গাড়িতে বসে স্তন্য পান করাচ্ছিলেন মা, মহিলা ও ৭ মাসের শিশু সহ গাড়িকে টেনে নিয়ে গেল পুলিশ

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 12, 2017 03:12 PM IST
গাড়িতে বসে স্তন্য পান করাচ্ছিলেন মা, মহিলা ও ৭ মাসের শিশু সহ গাড়িকে টেনে নিয়ে গেল পুলিশ
Mumbai Cop Tows Car With Woman Breastfeeding 7-month-old Baby Inside
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 12, 2017 03:12 PM IST

 #মুম্বই: অমানবিক উর্দিধারী। নো পার্কিং জোনে গাড়ি দাঁড় করিয়ে শিশুকে স্তন্যপান করানোয় বাজেয়াপ্ত করা হল গাড়ি। ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বইয়ের মালাডে। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই শুরু হয় হইচই।

নো পার্কিংয়ে বেআইনিভাবে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়িকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে ট্রাফিক পুলিশ। এমন ঘটনা নতুন কিছু নয়। কিন্তু, মুম্বইয়ে মালাডে ঘটে গেল অন্য ঘটনা।

কোলে খিদেয় কাঁদছে সাত মাসের শিশু। নো পার্কিং জোন হলেও সেখানেই গাড়ি দাঁড় করিয়ে শিশুকে স্তন্যপান করানো শুরু করেন মহিলা। আচমকাই সেখানে হাজির ট্রাফিক পুলিশ। তারপরই, ট্রাফিক পুলিশের কর্ত্যব্যপরায়ণতার ভিন্ন নজির দেখল গোটা দেশ।

মহিলার গাড়িটি তুলে নিয়ে যায় ট্রাফিক পুলিশ শশাঙ্ক রানে। সেসময় গাড়ির ভিতরেই ছিলেন মহিলা ও তাঁর সাত মাসের শিশুও। সম্পূর্ণ ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করেছেন স্থানীয় এক যুবক। কেন পুলিশের এমন বেনজির পদক্ষেপ? বারবার প্রশ্ন করেও অবশ্য উত্তর মেলেনি। হেলদোল দেখাননি অভিযুক্ত ট্রাফিক পুলিশ শশাঙ্ক রানেও। বরং, ফোনে কথা বলতেই ব্যস্ত ছিলেন তিনি।

মহিলার অভিযোগ, তাঁর গাড়ির সামনে আরও দু'টি গাড়ি বেআইনিভাবে দাঁড়িয়ে ছিল। অথচ সেই গাড়িগুলিকে ছাড় দেওয়া হয়। শুধুমাত্র মহিলার গাড়িই তুলে নিয়ে যায় ট্রাফিক পুলিশ।

এই ভিডিও প্রকাশ হতেই তৎপর হয় মুম্বই পুলিশ। অভিযুক্ত ট্রাফিক কনস্টেবল শশাঙ্ক রানেকে সাসপেন্ড করে বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করেছে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন, রেখা শর্মা। তবে শিশুর কথা ভেবে ওই মহিলার যে আরও সতর্ক থাকা উচিত ছিল, তাও মনে করেন রেখা শর্মা।

অভিযুক্ত কনস্টেবল শশাঙ্ক রানেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। শুরু হয়েছে তদন্তও। কিন্তু, উর্দিধারীর এমন অমানবিক ব্যবহার দেখে শিউরে উঠছে গোটা দেশ।

First published: 01:59:12 PM Nov 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर