কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 16, 2017 09:51 AM IST
কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 16, 2017 09:51 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ সোমবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

জয়প্রকাশকে এ বার ‘প্রভাবশালী’ তকমা দিলেন সরকারি কৌঁসুলি

প্রতারণার অভিযোগে ধৃত বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারকে ‘প্রভাবশালী’ বলে চিহ্নিত করলেন সরকারি কৌঁসুলি। সারদা থেকে রোজ ভ্যালি— গত দু’বছরে একের পর এক দুর্নীতি মামলায় তৃণমূলের একাধিক শীর্ষ নেতার জামিনের বিরোধিতা করতে গিয়ে আদালতে বারেবারে এই ‘প্রভাবশালী’ তত্ত্বই তুলে ধরেছে সিবিআই। এ দিন সরকারি কৌঁসুলি  সাবির আলি বিজেপি-র রাজ্য সহ-সভাপতিকে ‘প্রভাবশালী’ বলায় স্বাভাবিক ভাবেই বিষয়টি নতুন মোড় নিয়েছে।

গঙ্গাসাগরে তিন মৃত্যু নিয়েও ঠোকাঠুকি তুঙ্গে

সাগর থেকে ফেরার পথে কচুবেড়িয়ায় মারা গেলেন তিন পুণ্যার্থী। আর সেই নিয়ে নতুন করে দ্বন্দ্ব তৈরি হল কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের মধ্যে। মকর সংক্রান্তির স্নান হয়ে গিয়েছিল শনিবারেই। রাতটা মেলায় কাটিয়ে এ দিন ঘরে ফেরার পথে অনেকেই অপেক্ষা করছিলেন কচুবেড়িয়ার জেটি ঘাটে। ৪ এবং ৫ নম্বর জেটিতে ভিড় ছিল অন্যগুলির থেকে বেশি। জোয়ার না হলে মুড়িগঙ্গায় ভেসেল চলে না। পুণ্যার্থীরা দীর্ঘক্ষণ জোয়ারের জন্য অপেক্ষা করে দাঁড়িয়ে ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ভেসেল আসার পরে হুড়োহুড়ি শুরু হয়। তখন ধাক্কাধাক্কিতে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিন জন। পরে তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

বাকি সম্পদও খোয়াচ্ছে রোজ ভ্যালি

শুরু হয়েছে সাঁড়াশি আক্রমণ। রোজ ভ্যালি তদন্তে গতি বাড়িয়ে সিবিআই গত ২০ দিনের মধ্যে পর পর দুই সাংসদকে গ্রেফতার করেছে। রোজ ভ্যালি কর্তা গৌতম কুণ্ডুকে ভুবনেশ্বরে নিয়ে যাওয়ার জন্য আদালতে আর্জিও জানিয়েছে তারা। পাশাপাশি নড়েচড়ে বসেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-ও। আপাতত তাদের কাজ রোজ ভ্যালির বিভিন্ন সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা। গত কয়েক মাসে ১২৫০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি তারা হাত বাড়াচ্ছে রোজ ভ্যালির ১০টি হোটেল ও রিসর্টের দিকে। এ ছাড়া রয়েছে একটি বিনোদন পার্কও।

বাজেটে কাজের সুযোগ বাড়াতে জেটলিকে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নতুন চাকরির সুযোগ তৈরি করতে হবে, সেদিকেই নজর দিন-বাজেটের অভিমুখ ঠিক করে দিয়ে অরুণ জেটলিকে এমনই পরামর্শ দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। না দিয়ে উপায়ই বা কী! প্রধানমন্ত্রীর গদিতে বসার আগে মোদীর প্রচারের মন্ত্র ছিল, ক্ষমতায় এলে প্রতি বছর নতুন ১ কোটি চাকরির সুযোগ তৈরি করবেন। বাস্তবে তা হয়নি। মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা-এর মতো মোদীর নোট বাতিলের ধাক্কায় আরও মানুষ রোজগার হারিয়েছেন।

bartaman_big11

পাঁচতারা হোটেলে তৃণমূল নেতাদের অনুষ্ঠানের খরচ জোগাতেন গৌতম

রোজভ্যালিকর্তার নামে বিভিন্ন সময়ে কলকাতার বেশ কয়েকটি পাঁচতারা হোটেলের ঘর বুকিং করা হয়েছে। কোম্পানির অ্যাকাউন্ট থেকে তার বিলও মিটিয়েছেন ওই চিটফান্ড সংস্থার কর্ণধার গৌতম কুণ্ডু। গোড়ায় সিবিআই কর্তারা ভেবেছিলেন, আমানতকারীদের গচ্ছিত রাখা অর্থ ঘুরপথে বাইরে আনতে নতুন এই কৌশল নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আরও গভীরে গিয়ে তদন্তকারী অফিসাররা জানতে পেরেছেন, কাগজে-কলমে রোজভ্যালির নাম থাকলেও তার সুবিধা নিয়েছেন শাসক দলের কয়েকজন প্রভাবশালী। রোজভ্যালির টাকাতেই তাঁরা হোটেলে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করেছেন বলে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার বক্তব্য। এইভাবে তাঁদের অনুষ্ঠানেরই খরচ জুগিয়েছেন রোজভ্যালিকর্তা। এছাড়াও এই হোটেলগুলিতে রোজভ্যালিকর্তার সঙ্গে একাধিকবার গোপন বৈঠকও করেছেন শাসক দলের কয়েকজন দাপুটে নেতা। এবার সেই সংক্রান্ত ফুটেজ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার কর্তাদের হাতে এসেছে বলে খবর। শাসক দলের নেতারা যে রোজভ্যালির বুকিং করা হোটেলে বৈঠক করছেন, সেই ফুটেজ এবং উদ্ধার হওয়া বিভিন্ন নথি তার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ তথ্যপ্রমাণ বলেই সিবিআই কর্তাদের দাবি।

বিপদ বুঝেই প্রভাবশালীদের দরজায় ঘুরছেন সেই নায়িকা

সিবিআই শীঘ্রই কড়া নাড়বে তাঁর দরজায়! এই খবর পেয়েই ঘুম ছুটেছে টলিউডের প্রথম সারির ওই নায়িকার। রোজভ্যালিকাণ্ডে টলিউডের ওই নায়িকাকে নিয়ে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। সিবিআই কর্তারা এখনও নাম না বললেও ওই  নায়িকা কিন্তু বূঝে গিয়েছেন, এবার তাঁর পালা। পিঠ বাঁচাতে তাই এবার প্রভাবশালীদের দরজায় দরজায় লোক পাঠাচ্ছেন তিনি। রাজনৈতিক মহলে প্রভাব খাটিয়ে কীভাবে এই গেরো থেকে বেরনো যায়, তার জন্য চেষ্টার কসুর করছেন না। রীতিমতো স্নায়ুযুদ্ধ শুরু হয়েছে দু’পক্ষের। অন্যদিকে, সিবিআইয়ের দাবি, ওই নায়িকার বিষয়ে তারা এখনও খোঁজখবর চালাচ্ছে। প্রমাণ জোগাড়ের কাজ চলছে। তবে এখনও পর্যন্ত তারা যা জেনেছে, তা তাঁকে ডাকার পক্ষে যথেষ্ট। গৌতম কুণ্ডুর কাছ থেকে আগাম লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে অনুষ্ঠান না হলেও তা ফেরত না দেওয়া, রোজভ্যালির চ্যানেলে বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের জন্য স্লট কিনতে গৌতম কুণ্ডুর কালো টাকা ঘুরপথে অ্যাকাউন্টে ফেরানো থেকে শুরু করে নানা কাণ্ডকারখানা তাদের এখন নখদপর্ণে।

মোদির কথায় কালো টাকা ঘোষণার পর কর মেটানোয় জটিলতা, চিঠি জেটলিকে

যাকে বলে একেবারে সাড়ে সর্বনাশ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কালো টাকার কারবারিদের বলেছিলেন, যত টাকা বেআইনি পথে কামিয়েছেন, সব জমা করুন চুপিচুপি। বেশি পেনাল্টি নেব না। সিবিআই বা আয়করের দুঁদে অফিসারের ফোঁসফোঁসানি থেকে বাঁচুন। আর বাড়ি গিয়ে ফুরফুরে মেজাজে ঘুমান। মোদির কথায় মন গলে গিয়েছিল অনেক কালো টাকার কারবারির। তাঁরা সরল মনে সরকারের কানে কানে জানিয়ে এসেছিলেন কালো টাকার অঙ্ক। আর তাতেই হয়েছে সর্বনাশ। নোট বাতিলের ঘোষণায় ফেঁসে গিয়েছেন তাঁরা। মোদি বলেছেন, কালো টাকার পেনাল্টির বেশিরভাগটাই দিতে হবে চলতি বছরে মার্চ এবং সেপ্টেম্বর মাসে। এদিকে, যে পাঁচশো ও হাজার টাকার নোটে জমা ছিল কালো টাকা, সেসব তো আগেই বাতিল করে দিয়েছে আরবিআই। এখন কোটি কোটি টাকার পেনাল্টি তাঁরা কীভাবে মেটাবেন, তার কুলকিনারা করতে রাতের ঘুম ছুটেছে। বণিকসভার মাধ্যমে তাঁরা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির কাছে জানতে চেয়েছেন, এখন আমরা কী করব? বুঝিয়েছেন, যে টাকা জমা করে রাতে নিশ্চিন্ত ঘুমের দাওয়াই দিয়েছিলেন মোদি, সেই কালো টাকাই তো এখন ঘোর কালো দুঃস্বপ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে তাঁদের কাছে।

পুণ্য সঞ্চয় করে ঘরমুখো মানুষ

পুণ্যস্নানের প্রহর শেষ হয়েছে রবিবার সকালেই। গঙ্গাসাগরে চলছে ভাঙামেলার বিকিকিনি আর বাড়িমুখো মানুষের ব্যস্ততা। বিদায়বেলার বিষণ্ণতার সুর গ্রাস করেছে মেলা চত্বরকে। বেলা যত বেড়েছে, মেলার প্রবেশপথ ক্রমে ফাঁকা হয়েছে। আর গত তিন-চারদিনে প্রবেশপথের সেই ভিড় যেন সরে গিয়েছে প্রস্থানের পথে। সেখান দিয়ে হুড়মুড়িয়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন মানুষ। জনস্রোত এখন উলটোমুখী। পার্থক্য শুধু এখানেই যে তখন সবার চোখেমুখে ছিল কৌতূহল আর উৎসাহ। এখন তাঁদের চোখেমুখে তৃপ্তির ছাপ, সন্তুষ্টির শান্তি। কিন্তু, সেই তৃপ্তিতে কাঁটা হয়ে বিঁধে থাকল ঘরমুখী মানুষের পদপিষ্ট হওয়ার ঘটনা। যাঁরা শনিবার অনেক রাতে পৌঁছেছেন মেলায়, তাঁরা এদিন ভোর হতেই জলে ডুব দিয়েছেন। কোনওরকমে পুজো দিয়ে বাড়ির পথ ধরতে বাধ্য হয়েছেন। ভিনরাজ্যের পুণ্যার্থীদের এই দলগুলির বেশিরভাগই শনিবারের দুপুরের মধ্যে মেলায় ঢুকে পড়ার পরিকল্পনা করেও পথের বিড়ম্বনায় পিছিয়ে পড়েছিলেন। তা বলে তো পুণ্যস্নান না করেই চলে যাওয়া চলে না!

ei samay

জমি-গেরোয় আরও ২ সাবস্টেশন

রাজ্য বিদ্যুৎবন্টন সংস্থার সাব স্টেশনের জন্য দরকার দশ থেকে বারো কাঠা জমি ৷ ভাঙড়ের মত কৃষি প্রধান এলাকায় সেই জমির অভাবে চার বছর ধরে তৈরি করা গেল না দু’দুটি সাবস্টেশন ৷ তাই ঘন ঘন লোডশেডিং, সন্ধ্যে নামলেই লো ভোল্টেজের সমস্যাও দূর হয়নি ৷

গ্রেফতার হতে পারি, আশঙ্কা দিলীপের

খড়গপুরের মাফিয়া ডন শ্রীনু নাইডু খুনের ঘটনায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে তৃণমূল ৷ এখন শ্রীনুর পরিবারও সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে না দেওয়ায় তিনি গ্রেফতার তে পারেন বলে আশহ্কা করছেন দিলীপ ৷

প্রমান পেতে জয়প্রকাশে হেফাজতেই নিলো পুলিশ

গ্রেফতারির বদলে গ্রেফতারির রাজনীতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল ২৪ ঘণ্টা আগেই ৷ সে প্রশ্নই আও জোরালো হল বিধাননগর কমিশনারেট রবিবার বিজেপি রাজ্য সহ-সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদারকে আদালতে পেশ করার পর ৷

সাহরে মৃত ৬, ‘পিষ্ঠ’ তত্বে ক্ষুব্ধ রাজ্য

মৃত্যু নিয়ে রাজনৈতিক তরজা ৷ রবিবার সঙ্গমে মকর সংক্রান্তির স্নান সেরে বাড়ি ফেরার পথে ভিড়ের চাপে মারা গেলেন ছয় পুণ্যার্থী ৷ কচুবেড়িয়া পাঁচ নম্বর জেটির কাছে এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে ৷

First published: 09:51:26 AM Jan 16, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर