পয়লা এপ্রিল থেকে রাস্তায় বাইক চালাতে হলে মানতে হবে এই নিয়ম

Mar 31, 2017 04:27 PM IST | Updated on: Mar 31, 2017 04:28 PM IST

#নয়াদিল্লি: দিনের বেলা হেডলাইট জ্বালিয়ে চালাতে হবে টু হুইলার। পথে নামতে পথ দুর্ঘটনা কমাতে চলতি বছরের পয়লা এপ্রিল অর্থাৎ শুক্রবার থেকেই এদেশে দু চাকা গাড়ির ক্ষেত্রে চালু হতে চলেছে অটো হেডলাইট অন বা এ এইচ ও। এমন ট্রাফিক আইন অবশ্য নতুন নয়। ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা ইওরোপের গাড়িমালিকরা এই নিয়মে অভ্যস্ত।

বাইক স্টার্ট করলেই এবার থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই জ্বলে উঠবে হেডলাইট। দেশের শীর্ষ আদালতের নিযুক্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী সমস্ত নতুন মোটরবাইকে থাকছে অটো হেডল্যাম্প অন ফিচার। সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশ মেনে গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি মোটরবাইকে আর হেডলাইট অন-অফ স্যুইচ-ই রাখছে না। কিন্তু, কেন হঠাৎ এই পদক্ষেপ?

পয়লা এপ্রিল থেকে রাস্তায় বাইক চালাতে হলে মানতে হবে এই নিয়ম

কেন প্রয়োজন অটো হেডলাইট অন (AHO)?

- দুর্ঘটনা কমাতেই এ এইচ ও-র ব্যবহার

- এ এইচ ও প্রযুক্তির ব্যবহারে পথ নিরাপত্তা বাড়বে

- অনেকটাই নিরাপদে থাকবেন গাড়িচালকরা

পথ দুর্ঘটনার সংখ্যায় বিশ্বে শীর্ষে থাকা দেশগুলির মধ্যে রয়েছে ভারত।

কেন আবশ্যিক এ এইচ ও?

- ভারতে পথ দুর্ঘটনার সংখ্যা মাত্রাতিরিক্ত

- মাত্রাতিরিক্ত ভাবে বেড়েছে বাইক দুর্ঘটনার সংখ্যা

- পথ নিরাপত্তার খামতি আছে

- ট্রাফিক আইন নিয়ে সচেতনতাও কম

- এ এইচ ও-র ফলে রাস্তায় চলা গাড়ির অস্তিত্ব টের পাওয়া যাবে

- হেড অন কলিশনের সম্ভাবনা কমবে

ইতিমধ্যেই ভারতে বেশ কিছু মোটরবাইক প্রস্তুতকারক সংস্থা তাদের মডেলে এটো হেডলাইট অন প্রযুক্তি চালু করে দিয়েছে। সুপ্রিম নির্দেশ মেনে বাকিরাও খুব শীঘ্রই বাকিরাও সে পথে হাঁটবে বলেই আশা। তবে, ইতিমধ্যেই বিক্রিত মোটরবাইকগুলির ক্ষেত্রে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES