মোদির আমন্ত্রণে দিল্লিতে মমতা, অপেক্ষা হাসিনা ও মমতা সাক্ষাতের

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 08, 2017 10:35 AM IST
মোদির আমন্ত্রণে দিল্লিতে মমতা, অপেক্ষা হাসিনা ও মমতা সাক্ষাতের
ফাইল চিত্র
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Apr 08, 2017 10:35 AM IST

#নয়াদিল্লি: রাজনৈতিক মিছিলের নামে অস্ত্র নিয়ে ঘুরলে আইনি ব্যবস্থা নেবে রাজ্য। অস্ত্র হাতে বিজেপির মিছিল নিয়ে আরও একবার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর। আসানসোলের জনসভায় বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়ালেও এদিনই প্রধানমন্ত্রীর ডাকে দিল্লি গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার কথা তাঁর। রাজনীতি আর সাংবিধানিক দায়িত্ব যে আলাদা, মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরে যেন তারই বার্তা।

চার দিনের ভারত সফরে শুক্রবার সকালে রাজধানী দিল্লিতে এসে পৌঁছলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৷ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাতে প্রোটোকল ভেঙে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷

শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী। বেলা ১১.৩০-এ হায়দরাবাদ হাউসে হবে নরেন্দ্র মোদি ও শেখ হাসিনার দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ৷ বৈঠক শেষে হাসিনার সম্মানে মধ্যাহ্নভোজ ৷ উপস্থিত থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

হাসিনার সফর উপলক্ষে দিল্লিতে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। আনুষ্ঠানিক সূচি না থাকলেও, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মুখোমুখি বসতে আগ্রহী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। ঘরোয়া আলোচনায় তিস্তা-জট কাটাতেই, মমতার সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান হাসিনা।

হাসিনার ভারত সফর

- হাসিনার চলতি সফরে প্রায় ৩৫টি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও মউ সই হওয়ার কথা

- তবে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাবে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা

- এই চুক্তির ফলে ঢাকাকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম বিক্রি করতে পারবে নয়াদিল্লি

- সেনাবাহিনীর মধ্যে পারস্পরিক কর্মী আদানপ্রদান ও প্রশিক্ষণও বাড়বে

- একইসঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগ ও জ্বালানি ক্ষেত্রেও চুক্তি সই করবে ভারত-বাংলাদেশ

- চুক্তি হবে অসামরিক পরমাণু সহযোগিতা ও তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রেও

আরও পড়ুন

ভারত সফরে শেখ হাসিনা, সরকারি আলোচ্যসূচিতে থাকছে না ‘তিস্তা’

শেষবার এসেছিলেন ২০১০ সালে। মাঝে বেশ কয়েকবার দিল্লির মাটিতে পা রাখলেও, কোনওটাই দ্বিপাক্ষিক সফর ছিল না। সেই হিসেবে প্রায় সাত বছর পর, দ্বিপাক্ষিক সফরে ভারতে এলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চারদিনের সফরে শুক্রবারই দিল্লি পৌঁছন তিনি। প্রোটোকল ভেঙে বিমানবন্দরে হাসিনাকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

শুক্রবার বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী-বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে একাধিক দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক বিষয়ে আলোচনা হয়। শুক্রবার সন্ধেয় বাংলাদেশ হাইকমিশনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন হাসিনা। সেখানেই ওঠে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গ।

মমতা-হাসিনা আলোচনার সম্ভাবনা

- প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে দিল্লিতে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

- আনুষ্ঠানিক সূচি না থাকলেও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মুখোমুখি বসতে আগ্রহী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী

- ঘরোয়া আলোচনায় তিস্তা-জট ছাড়াতেই মমতার সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান হাসিনা

ভারত সফরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর শনিবারের অনুষ্ঠান সূচি

-আজ সকাল ৯ টায় রাষ্ট্রপতি ভবনে আমন্ত্রণ

-রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা দেওয়া হল

- উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও

-সকাল সাড়ে ৯টায় রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধির সমাধিতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন হাসিনার

-সাড়ে ১১টায় হায়দরাবাদ হাউসে মোদি- হাসিনা বৈঠক

-দুপুর ১২টায় প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা

-সাড়ে ১২টায় হায়দরাবাদ হাউসে দু‘দেশের চুক্তি বিনিময়

হবে চুক্তি বিনিময়

-সাড়ে ৩টে মুক্তি যুদ্ধে শহিদ ভাতীয়দের সম্মান

-জোরাওয়ার হলে হবে সম্মান প্রদর্শন অনুষ্ঠান

-মৌলানা আজাদ রোডে সন্ধ্যা ৬টায় উপ রাষ্ট্রপতি ডাকা বৈঠকে হাসিনা

শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারপর হাসিনার সম্মানে আয়োজিত মধ্যাহ্নভোজ। রাতে হাসিনা-মমতা আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে বলে রাজনৈতিক মহল সূত্রে খবর। সেই আলোচনাতে তিস্তার জল গড়ায় কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে দিল্লি-কলকাতা এবং ঢাকা।

First published: 08:36:36 AM Apr 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर