‘‘মোর্চা চাইলে ১০-১২ দিনের মধ্যে বৈঠক হবে’’.....পাহাড়ে শান্তির বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

Jul 08, 2017 04:31 PM IST | Updated on: Jul 08, 2017 04:31 PM IST

#দার্জিলিং: পাহাড়ে মোর্চার আন্দোলন গত কয়েকদিন বেশ ঝিমিয়ে পড়েছিল ৷ কিন্তু শনিবার এক জিএনএলএফ সমর্থকের মৃত্যুকে ঘিরে ফের অশান্ত হয়ে উঠল পাহাড় ৷  এই ঘটনার জেরে ফের হিংসার পথে ফিরল মোর্চাও ৷ সোনাদা থানায় আগুন ধরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি আগুন লাগানো হয়ে ট্রাফিক কিয়স্কেও ৷ ভাঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়িও ৷

দিনের পর দিন পাহাড়ে উত্তেজনা বেড়েই চলায় উদ্বিগ্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷  এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে পাহাড়ের উদ্দেশ্যে শান্তির বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘মোর্চা চাইলে ১০-১২ দিনের মধ্যেই বৈঠক হবে ৷ অশান্তির পথ ছাড়লে তবেই আলোচনা ৷ আজকের সোনাদাকাণ্ডে তদন্ত হবে ৷ আইন মেনেই দোষীদের শাস্তি হবে ৷ বনধ প্রত্যাহার করুন ৷ পাহাড়ের স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনুন ৷ স্কুল, কলেজ, দোকান-বাজার খুলতে দিন ৷ মোর্চা নেতারা খাবার জোগাড় করে নিচ্ছেন ৷ কিন্তু ভুগতে হচ্ছে পাহাড়ের আমজনতাকে ৷’’

‘‘মোর্চা চাইলে ১০-১২ দিনের মধ্যে বৈঠক হবে’’.....পাহাড়ে শান্তির বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

PTI File Photo

পাহাড়ে দিল্লির নেতাদের মদত আছে বলেও এদিন অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘ বিজেপি-র প্ররোচনায় সীমান্তে উত্তেজনা ছড়াচ্ছে ৷ অশান্তিতে সরাসরি ইন্ধন বিজেপি-র ৷ অশান্তিতে বিদেশি শক্তির হাত আছে ৷ কেন্দ্রীয় সরকার অসহযোগিতা করছে ৷ ১ মাস ধরে অসহযোগিতা করছে কেন্দ্র ৷ ফেসবুকের নামে ‘ফেকবুক’ চলছে ৷ বাংলার সীমান্ত অশান্ত করার চেষ্টা চলছে ৷ অনেকবার চাওয়া সত্ত্বেও CRPF পাওয়া যায়নি ৷ সময়মতো CRPF পেলে অবস্থা সামলানো যেত ৷ দার্জিলিঙের ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত ৷ একাধিক কেন্দ্রীয় সংস্থা এতে নাক গলাচ্ছে ৷ প্রতিবাদ করলেই সিবিআই দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছে ৷ ’’

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES