হাইকোর্টে টেট প্রশ্ন বিভ্রাট মামলায় নয়া মোড়, নতুন করে অনেকেই পেতে পারেন চাকরির সুযোগ

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 21, 2017 07:19 PM IST
হাইকোর্টে টেট প্রশ্ন বিভ্রাট মামলায় নয়া মোড়, নতুন করে অনেকেই পেতে পারেন চাকরির সুযোগ
কলকাতা হাইকোর্টে টেট মামলা
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 21, 2017 07:19 PM IST

#কলকাতা: প্রাথমিক টেট ২০১৪ প্রশ্ন বিভ্রাট মামলায় প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানিয়ে রাজ্যকে হলফনামা দিতে নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের ৷ ২০১৪ সালে টেট পরীক্ষায় ১২ নম্বর প্রশ্নের সঠিক উত্তর কি হবে জানিয়ে রাজ্যকে হলফনামা দেওয়ার কথা জানালেন বিচারপতি অরিজিৎ‍ বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ প্রশ্ন’ নিয়ে খোঁজখবর শুরু করেছে পর্ষদও ৷

প্রাচ্যের বিশেষ্য কি? প্রাচ্যা না প্রাচী? শিক্ষাক্ষেত্রে সব থেকে কম গুরুত্বপূর্ণ কি শিক্ষক-শিক্ষিকারাই? প্রশ্নগুলো উঠল হাইকোর্টে। একটি-দুটি নয়, পাঁচ পাঁচটি প্রশ্ন। প্রাথমিক টেটের পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর নিয়ে প্রশ্ন তুলে হাইকোর্টে দায়ের হল মামলা।

২০১৪-র প্রাথমিক টেট নেওয়া হয় ১১-ই অক্টোবর ২০১৫। দেড়শো নম্বরের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য আড়াই ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়। এর মধ্যে পাঁচটি প্রশ্ন নিয়ে বিভ্রান্তি জোরাল হতে, জল গড়াল হাইকোর্ট পর্যন্ত। জয়ন্ত বাড়ুই-সহ একাধিক পরীক্ষার্থী হাইকোর্টে মামলা করেন। তাঁদের অভিযোগ, ওই পাঁচটি প্রশ্নে পর্ষদ যে উত্তর নির্দিষ্ট করে দিয়েছে তা সঠিক নয়। তিন নম্বর প্রশ্নে বলা হয়েছে,

- প্রাচ্য শব্দটির বিশেষ্য করলে কী হয়?

পর্ষদের উত্তরমালা বলছে সঠিক উত্তর ডি অর্থাৎ প্রাচ্যা। কিন্তু মামলাকারীদের দাবি, সঠিক উত্তর হল প্রাচী।

চার নম্বর প্রশ্নে বলা হয়েছে,

নিম্নলিখিত সমার্থক শব্দগুচ্ছগুলির মধ্যে কোনটি অশুদ্ধ?

পর্ষদের দাবি বি অর্থাৎ দিবাকর, বিবস্বান, বিভাবসু, তরণী সঠিক। কিন্তু মামলাকারীদের দাবি, এ অর্থাৎ অর্যমা, তমোনাশ, উদধি, পূষণ সঠিক।

২৩ নম্বর প্রশ্নে বলা হয়েছে,

দুঃসাহসিক শব্দটিকে বর্ণবিশ্লেষণ করলে পাওয়া যায়

পর্ষদের দাবি সি সঠিক উত্তর। কিন্তু মামলাকারীদের দাবি কোনওটিই সঠিক উত্তর নয়।

সেরকমই ২৫ নম্বর প্রশ্নে বলা হয়েছে,

নিম্নলিখিত সমার্থক শব্দগুচ্ছের মধ্যে কোনটি শুদ্ধ?

পর্ষদের দাবি, রসায়ন, রামায়ন, উত্তরায়ণ ও মূল্যায়ন হল সঠিক উত্তর। কিন্তু মামলাকারীদের দাবি, সঠিক উত্তর এ, অর্থাৎ পূর্বাহ্ন, অপরাহ্ন, সায়াহ্ন, মধ্যাহ্ন।

৬৫ নম্বর প্রশ্নে বলা হয়েছে,

নিচের কোনটি শিক্ষন প্রক্রিয়ার সঙ্গে সব থেকে কম গুরুত্বপূর্ণ?

পর্ষদের দাবি, সঠিক উত্তর বি অর্থাৎ শিক্ষক-শিক্ষিকা। কিন্তু মামলাকারীদের দাবি সঠিক উত্তর হল এ অর্থাৎ পাঠ্যক্রম।

কুড়ি লক্ষাধিক পরীক্ষার্থীর মধ্যে ইতিমধ্যেই কুড়ি হাজার শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়োগ হয়েছে। এখন এই পাঁচটি প্রশ্ন মামলাকাদীদের দাবি মত সঠিক হলে পাঁচ নম্বর পেয়ে যাবেন তাঁরা। যা আমূল বদলে দিতে পারে প্রাথমিক শিক্ষকের নিয়োগ তালিকা।

এই প্রথম নয়। ২০১২ সালেও একই ঘটনা ঘটে। সেসময় ম্যালেরিয়া রোগের বাহক যে মশা তা রোনাল্ড রস কোথায় বসে আবিস্কার করেন? এই প্রশ্নে পর্ষদের দাবি ছিল সঠিক উত্তর হল সেকেন্দ্রাবাদ। হাইকোর্টের নির্দেশে ন্যাশনাল লাইব্রেরি রিপোর্টে জানা যায়, সঠিক উত্তর কলকাতা। সেসময় সাড়ে তিনশো পরীক্ষার্থীর এক নম্বর বাড়ে। চাকরিও পান তাঁরা। এবার একটি নয়। পাঁচটি প্রশ্ন নিয়ে বিভ্রান্তি। এবারও যদি হাইকোর্টে মামলকারীদের জয় হয়, সেক্ষেত্রে নতুন করে সুযোগ পেতে পারেন অনেকেই। হাইকোর্টের মামলাকারীদের জয় হলে সেক্ষেত্রে এবারও অস্বস্তিতে পড়তে পারে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

First published: 07:17:18 PM Sep 21, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर