মাছ ধরতে গিয়েই কি বিপত্তি ? দক্ষ সাঁতারু হয়েও কীভাবে ডুবে গেলেন কাজলবাবু ? উঠছে প্রশ্ন

Aug 12, 2017 05:43 PM IST | Updated on: Aug 12, 2017 05:46 PM IST

#কলকাতা: কুড়ি ঘণ্টা উদ্ধারকার্য চালানোর পর কলেজ স্কোয়ারের সুইমিং পুল থেকে উদ্ধার হয় জাতীয় স্তরের সাঁতারুর দেহ। পুলের নিচে ঢালাইয়ের জন্য তৈরি কাঠের খাঁচায় আটকে ছিল কাজল দত্তের দেহ। ঢালাই শেষ হওয়ার ২৫ দিন পরও কেন খোলা হয়নি কাঠের খাঁচা ? কেন নেওয়া হয়নি সতর্কতা ? মৃত্যুর কারণ নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

প্রতিদিনের মতোই শুক্রবারও অবসরপ্রাপ্ত শুল্ক দফতরের কর্তা কাজল দত্ত কলেজ স্কোয়ারে জলে নেমেছিলেন সাঁতার কাটতে। তারপর অবশ্য আর ওঠা হয়নি। শুক্রবার গভীর রাতে পুলের একটি পিলারের কোণা থেকে উদ্ধার হয় সাঁতারুর দেহ। একটি কাঠের খাঁচায় আটকে ছিল দেহ। কিন্তু কীভাবে মৃত্যু হল দক্ষ সাঁতারুর ?

মাছ ধরতে গিয়েই কি বিপত্তি ? দক্ষ সাঁতারু হয়েও কীভাবে ডুবে গেলেন কাজলবাবু ? উঠছে প্রশ্ন

পুলের নীচে ঢালাইয়ের জন্য কাঠের খাঁচা বানানো হয়

ঢালাই করেছিল শৈলেন্দ্র মেমোরিয়াল ক্লাব

 কাজ শেষের ২৫ দিন পেরোলেও খোলা হয়নি কাঠের খাঁচা

 সেখানেই আটকে ছিল সাঁতারুর দেহ

ওই কাঠে প্রায়ই আটকে যেত সাঁতারুদের পা ৷ কাঠের খাঁচায় আটকেই কি সাঁতারুর মৃত্যু ? কিন্তু কেন খোলা হয়নি ঢালাইয়ের জন্য তৈরি কাঠামো ? গাফিলতির দায় নিচ্ছে না ক্লাব কর্তৃপক্ষ।সাঁতারুর মৃত্যুর দায় নিতে রাজি নয় পুরসভাও। ক্লাবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বিধায়ক।

মাছ ধরার শখ ছিল জাতীয় স্তরের সাঁতারু কাজল দত্তের ৷ তা থেকেই কি বিপত্তি ? নাকি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই মৃত্যু সাঁতারুর ? পুলের পর্যাপ্ত সুরক্ষায় দায় কার ? সামনে আসছে এই প্রশ্নগুলোই। শুরু হয়েছে চাপান উতোর।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES