ছাত্র সংসদ নির্বাচন নিয়ে ফের উত্তেজনা কোচবিহারে

Jan 24, 2017 06:27 PM IST | Updated on: Jan 24, 2017 06:27 PM IST

#কোচবিহার: ছাত্রভোট ঘিরে উত্তেজনা কোচবিহারের পঞ্চানন মহিলা কলেজে।  ২০ তারিখ ভোটে জয়ী হয় ডিএসও । অভিযোগ ভোটে জেতার পর ডিএসও-র ৪ সদস্যকে হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে তুলে আনে টিএমসিপি। এই খবর ছড়ানোর পরই উত্তেজনা ছড়ায় কলেজে।

ছাত্র সংসদ নির্বাচন নিয়ে ফের উত্তেজনা কোচবিহারে

ছাত্রী সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন না পেলেও হাইজ্যাক করে ছাত্রী সংসদ দখল করার অভিযোগ উঠল তৃনমূল ছাত্র পরিষদ এর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবারের এই ছাত্র সংসদ গঠনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় কোচবিহারের পঞ্চানন মহিলা মহাবিদ্যালয়ে। ডিএসও নেতৃত্বাধীন স্টুডেন্টস ফোরামের অভিযোগ তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ভোটে হেরে আমাদের ৬ ছাত্রীকে হাইজ্যাক করে প্রিন্সিপ্যাল এর সাহায্য নিয়ে ছাত্র সংসদ দখল করল। তাদের আরও অভিযোগ,দুই গোষ্ঠীকে আলাদা ঘরে বসিয়ে ছাত্র সংসদ গঠন করল। এটা বেআইনি। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে TMCP ।

কোচবিহার পঞ্চানন মহিলা মহাবিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে,গত ২০ জানুয়ারি কোচবিহার পঞ্চানন মহিলা মহাবিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ডিএসও নেতৃত্বাধীন স্টুডেন্টস ফোরাম  ১৮ টি এবং TMCP ১২ টা আসনে জয়ী হয়। মঙ্গলবার ছাত্র সংসদ গঠনের সময়  দুপক্ষকে আলাদাভাবে আলাদা ঘরে বসানো হয়। এরপর দেখা যায় TMCP  এর জয়ী প্রার্থীরা যে ঘরে বসানো হয়, সেখানে ১৭ জন রয়েছে। অপরদিকে,  DSOযেঘরে আছেন সেখানে ১২ জন রয়েছে।

এরপরে কলেজের তরফে TMCP এর আনোয়ারা পারভিনকে ছাত্র সংসদের সাধারন সম্পাদিকা ঘোষনা করা হয়। এরপর কলেজ চত্বরে উত্তেজনা ছড়ায়।  পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

DSO এর পক্ষে অনন্যা কার্যী জানান, আমাদের ৬ জন জয়ী সদস্যকে হাইজ্যাক করে নিয়ে গেছেন। পাশাপাশি আলাদা ঘরে বসিয়ে সংসদ গঠন করা হল যা বেআইনি। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কলেজ অধ্যক্ষা মঞ্জুরি বিশ্বাস। তিনি বলেন, যেদিকে বেশি সদস্য রয়েছে তাদের থেকেই সাধারন সম্পাদিকা নিয়োগ করা হয়েছে। তবে কেন আলাদা ঘরে বসানো হল এপ্রসঙ্গে কলেজ অধ্যক্ষা জানান, গত ২১ জানুয়ারি কলেজে দুপক্ষের মধ্যে গণ্ডগোল হয়েছিল। সেই গণ্ডগোল এড়াতেই এদিন দুপক্ষকে আলাদা ঘরে বসানো হয়েছে।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES