়ে আগুন। কালিম্পঙে পুলিশের গাড়িতে হামলার অভিযোগ মোর্চা সমর্থকদের বিরুদ্ধে। জ্বালিয়ে দেওয়া হল ট্রাক। গুরুতর জখম চালক। কার্শিয়ঙে মোর্চার মহামিছিলের জেরে ব্যাহত যান চলাচল। শান্তি না হলেও, দিনভর মোর্চার মিছিল সরগরম ছিল দার্জিলিং।

মোর্চার ডাকা বনধের অষ্টম দিনেও হিংসা অব্যাহত পাহাড়ে। কালিম্পং গভর্মেন্ট হাইস্কুলের সামনে পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ মোর্চা সমর্থকদের বিরুদ্ধে। দশ নম্বর জাতীয় সড়কে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় একটি ট্রাক। গুরুতর জখম ট্রাকের চালক।

কালিম্পং জুড়ে এদিনও মিছিল করে মোর্চা সমর্থকরা। মোর্চার এই আন্দোলনে যোগ দেওয়ার কথা আগেই জানিয়েছিলেন জন আন্দোলন পার্টির সভাপতি হরকা বাহাদুর ছেত্রী। সেই মতো এদিন ডামবারচকে মোর্চার মিছিলে অংশ নেন জাপ সমর্থকরা। গরুবাথানে রাস্তা আটকে চলে বিক্ষোভ। কার্শিয়ঙের জিরো পয়েন্টে মোর্চার মহামিছিলের জেরে আটকে পড়ে সরকারি বাস। কয়েক ঘণ্টা ব্যাহত যানচলাচল।

৮ জুন থেকে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে দার্জিলিং। সোমবার সেভাবে হিংসা না ছড়ালেও, মোর্চার একাধিক মিছিলে সরগরম ছিল দার্জিলিং। গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে চকবাজার, লেবঙে মিছিল করে মোর্চার সমর্থকরা। মিছিল সামিল হয় দার্জিলিং গভর্মেন্ট কলেজের ছাত্রীরাও। শনিবার রাত থেকে ইন্টারনেট পরিষেবা ব্যাহত পাহাড়ে। পরিষেবা ফের চালুর দাবি ওঠে মিছিল থেকে।

শনিবার মৃত তিন মোর্চা সমর্থকের। এদিন তাঁদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় বিজনবাড়িতে।

First published: 06:39:20 PM Jun 19, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर