অনুমোদন ছাড়াই খাদি ক্যালেন্ডারে গান্ধিকে সরিয়ে চরকায় মোদি

Jan 16, 2017 03:19 PM IST | Updated on: Jan 16, 2017 03:19 PM IST

#নয়াদিল্লি: দেশজোড়া বিতর্কে নতুন ঘি ঢালল প্রধানমন্ত্রীর দফতর ৷ খাদি ক্যালেন্ডার ও ডায়েরিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চরকা চালানো ছবি দেখার পর সমালোচনার ঝড় ওঠে বিভিন্ন মহল থেকে ৷ জাতির জনক মহাত্মা গান্ধিকে সরিয়ে তাঁর জায়গা নিতে চাইছেন মোদি, আক্রমণ শানান বিরোধীরা ৷ কিন্তু এর কোনও তথ্যই নেই প্রধানমন্ত্রীর দফতরের কাছে ৷

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, খাদি গ্রাম শিল্প কমিশনের নতুন বছরের ক্যালেন্ডার ও ডায়েরিতে নরেন্দ্র মোদির ছবি কোনও অনুমোদন ছাড়াই ব্যবহার করা হয়েছে ৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তাঁর দফতরের কাছে এসবের কোনও তথ্যই ছিল না ৷

অনুমোদন ছাড়াই খাদি ক্যালেন্ডারে গান্ধিকে সরিয়ে চরকায় মোদি

গোটা দেশে খাদির ক্যালেন্ডারে মোদির ছবি আলোচ্য হয়ে ওঠায় বিষয়টি নজরে আসে PMO-র ৷ অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প মন্ত্রকের কাছে এই ঘটনা সম্পর্কে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর ৷

খাদি গ্রাম শিল্প কমিশনের চেয়ারম্যান বিনয়কুমার সাক্সেনা জানিয়েছেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে খাদির অগ্রগতিতে নরেন্দ্র মোদির অবদানকে সম্মান জানাতেই তাঁর ছবি ব্যবহার করা হয় খাদির ক্যালেন্ডার ও ডায়েরিতে ৷ তবে অনুমোদন নেওয়ার প্রশ্নে তাঁর প্রতিক্রিয়া, এর আগেও বহুবার খাদির ক্যালেন্ডার অনুমোদন ছাড়াই বিভিন্ন ব্যক্তির ছবি ব্যবহার করা হয়েছে ৷

মহাত্মা গান্ধিকে বাদ দিয়ে তাঁর জায়গা নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি ৷ গান্ধি নয়, চরকার পিছনে বসে এবার সুতো কাটছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী ৷ খাদি গ্রাম শিল্প কমিশনের নতুন বছরের ক্যালেন্ডার ও ডায়েরিতে চিরাচরিত মহাত্মা গান্ধির বদলে সেখানে চরকার পিছনে রয়েছেন ‘নমো’ ৷ এই ছবি নিয়েই তুঙ্গে ওঠে বিতর্ক ৷

কেভিআইসি ক্যালেন্ডার, বিজ্ঞাপন ও টেবিল ডায়েরিতে চিরকালই মহাত্মা গান্ধির চরকা কাটার ছবি দেখা গিয়েছে ৷ এবার সেই একই ভাবে খাটো ধুতির বদলে ওয়েস্ট কোট, পাজামা-কুর্তা পরে আধুনিক চরকায় মোদির সুতো কাটার ছবি ছাপিয়েছে কেভিআইসি ৷ কর্তৃপক্ষের এই পদক্ষেপে ক্রুদ্ধ খোদ সংস্থার কর্মীরাই ৷ অন্যদিকে, বিরোধী দলগুলিও মোদির এই পদক্ষেপকে আরও একবার স্বৈরাচারী বলে আখ্যা দেন ৷ তাদের বক্তব্য, এতে জাতির জনক গান্ধিজিকে চুড়ান্ত অপমান করেছেন নরেন্দ্র মোদি ৷

নরেন্দ্র মোদির নতুন অবতারের প্রতিবাদ জানিয়ে ট্যুইট করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ মহাত্মা গান্ধির ছবির জায়গায় নিজের ছবি ব্যবহার করায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রবল সমালোচনা করেন তিনি ৷ ট্যুইটে তিনি লেখেন, ‘গান্ধিজি জাতির জনক, মোদি কে?’

বিতর্কের প্রথম থেকেই বিজেপির দাবি ছিল, ‘প্রধানমন্ত্রী খাদির প্রচারক মাত্র ৷ মহাত্মার গান্ধির জায়গা কেউ নিতে পারে না ৷ এই নিয়ে অযথা রাজনীতি হচ্ছে ৷’

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES