২০ ঘণ্টা পর মিলল সুইমিং পুলে তলিয়ে যাওয়া সাঁতারুর দেহ

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 12, 2017 01:16 PM IST
২০ ঘণ্টা পর মিলল সুইমিং পুলে তলিয়ে যাওয়া সাঁতারুর দেহ
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 12, 2017 01:16 PM IST

#কলকাতা: দুর্ঘটনার ২০ ঘণ্টার পর অবশেষে মিলল নিখোঁজ সাঁতারুর দেহ ৷ মৃতের নাম কাজল দত্ত ৷ কলেজ স্কোয়ারে সাঁতার কাটতে নেমে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ জাতীয় স্তরের সাঁতারু। কাজল দত্ত বউবাজার ব্যায়াম সমিতির লাইভ সেভার ও ট্রেনার। শুক্রবার সকাল সাতটা নাগাদ পুলের পাশে তোয়ালে রেখে জলে নামেন তিনি। তারপর থেকেই আর খোঁজ নেই কাজল দত্তের। দফায় দফায় ডুবুরি নামিয়ে তল্লাশিতেও খোঁজ মেলেনি। জলে নেমে মাছ ধরার নেশা ছিল কাজল দত্তের। অভিজ্ঞ সাঁতারুর নিখোঁজে রহস্য দানা বেঁধেছে। প্রায় ২০ ঘণ্টা পর রাত ৩টে নাগাদ তার দেহ উদ্ধার করা হয় ৷

জানা গিয়েছে, সুইমিং পুলের বাঁশ ও কাঠের অস্থায়ী কাঠামোতে আটকে ছিল দেহ। দেহ আটকে থাকায় তার পিঠে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে ৷ শারীরিত অসুস্থার কারণে ডুবে গিয়ে মৃত্যু নাকি অন্য কোনও রহস্য রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে ৷ দেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য ৷

শুক্রবার সাঁতারের প্রশিক্ষণ দিতেন। বউবাজার ব্যায়াম সমিতির লাইফ সেভার হিসাবে নামডাক ছিল অবসরপ্রাপ্ত শুল্ক দফতরের কর্তা কাজল দত্তের। তাঁর হাতেই বাংলার প্রথম মহিলা সাঁতারু দল তৈরি হয়। প্রতিদিন সকালে কলেজ স্কোয়ারে এসে সাঁতার কাটতেন কাজল দত্ত। শুক্রবারও এসেছিলেন। সকাল সাতটা নাগাদ পুলের পাশে বাঁশের রেলিংয়ে তেয়ালে রেখে জলে নামেন কাজল দত্ত। প্রায় চল্লিশ মিনিট পরও তিনি জল থেকে না ওঠায় রহস্য তৈরি হয়।

প্রাথমিকভাবে ক্লাবের অন্য প্রশিক্ষকরা জলে নেমে তল্লাশি শুরু করেন। খবর দেওয়া হয় আমহার্স্ট থানায়। সকাল এগারোটা নাগাদ ঘটনাস্থলে আসেন কলকাতা পুলিশের বিপর্যয মোকাবিলা বাহিনীর ডুবুরিরা। শুরু হয় তল্লাশি।

চারশো স্কোয়ার মিটারের পুলে দফায় দফায় তল্লাশি চালান হয়। কলেজ স্কোয়ারের কোথাও চার ফুট জল, কোথাও জল প্রায় পঁচিশ ফুট। জলে বারোটি পিলার রয়েছে। দীর্ঘক্ষণ তল্লাশির পরও খোঁজ মেলেনি কাজল দত্তের।

এরপর সুইমিং পুরেল জল বের করে দেওয়া হয়েছিল। জল কমতেই মৃতদেহের খোঁজ পাওয়া যায় ৷

First published: 10:37:10 AM Aug 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर