কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Feb 15, 2017 09:58 AM IST
কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Feb 15, 2017 09:58 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বুধবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

কুর্সি নয় কারাবাস, শশীর স্বপ্নে জল ঢাললেন দুই বাঙালি

দুই বাঙালির কলমেই আপাতত শেষ শশিকলার ৪৫ দিনের রাজনৈতিক জীবন। বিচারপতি পিনাকীচন্দ্র ঘোষ এবং বিচারপতি অমিতাভ রায়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় দুই বিচারপতি যখন সুপ্রিম কোর্টের ভিড়ে ঠাসা ছয় নম্বর এজলাসে ঢুকলেন, তখন ঘরে পিন পতনের নীরবতা। ৫৭০ পৃষ্ঠার রায়ের আসল অংশটা পড়তে সময় লাগল আট মিনিট। মুখ্যমন্ত্রীর গদিতে বসার স্বপ্ন দেখা শশিকলাকে জেলে পাঠানোর রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট।

অস্তশশীর কুশলী চালে আপাতত পিছিয়ে পনীর

ইয়ার আরত্তা মুদাল আমাইচার? পরের মুখ্যমন্ত্রী কে! শুধু তামিল রাজনীতি নয়, আপাতত এই একটি প্রশ্নকে ঘিরে তোলপাড় জাতীয় রাজনীতিও। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আজ দোষী সাব্যস্ত হতেই মুখ্যমন্ত্রিত্বের দৌড় থেকেই ছিটকে যান শশিকলা। ওই রায়ের দৌলতে প্রতিদ্বন্দ্বী পনীরসেলভম শুরুতে এগিয়ে গেলেও, রায় ঘোষণার আড়াই ঘণ্টার মধ্যেই চার বারের বিধায়ক ও সড়কমন্ত্রী ই কে পালানিসামিকে বিধায়ক দলের নেতা হিসাবে নির্বাচিত করে পাল্টা চাল দেয় শশী শিবির। শুধু তাই নয়, বিকাল পাঁচটায় রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাওয়ের সঙ্গে দেখা করে, সরকার গড়ার দাবি জানিয়ে ১৩৪ জন বিধায়কের স্বাক্ষর করা চিঠিও জমা দিয়ে আসেন পালানিসামি। শশিকলা দ্রুত বিকল্প রাস্তা ধরায় প্যাঁচে পড়ে যায় পনীর শিবির। বিধায়কদের সমর্থন আদায়ে পিছিয়ে থেকেও, সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ সরকার গড়ার দাবি জানিয়ে রাজ্যপালের কাছে যান পনীর-ঘনিষ্ঠ দুই নেতা ভি মৈত্রেয়ন ও কে পান্ডিয়ারাজন। রাজ্যপালের কাছে দুই শিবিরের দ্বারস্থ হওয়ার অর্থ— এখন একই দলের দুই নেতা মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবিদার হয়ে সম্মুখ সমরে।

বিধায়ক-বন্দির দুর্গে এখন ভাঙা হাট

রাতে পাহারা দিয়েছিলেন খোদ ‘চিন্নাম্মাই’। তা-ও মহাবলীপুরমের গোল্ডেন বে রিসর্ট থেকে বিধায়কদের পালানোর সম্ভাবনা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় ছিল শশিকলা শিবির। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরে ওই রিসর্টের তালা চাবিই কার্যত অপ্রাসঙ্গিক হয়ে গেল। চিনাম্মার ‘আটক’ বিধায়কদের মধ্যে যাঁরা পনীরসেলভম শিবিরে যাওয়ার জন্য পা বাড়িয়ে ছিলেন তাঁরা তো মুক্তির স্বাদ পেলেনই। বাকিরাও আর আটক না থেকে পরবর্তী যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন যে যার নিজের মত করে। মাতছেন পনীরসেলভমের বাড়ির উৎসবে।

নিলামে উঠবে জয়ার সম্পত্তিও

হিসেব বহির্ভূত সম্পত্তি মামলায় তামিলনাড়ুর প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতাকে ১০০ কোটি টাকা জরিমানা করেছিল বেঙ্গালুরুর বিশেষ আদালত। আজ সেই রায়ই বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট। আজ যে ৬৬.৬৫ কোটি টাকার দুর্নীতির মামলায় শশিকলা ও তাঁর দুই আত্মীয়কে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত, সেই মামলার আসল অভিযুক্ত ছিলেন জয়ললিতাই। বাকি তিন জনের মতো তাঁকেও চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল বেঙ্গালুরুর বিশেষ আদালত। সঙ্গে ১০০ কোটি টাকা জরিমানা। আজ সেই রায়ই বহাল রেখেছে সুপ্রিম কোর্ট। ৫০০ পৃষ্ঠার রায়ে উঠে এসেছে, জয়া কী ভাবে হিসাব-বহির্ভূত সম্পত্তি জড়ো করেছিলেন। শশিকলা ও অন্যেরা ছিলেন স্রেফ দাবার ঘুঁটি। নিজের বেআইনি সম্পত্তি শশিকলা, শশীর আত্মীয় ও তাঁদের মালিকানাধীন সংস্থার নামে লিখে দিয়েছিলেন জয়া। যাতে নিজের গায়ে দুর্নীতির দাগ না-লাগে। শশিকলারা সেই কাজে মদত দিয়েছিলেন ঠিকই। কিন্তু আইনের চোখে এই মামলার মূল ষড়যন্ত্রী আম্মা জয়ললিতাই!

bartaman_big11

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে চার বছরের জেল শশীকলার

আজ বাদে কালে যিনি তামিল রাজনীতির নতুন ‘আম্মা’ হিসাবে সিংহাসনে বসবেন বলে ধরেই নেওয়া হয়েছিল, সেই শশীকলা নটরাজনকে যেতে হচ্ছে জেলে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে চার বছরের জন্য কারাদণ্ড হয়েছে তাঁর। আইন অনুযায়ী কারাবাসের মেয়াদ সমাপ্তির পরবর্তী ৬ বছরও কোনও নির্বাচনে লড়াই করতে পারবেন না। অর্থাৎ ১০ বছরের রাজনৈতিক নির্বাসন চিন্নাম্মার। যা তামিলনাড়ুর রাজনৈতিক সমীকরণকে আমূল বদলে দিতে চলেছে। সবথেকে বড় যে প্রশ্নটি উঠে আসছে তা হল সমকালীন ভারতীয় রাজনীতির অন্যতম ট্রেন্ডসেটার জয়ললিতার মৃত্যুর মাত্র কয়েকমাসের মধ্যেই তাঁর প্রিয় দল দু’টুকরো হওয়ার মুখে। শশীকলার জেলযাত্রার পর কী তাঁর প্রধান প্রতিপক্ষ পনিরসেলভামের গদিতে বসা নিষ্কন্টক হয়ে গেল? পনিরসেলভাম শিবিরে উৎসব শুরু হলেও উত্তরটি এখনও সংশয়াপন্ন। কারণ কারাবাসের সংবাদ শোনার সঙ্গে সঙ্গে শশীকলা দুটি কাজ করেছেন। প্রথমত পনিরসেলভামকে দল থেকে বহিষ্কার। আর দ্বিতীয়ত নিজের অনুগামী পালানিস্বামীকে দলের পরিষদীয় দলনেতা হিসাবে মনোনীত করা। অর্থাৎ পালানিস্বামী এবার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দাবিদার। পনিরসেলভামের পথের কাঁটা। আজ বিকেলেই তিনি দলবল নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে সরকার গড়ার দাবিও জানিয়ে এলেন। তারপরই পনিরসেলভামের পক্ষ থেকেও রাজ্যপালকে গিয়ে বিধায়কদের নামের তালিকা দিয়ে বলে আসা হল সরকার গড়তে যেন তাঁরাই সুযোগ পান আগে। ফলে আবার চোখ রাজ্যপালের দিকে।

পাহাড়ে আগুন জ্বালানো বরদাস্ত করব না: মমতা

‘পাহাড়ে আমাদের এমপি, এমএলএ কিংবা কাউন্সিলার কিছুই নেই। রয়েছে সাধারণ মানুষের ভরসা আর বিশ্বাস। সেই ভরসা আর বিশ্বাসকে পুঁজি করেই সাফ জানিয়ে দিচ্ছি, পাহাড়ে হিংসার আগুন জ্বালানো কোনওভাবেই বরদাস্ত করব না। সহ্য করব না মানুষে মানুষে বিভেদ লাগানোর চেষ্টাও।’ রাজ্যের প্রশাসনিক মানচিত্রে সদ্যোজাত কালিম্পং জেলার আনুষ্ঠানিক সূচনা করে মঙ্গলবার এই ভাষাতেই নাম না করে মোর্চাকে হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, দার্জিলিংকে ভালোবাসি। কিন্তু কালিম্পং পিছিয়ে ছিল। পাঁচবছর আগে এখানে এসে মানুষের চোখের ভাষা পড়েছিলাম। উন্নয়নের প্রত্যাশা আর সমৃদ্ধির স্বপ্নে লালিত সেই চোখের ভাষা বুঝেছিলাম বলেই আজ নতুন জেলা হল কালিম্পং। হ্যাপি বার্থ ডে কালিম্পং। আজ ভ্যালেনটাইনস ডে হল প্রকৃতঅর্থে কালিম্পং ডে। মমতার এ কথায় সভাস্থল জুড়ে জনতার উল্লাস আর হর্ষধ্বনি তখন সিংহগর্জনে বদলে গিয়েছে। নানা আদিবাসী জনগোষ্ঠীর নিজস্ব রীতির বাদ্যযন্ত্র আর মঙ্গলধ্বনির সুর তখন একটাই—‘জয়তু মমতাদিদি’। পাল্লা দিয়ে ফাটছে আতসবাজি। সভাস্থল কালিম্পং মেলা মাঠের আকাশ ছেয়ে যাচ্ছিল নীল-সাদা বেলুনে। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে একে অপরকে অভিন্দন জানাচ্ছিলেন সবুজ আবির মাখিয়ে।

হাইকোর্টের রায়ের উপরেই ঝুলে প্রাথমিকের নয়া শিক্ষকদের ভাগ্য

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বৈধতা হাইকোর্টের রায়ের উপরই নির্ভর করছে। ডিভিশন বেঞ্চের পুরানো একটি আদেশের ভিত্তিতে এই মর্মে জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদ এবং স্কুল পরিদর্শকদের অফিসে বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার নির্দেশ দিল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। মঙ্গলবার পর্ষদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে এই নির্দেশ দেখার পরই কিছুটা ঘাবড়ে গিয়েছেন সদ্য চাকরি পাওয়া প্রার্থীরা। তবে পর্ষদের তরফে আশ্বস্ত করা হচ্ছে, এখনই ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সোমবার চেয়ারম্যান মানিক ভট্টাচার্যকে পাঠানো একটি আইনি নোটিসের ভিত্তিতেই পর্ষদ এই পদক্ষেপ করেছে বলে ওয়াকিবহাল মহলের বক্তব্য। বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তর নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ গত বছর আদেশ দিয়েছিল, নিয়োগ যে আদালতের চূড়ান্ত রায়ের উপর নির্ভর করছে, তা আগেভাগে জানিয়ে দিতে হবে। কিন্তু পর্ষদ এবার নিয়োগপত্র দেওয়ার ক্ষেত্রে তা করেনি। সেই রায়টি মনে করিয়ে দিয়ে হাইকোর্টে বিষয়টি জানান মামলাকারী। মানিকবাবুকেও চিঠি পাঠানো হয়। সম্ভবত তারপরেই নড়েচড়ে বসেছে পর্ষদ। এক আধিকারিক বলেন, আগের নিয়োগের ক্ষেত্রেও শর্তসাপেক্ষ বিষয়টি লেখা ছিল।

ভারত-পাক সীমান্তে ২০ মিটার টানেলের খোঁজ পেল বিএসএফ

একদিকে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের তাণ্ডবে হত তিন সেনাকর্মী। অন্যদিকে, পাক সীমান্ত লাগোয়া জঙ্গি অনুপ্রবেশের সুড়ঙ্গের সন্ধান। এই দুই ঘটনাকে ঘিরে মঙ্গলবারও অশান্তি, উত্তেজনা জিইয়ে থাকল ভূস্বর্গে। আর এই পরিস্থিতি সামলানোর মোক্ষম দাওয়াই হিসাবে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে’র পক্ষেই সওয়াল করলেন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা। সবমিলিয়ে কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ক্রমেই চাপ বাড়ছে মোদি সরকারের উপর। সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে কাশ্মীর যখন উত্তপ্ত তখন জম্মুর সাম্বা সেক্টরের রামগড়ে পাক সীমান্ত লাগোয়া একটি বিরাট সুড়ঙ্গ নজরে পড়ে বিএসএফের। সুড়ঙ্গটি প্রায় ২০ মিটার দীর্ঘ বলে জানা গিয়েছে। তা নিয়ে রীতিমতো উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গিরা ভারতে অনুপ্রবেশ করতেই এই সুড়ঙ্গ খনন করেছিল। খননের কাজ প্রায় শেষ করে ফেলেছিল জঙ্গিরা। এদিন তা নজরে পড়ায় জঙ্গিদের বড়সড় অনুপ্রবেশ ও নাশকতার ছক ঠেকানো গিয়েছে বলে বিএসএফের আধিকারিকরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন।

ei samay

আপাতত ডামাডোলই ভবিতব্য তামিলনাড়ুর

অবশেষে যবনিকা পতন ৷ নাকি তামিল রাজনৈতিক রঙ্গমঞ্চের দ্বিতীয় অঙ্ক ? সে যাই হোক না কেন, সুপ্রিম কোর্টের রায় তামিল রাজনীতিকে ঠেলে দিল প্রবল অনিশ্চয়তার মধ্যে ৷ কারণ একদিকে চলবে বিধায়ক কেনার নান ছক, অন্যদিকে হবে ক্ষমতার পাঞ্জা লড়াই, যেখানে দুই কুশীলবের নাম ভি কে শশিকলা এবং ও পনীরসেলভাম ৷

মোদীর মুখে গান্ধী-নাম, সময় বুঝে নেহেরু

এই মুহূর্তে এ দেশের সবচেয়ে বড়ো কংগ্রেসি নেতা কে ? খুব ভুল হবে কি যদি বলি নরেন্দ্রভাই দামোদরদাস মোদী ? এতদিন ছিলেন বল্লভভাই প্যাটেল ৷ তার পরে যুক্ত হলেন গান্ধী ৷ ইদানীং দেখা যাচ্ছে যেখানে প্রয়োজন হচ্ছে, নরেন্দ্র মোদী নেহেরু, ইন্দিরা রাজীবকেও সেলাম ঠুকতে ভুল করছেন না ৷

এবার ‘অনার কিলিং’-এর ছায়া রিষড়ায়, ভাইয়ের হাতে খুন দিদি

ভ্যালেন্টাইন্স ডে-র ভোরে ছোট ভাউয়ের হাতে খুন হলেন দিদি ৷ মঙ্গলবার ভোররাতে দিদিকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে মাথায় গুলি করে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত অমিত সিং ৷ হুগলির রিষড়ার এই ঘটনাকে প্রতিবেশীরা ‘পারিবারিক সম্মানরক্ষার্থে খুন’ বলে দাবি করলেও তদন্ত শেষ হওয়ার আগে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ এই খুনকে ‘অনার কিলিং’ হিসেবে মানতে নারাজ ৷

প্রয়াত নীলিমা বন্দ্যোপাধ্যায়

মারা গেলেন নীলিমা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ কিংবদন্তি অভিনেতা ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী ছিলেন তিনি ৷ মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর ৷

First published: 09:58:43 AM Feb 15, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर