মধ্যরাতে GST উৎসব বয়কটে একজোট বিরোধীরা

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 30, 2017 07:48 PM IST
মধ্যরাতে GST উৎসব বয়কটে একজোট বিরোধীরা
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 30, 2017 07:48 PM IST

#নয়াদিল্লি: ১৯৪৭ সালের পর ২০১৭। ৭০ বছর পর আবারও সংসদে মধ্যরাতের অধিবেশন। মধ্যরাতের অধিবেশনের মাধ্যমে চালু হচ্ছে অভিন্ন কর ব্যবস্থা। মোদি পরিকল্পনায় নিখুঁত পরিকল্পনায় কাঁটা এখন স্রেফ বিরোধীরা। অধিবেশন বয়কট করছে কংগ্রেস সহ প্রথম সারির বেশিরভাগ বিরোধী দল। রাজনৈতিক লাভ- ক্ষতি মাথায় রেখেছে ঘুঁটি সাজানো হচ্ছে। অধিবেশনে থাকা বা না থাকা নিয়েও চলছে দর-কষাকষি।

মধ্যরাতে জিএসটি অধিবেশনে নেই কংগ্রেস। বয়কটে ত়ৃণমূল কংগ্রেস, আরজেডি, বাম দলগুলিও। শেষ মুহুর্তে অধিবেশনে যোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত ডিএমকে-র। অধিবেশনে যোগ দেওয়া বা না দেওয়া - সবকিছুর পিছনে কাজ করছে নির্দিষ্ট অঙ্ক। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়েই এই ঘুঁটি সাজানো।

মত বদল কংগ্রেসেরের। অসহিষ্ণুতা, কৃষক আত্মহত্যার মতো ইস্যুতেই অনুষ্ঠান বয়কটের কথা জানিয়েছিল কংগ্রেস। একদিনের মধ্যেই বদলে গেল বয়কটের ইস্যু। নতুন অভিযোগে অনুষ্ঠান বয়কটের পক্ষে সওয়াল।

কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, আরজেডি, বাম, আরএলডি - বয়কটের তালিকাটা বেশ লম্বা। তবে বিরোধী হয়েও অধিবেশনে হাজির হচ্ছে, এমন উদাহরণও থাকছে।

অধিবেশনে বিরোধী যোগ

জেডিইউ

সমাজবাদী পার্টি

এনসিপি

বিজেডি

নীতীশকুমার নিজে থাকছেন না। পাঠাচ্ছেন অর্থমন্ত্রীকে। যাব না - যাব না করেও শেষ মুহুর্তে যাওয়ার সিদ্ধান্ত এনসিপির। অধিবেশনে যোগ দিতে পারে এআইএডিএমকে’ও। এই সিদ্ধান্তের পিছনে রয়েছে রাজনৈতিক কৌশল। উঠে আসছে বেশ কিছু সম্ভাবনা।

-বিজেপির সঙ্গে জোটের সম্ভাবনা খোলা রাখতে চান নীতাশকুমার

-কংগ্রেসের সঙ্গে জোট মুখ থুবড়ে পড়ায় কোণঠাসা সমাজবাদী পার্টি

-এখনই প্রবল বিজেপি বিরোধিতার পথে হাঁটতে চাইছেন না মুলায়ম - অখিলেশ

-মহারাষ্ট্রেও প্রবল চাপে রয়েছে এনসিপি

-দুর্নীতির মামলা সহ একাধিক কারণে বিজেপির সঙ্গে সু-সম্পর্ক রেখে চলার পক্ষপাতী দল

অরুণ জেটলি যতই রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে জিএসটি অধিবেশনের দাবি করুন, তা ধোপে টিকছে না। বরং নিজেদের মত করেই এই অধিবেশন থেকে রাজনৈতিক ফয়দা তোলার চেষ্টা বিজেপি সহ সব দলের। রাজনীতির আঁচ নিয়েই তাই মধ্যরাতে জিএসটি অধিবেশন।

First published: 07:48:03 PM Jun 30, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर