লাগাতার হুমকির পর এবার সন্তান অপহরণের শঙ্কা, তিন তালাকের মুখ ইসরাত জাহানের নতুন লড়াই

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 01, 2017 07:19 PM IST
লাগাতার হুমকির পর এবার সন্তান অপহরণের শঙ্কা, তিন তালাকের মুখ ইসরাত জাহানের নতুন লড়াই
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 01, 2017 07:19 PM IST

#কলকাতা: তিন তালাকের বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। তিন তালাকের ঐতিহাসিক রায়ের মুখ ইসরত জাহানের জন্য ক্রমশই বাড়ছে চ্যালেঞ্জ ৷ বৃহস্পতিবার হঠাৎই নিঁখোজ হয়ে যায় তাঁর এক ছেলে ও মেয়ে ৷ অবশেষে সন্ধেয় স্বস্তি ৷ খোঁজ মেলে তাঁর দুই সন্তানের।

তিন তালাকের বিরোধীতায় সুপ্রিম কোর্টে মামলাকারীদের অন্যতম ছিলেন এই ইসরাত জাহান। সুপ্রিম কোর্টে সেই মামলার বদলা নিতেই কি টার্গেট সন্তানরা? ওঠে প্রশ্ন ৷

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যায় তার দুই সন্তান। সন্দেহের আঙুল ওঠে ইসরাতের স্বামীর দিকে ৷ ছেলে মেয়ের খোঁজ না পেয়ে গোলাবাড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ইসরাত জাহান।

তদন্তে নেমে তাঁর ২ সন্তানের খোঁজ পায় পুলিশ। জানা যায়, একই বাড়িতে থাকা ইসরাতের প্রাক্তন স্বামীই বাচ্ছাদের ঘুরতে নিয়ে গিয়েছিলেন। ঘটনার কথা জানতে পেরেই ইসরাতের প্রাক্তন স্বামী বাচ্চাদের নিয়ে গোলাবাড়ি থানায় আসেন। থানায় গিয়ে শিশুদের শনাক্ত করেন ইসরাত।

বৃহস্পতিবার রাতে মায়ের কাছেই ফিরিয়ে দেওয়া হয় সন্তানদের। শুক্রবার আদালতে গোপন জবানবন্দি নেওয়া হবে শিশুদের। তার পরই জানা যাবে আসল ঘটনা। তিন তালাক নিয়ে বেশ কয়েকটি সংগঠন ক্রমাগত ইসরাতকে হুমকি দিচ্ছিল বলেও অভিযোগ।

ইসরাতের প্রাক্তন স্বামীর দাবি, ঘুরতে যেতে চেয়েছিল ছেলে মেয়েরা। আপাতত মায়ের কাছেই রয়েছে দুই সন্তান। শুক্রবার আদালতে গোপন জবানবন্দি দেবে দুই সন্তান। তারপরই জানা যাবে আসল ঘটনা। সেক্ষেত্রে বিচারকের নির্দেশেই বাবা মোর্তাজাকে গ্রেফতার করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে টেলিফোনে আবুধাবি থেকে ইশরতকে তিন তালাক দেন মুর্তাজা। জোর করে তাঁর থেকে কেড়ে নেওয়া হয় চার সন্তানকেও ৷  তারপর থেকেই শুরু হয় লড়াই। এরপরই  তিন তালাকের বিরুদ্ধে সরব হন ইসরত ৷  স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেরা বারবার হেনস্থা করেছে বলে অভিযোগ করেন ইশরত জাহান। বৃহস্পতিবারের ঘটনার পর ইশরত আরও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগবেন বলে মনে করছেন তাঁর আইনজীবী। অবশেষে ২২ অগাস্ট সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়ে নিষিদ্ধ তিন তালাক ৷

First published: 12:13:30 PM Sep 01, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर