চোরাশিকারিদের নিশানায় গরুমারা, পর পর গন্ডার হত্যা

Apr 24, 2017 05:35 PM IST | Updated on: Apr 24, 2017 05:35 PM IST

#জলপাইগুড়ি: পর পর গন্ডার হত্যা। আন্তর্জাতিক চোরাশিকারী যোগ। প্রশ্নের মুখে জঙ্গলের নিরাপত্তা। তার মাঝে তিনদিন ধরে নিখোঁজ গরুমারার সবচেয়ে বড় চেহারার গন্ডার খাড়া সিং। মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফরের আগে রীতিমত অস্বস্তিতে বন দফতর। ইতিমধ্যেই ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বনমন্ত্রী। বাড়ানো হচ্ছে জঙ্গলের নিরাপত্তা। জঙ্গল পাহারায় কর্ণাটক থেকে আনা হচ্ছে পনেরটি কুনকি হাতি। কেন্দ্রীয় বন মন্ত্রকে পাঠানো হচ্ছে রিপোর্ট।

চোরাশিকারিদের নিশানায় গরুমারা, পর পর গন্ডার হত্যা

অসমের কাজিরাঙা জাতীয় উদ‍্যানের পর গরুমারা জাতীয় উদ্যান। মাত্র এক মাসের ব‍্যবধান। দুটি গন্ডার মেরে খড়গ কেটে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় বড়সড় প্রশ্নের মুখে গরুমারা অরণ‍্যের নিরাপত্তা। এর মধ্যে শনিবার থেকে খোঁজ নেই তৃতীয় একটি গন্ডারেরও। তাকেও খুন করে লুকিয়ে রাখা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

নিখোঁজ খাড়া সিং

----শনিবার থেকে খোঁজ নেই গরুমারার সবচেয়ে বড় চেহারার গন্ডার খাড়া সিং-এর

----ফেব্রুয়ারিতে তাকে গুলি করে খুনের চেষ্টা করে চোরাশিকারীরা

----প্রাণে বেঁচে গেলেও জখম হয় খাড়া সিং

-----এক মাস চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ওঠে

-----তার খোঁজে বনবস্তির বাসিন্দাদের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে

খবর প্রকাশ‍্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে বন দফতর। গন্ডার মৃত্যুর ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে সাসপেন্ড বিট অফিসার। শোকজ করা হয় এক রেঞ্জারকেও। গণ্ডার হত্যার তদন্তে অসম যাচ্ছে বন দফতরের একটি দল। রবিবার গরুমারায় গিয়ে বনমন্ত্রী জানান, জঙ্গলের নিরাপত্তা বাড়াতে এবার পনেরটি কুনকি হাতি আনা হচ্ছে কর্নাটক থেকে। তাদের জঙ্গল সাফারির কাজেও ব্যবহার করা হবে।

এক নজরে জলদাপাড়া ও গরুমারায় কুনকি হাতিরা।

নজরে কুনকি হাতি-----

---জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানে রয়েছে শাবকসহ পয়ষট্টিটি কুনকি হাতি

---চল্লিশটি হাতি জঙ্গল পাহারার কাজে নিযুক্ত

---আটটি হাতি জঙ্গল সাফারি করে

---গরুমারা জাতীয় উদ্যানে আছে চল্লিশটি কুনকি হাতি

---ছটি জঙ্গল সাফারি ও পনেরটি জঙ্গল পাহারার কাজ করে

চোরাশিকারীদের আরও একটি দল উত্তরবঙ্গে ঢুকেছে বলে খবর বনদফতরে। জঙ্গলে বাড়ানো হয়েছে নজরদারি। কেন্দ্রীয় বন মন্ত্রকে পাঠানো হচ্ছে রিপোর্ট। চোরাশিকারীদের বিরুদ্ধে অসমের সঙ্গে যৌথ অভিযানে নামতে চায় এ রাজ্যের বন দফতর।

সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফর। তার আগে একের পর এক গন্ডার হত্যার ঘটনায় রীতিমত চাপের মুখে বন দফতর। আধিকারিকদের শাস্তি , সিাআইডি তদন্তের নির্দেশ, নজরদারি বাড়ানোর উদ্যোগে কতটা কাজ হয় সেটাই এখন দেখার।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES