ফিল্মের নয়, ইনি বাস্তবের সিঙ্ঘম !

Apr 18, 2017 05:38 PM IST | Updated on: Apr 18, 2017 06:45 PM IST

#জলপাইগুড়ি: বন সিংঘম। পেশায় রেঞ্জ অফিসার। নেশায় বন উন্নয়ন। নরমে-গরমে এক্কেবারে রাউডি রাঠোর। চোরাশিকারীদের ত্রাস। তাঁর পায়ের শব্দেই থরহরিকম্প কাঠ মাফিয়ারা। বেলাকোবা রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত এবার বনবস্তির ছেলেমেয়েদের জন্য তৈরি করলেন স্কুল। জলপাইগুড়ি বৈকুণ্ঠপুর বন বিভাগের বেলাকোবা রেঞ্জে আটান্নজন কচিকাচাদের নিয়ে শুরু হয়েছে নার্সারি স্কুল।

ইনিও সিংঘম । কখনও নরম। কখনও গরম। বন রক্ষাই একমাত্র টার্গেট। রীতিমত শাসনে রাখেন বনকে।

ভালোবেসে বৈকুণ্ঠপুর বনের মানুষরাই নাম দিয়েছেন বন সিংঘম। হবে নাই বা কেন ? কয়েকশো কোটি টাকার সাপের বিষ থেকে বাঘের চামড়া, হাতির দাঁত, গন্ডারের খড়গ উদ্ধার-সহ গত এক বছরে চৌষট্টিজন অপরাধীকে গ্রেফতার করেছেন রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত। চোরাশিকারী, কাঠ মাফিয়াদের চোখে রাউডি রাঠোর সঞ্জয়কে এক ডাকে চেনে গোটা উত্তরবঙ্গ। বন্যপ্রাণ রক্ষার স্বীকৃতি হিসেবে পুরষ্কৃত করেছেন মুখ্যমন্ত্রীও।

মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পুরস্কার হিসেবে পেয়েছিলেন পঁচিশ হাজার টাকা। তার সঙ্গে নিজের টাকা দিয়ে এবার বনের ভিতর স্কুল তৈরি করলেন সঞ্জয় দত্ত। কাঠ, টিন দিয়ে তৈরি একতলার নার্সারি স্কুল। বনবস্তির ছেলে মেয়েদের জন্য। নাম, বনবন্ধু শিক্ষানিকেতন। আটান্নজনকে নিয়ে শুরু হয়েছে স্কুল।

রেঞ্জ অফিসারর এই উদ্যোগে খুশি বনকর্তারা। সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ। রাউডি রাঠোরের রুক্ষ দু-চোখে আগামী দিনের স্বপ্ন। পড়াশোনা শিখে তাঁর মতই যেন বন রক্ষায় ব্রতী হয় আজকের প্রজন্ম।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES