মোর্চার অষ্টম দিনের বনধে থমথমে পাহাড়, বিজনবাড়িতে নিহত মোর্চা কর্মীদের শেষকৃত্য

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 19, 2017 09:45 AM IST
মোর্চার অষ্টম দিনের বনধে থমথমে পাহাড়, বিজনবাড়িতে নিহত মোর্চা কর্মীদের শেষকৃত্য
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 19, 2017 09:45 AM IST

#দার্জিলিং: পাহাড়ে মোর্চার বনধের আজ অষ্টম দিন ৷ আজও থমথমে পাহাড় ৷ বিজনবাড়িতে নিহত মোর্চা কর্মীদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে আজ ৷ সোমবার পাহাড়ে বিভিন্ন জায়গায় মিছিল করবে মোর্চা ৷ আগামীকাল সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিয়েছে মোর্চা ৷ বৈঠকে ডাকা হয়েছে হরকাবাহাদুরকেও ৷ কেন্দ্রের কাছে দরবার নিয়ে বৈঠক বৈঠকে মোর্চার কেন্দ্রীয় কমিটি ৷

বনধের সপ্তম দিনেও মোচার হিংসার ছবিটা পালটায়নি কার্শিয়ং, কালিম্পঙে। অশান্তির আশঙ্কায় বন্ধ করে দেওয়া হয় ইন্দো-ভূটান গেট। যদিও রবিবার কিছুটা হলেও শান্ত ছিল দার্জিলিং। তিন সমর্থকের দেহ নিয়ে মিছিল করে মোর্চা। বাধা না দিয়ে ধৈর্যের পরীক্ষা দিল সেনা-পুলিশ।

শনিবার মৃত্যু হয় তিন মোর্চা কর্মী-সমর্থকের। রবিবার সেই তিনজনের দেহ নিয়ে রাস্তায় নামেন হাজার হাজার মোর্চা সমর্থক।

এই মিছিল থেকেই নতুন করে অশান্তির আশঙ্কা করেছিল প্রশাসন। তবে ৮ তারিখের পর প্রথম বার পাহাড়ে মোর্চার কোনও কর্মসূচিতে বাধা দিল না প্রশাসন। মিছিল থেকে প্রশাসনের বিরুদ্ধে নানা শব্দ ছুটে এলেও, কার্যত নিরব থাকে সেনা ও পুলিশ।

দার্জিলিং মোটের ওপর শান্তিপূর্ণ থাকলেও, অশান্তি জারি ছিল কার্শিয়ং, কালিম্পং ও ডুয়ার্সে। কালিম্পঙে সরকারি লাইব্রেরিতে ছোড়া হয় পেট্রোল বোমা। গরুবাথানের আলে গ্রাম পঞ্চায়েতে আগুন ধরানো হয়। অভিযোগ, পেডং ফাঁড়ির সামনে পুলিশের জিপে আগুন ধরিয়ে দেন মোর্চা সমর্থকরা। কার্শিয়ঙে দু'টি পুলিশের গাড়িতে হামলা চালান তাঁরা।

First published: 09:45:26 AM Jun 19, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर