ডুয়ার্সে ১২ ঘণ্টার বনধ মোর্চার

Jun 18, 2017 09:10 AM IST | Updated on: Jun 18, 2017 09:10 AM IST

#ডুয়ার্স: পাহাড়ে ৩ মোর্চা সমর্থকের মৃত্যু ৷ প্রতিবাদে ডুয়ার্সে ১২ ঘণ্টার বনধ মোর্চার ৷ সকাল ৬টা থেকে শুরু হয়েছে বনধ ৷

রাস্তায় দেখা মেলেনি বেসরকারি বাস ৷ অপ্রীতিকর কিছু রুখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ৷ তবে বনধের প্রভাব বানারহাচে বেশ কম৷ খোলা রয়েছে দোকানপাট, সাপ্তাহিক হাট ৷ ট্রেন চলাচলও স্বাভাবিক ৷

ডুয়ার্সে ১২ ঘণ্টার বনধ মোর্চার

রাজ্যের কৌশলে কোণঠাসা হয়েই এবার পাহাড়ে মরণকামড় দিতে চাইছে মোর্চা। পর্যটনের মরসুমে অনির্দিষ্টকালের বনধ ডাকা নিয়ে মোর্চার নিজের ঘরেই অসন্তোষ তীব্র হচ্ছে। টান পড়েছে পাহাড়ে মজুত খাবার ও পানীয় জলের ভাণ্ডারেও। এমন পরিস্থিতিতে আন্দোলন তীব্র করে কেন্দ্রীয় সরকারের নজর কাড়ার কৌশলই নিয়েছে মোর্চা।

কৌশলটা আগেই স্পষ্ট করেছিলেন মোর্চা প্রধান। তাই ক্রমাগত পুলিশ, আধা সেনা, সেনার উপর হামলা। আর শনিবার তিন মোর্চা সমর্থকের মৃত্যু। ওই তিন লাশ সামনে রেখে মরণকামড় দিতে চাইছেন বিমল গুরুংরা।

তিন মোর্চা সমর্থকের মৃত্যুকে হাতিয়ার করে পাহাড়ের পাশাপাশি ডুয়ার্সেও আন্দোলন ছড়াতে চাইছে মোর্চা। রবিবার থেকে ডুয়ার্সে ১২ ঘণ্টার বনধের ডাক দিয়েছে মোর্চা। জলঢাকা থানায় আগুন লাগানো হয়েছে। আগুন জ্বলেছে গরুবাথানেও। তবে চাপে আছে মোর্চাও।

- পাহাড় নিয়ে রাজ্যের কড়া অবস্থানে চাপে মোর্চা

- পর্যটনের ভরা মরসুমে বন্্ধ ডাকা নিয়ে মোর্চার অন্দরেও অসন্তোষ তীব্র হচ্ছে

- আন্দোলন-বিক্ষোভের জেরে বিরাট ক্ষতির মুখে পর্যটন ব্যবসায়ীরা

- তার জেরে বেশকিছুটা জনভিত্তিও হারিয়েছে মোর্চা

- টান পড়েছে পাহাড়ে মজুত করা খাবার ও পানীয় জলের ভাঁড়ারে

এমন চাপের মুখে পড়েও কেন আন্দোলনের ধার বাড়াতে চাইছে মোর্চা?

- চাপের মুখে পড়ে সময় কেনা নয়, দ্রুত হেস্তনেস্ত চায় মোর্চা

- তাই, আন্দোলনের নামে ফের খুঁচিয়ে তোলা হচ্ছে গোর্খাল্যান্ডের জিগির

- মুখরক্ষার পথ খুঁজতেই চড়ানো হচ্ছে হিংসার পারদ

- ভৌগোলিক ভাবে দার্জিলিঙের অবস্থান স্পর্শকাতর এলাকায়

- সেখানে গন্ডগোল পাকিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইছে মোর্চা

মুখ্যমন্ত্রীর ভাষা-বিধি নিয়ে মোর্চার আন্দোলনের শুরু। কিন্তু, সেই আবেগ মুখ থুবড়ে পড়েছে মুখ্যমন্ত্রী বিধি বাতিলের ঘোষণায়। এখনও নতুন করে ইস্যু হাতড়াতে হচ্ছে মোর্চা নেতাদের। আচমকা কেন এই আন্দোলন? সঙ্গত ব্যাখ্যা নেই বিমল গুরুদের কাছে। মুখরক্ষায় মোর্চা তাকিয়ে কেন্দ্রের দিকে। শনিবারও মোর্চার মুখপাত্র বিনয় তামাং বলেছেন, রাজ্য সরকারের সঙ্গে নয়, তাঁরা আলোচনায় বসতে চান কেন্দ্রের সঙ্গে।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES