অশান্ত পাহাড়, ফের একাধিক সরকারি ভবনে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ গোর্খাল্যান্ড সমর্থকদের

Jul 13, 2017 12:58 PM IST | Updated on: Jul 13, 2017 12:59 PM IST

#দার্জিলিং: ঝিমিয়ে পড়া আন্দোলনে প্রাণস‍ঞ্চারের চেষ্টা। মোর্চা সমর্থকদের মৃত্যুকে ঘিরে ফের অশান্ত পাহাড়। ফের হিংসায় ফিরল মোর্চা। বেশ কয়েকদিনের শান্ত অবস্থা কেটে আবারও উত্তেজনা পাহাড়ে ৷ একের পর এক সরকারি অফিসে আগুন ধরিয়ে চলল মোর্চার বিক্ষোভ ৷ ভস্মীভূত সুকনার রেভিনিউ ইনস্পেকটর দফতর, বনদফতরের আবাসন ৷ আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় গয়াবাড়ি স্টেশনেও ৷

কালিম্পং, কার্শিয়াং ও দার্জিলিঙে একের পর এক সরকারি অফিসে আগুন লাগিয়ে ফের শুরু মোর্চা সমর্থকদের জঙ্গি আন্দোলন ৷ গতকাল গভীর রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে একের পর এক সরকারি অফিসে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল গোর্খাল্যান্ড সমর্থকদের বিরুদ্ধে ৷

অশান্ত পাহাড়, ফের একাধিক সরকারি ভবনে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ গোর্খাল্যান্ড সমর্থকদের

বৃহস্পতিবার দার্জিলিঙের ধোত্রে এলাকায় বনদফতরের আবাসনে আগুন লাগালোর অভিযোগ উঠেছে গোর্খাল্যান্ড সমর্থকদের বিরুদ্ধে ৷ অন্যদিকে, গভীর রাতে কালিম্পঙের তিস্তায় বনভূমি দফতরের বাংলোয় আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় ৷

সোনাদার পর পুড়ল গয়াবাড়ি স্টেশন ৷ গতকাল মধ্যরাতে গোর্খাল্যান্ড সমর্থকদের বিরুদ্ধে গয়াবাড়ি স্টেশন আগুন ধরিয়ে দেওয়ার

অভিযোগ ওঠে ৷ আগেও একবার গয়াবাড়ি স্টেশনে আগুন লাগানোর চেষ্টা চালানো হয় ৷

অন্যদিকে, এদিন সকালে ফের সিকিমগামী গাড়ি ভাঙচুর করা হয় ৷ ছোট-বড় মিলিয়ে কালিম্পঙের তারখোলায় ১০টি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয় ৷ পণ্যবোঝাই গাড়ির চালকদের বেধড়ক মারধর করা হয় ৷ শিলিগুড়ি থেকে সিকিম যাচ্ছিল গাড়িগুলি বলে জানা গিয়েছে ৷

আন্দোলনের দিন যত গড়াচ্ছে ততই পাহাড়ে মোর্চার ওপর চাপ পাহাড়প্রমাণ হচ্ছে। খাবারের সঙ্গে সঙ্গে পাহাড়বাসীর পকেটেও টান পড়েছে। অশান্তি তো আছেই, তার উপর বনধের জেরে স্বাভাবিক হয়নি জনজীবন। গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার তাণ্ডবে পুড়ছে একের পর এক বাড়ি। এখনও বন্ধ দোকান-বাজার। খোলেনি স্কুল-কলেজ। চরম সংকটে পাহাড়ের আমজনতা।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES