পুলিশের হেফাজতে জনতার কোটি কোটি টাকা, কিন্তু সেই টাকা কোন কাজে লাগবে?

Jan 24, 2017 05:06 PM IST | Updated on: Jan 24, 2017 05:06 PM IST

#কলকাতা: পুলিশের হেফাজতে জনতার কোটি কোটি টাকা, কিন্তু সেই টাকা কোনও কাজেই লাগছে না ৷ সেই টাকার মধ্যে রয়েছে কৌশিক গুপ্তর টাকাও ৷  এতদিন বাদে চুরি হয়ে যাওয়া হারানিধি ফিরে পেয়েও আনন্দের বদলে দুঃখই পেলেন কৌশিক গুপ্ত ৷ অথচ এই চুরি হয়ে যাওয়া সম্পদ ফিরে পেতে এক সময় জুতোর সুখতলা খুইয়ে ফেলেছিলেন ভদ্রলোক ৷

বছর দুয়েক আগে মার্কিন মুলুকের ভিসার জন্য ইন্টারভিউ দিতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন কৌশিকবাবু ৷ সঙ্গে ছিল আই কার্ড থেকে পাসপোর্ট, সমস্ত ডকুমেন্টের আসল নথি এবং ট্রাভেল এজেন্টের পেমেন্টের নগদ হাজার তিরিশেক টাকা ৷ কিন্তু গন্তব্য পৌঁছে পকেটে হাত দিয়ে প্রায় আকাশ থেকে পড়ার উপক্রম ভদ্রলোকের ৷ দুই পকেট বেবাক ফাঁকা ৷ না আছে কোনও নথি না আছে কোনও টাকা ৷ বাস থেকে নামার পথেই পকেট কেটে চম্পট দিয়েছে কোনও পকেটমার ৷ নথি হারিয়ে সে যাত্রা মার্কিন মুলুক যাওয়ার পরিকল্পনা বেশ কিছুটা সময় পিছিয়ে যায় ৷

পুলিশের হেফাজতে জনতার কোটি কোটি টাকা, কিন্তু সেই টাকা কোন কাজে লাগবে?

হারানো সম্পদ উদ্ধারে পুলিশে ডায়েরি, এফআইআর কিছুই বাকি রাখেননি ৷ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ডুপ্লিকেট নথি তৈরি হয়ে গেলেও পাওয়া যায়নি টাকা ৷ বছর দুয়েক বাদে তদন্ত শেষে অবশেষে উদ্ধার সে সম্পদ ৷ লালবাজার থেকে আসা এক ফোনে জানানো হয় সেই সুসংবাদ ৷ মামলার নিষ্পত্তির পর নির্দিষ্ট দিনে চুরি যাওয়া টাকা আনতে পৌঁছে আশাহত হলেন কৌশিক গুপ্ত ৷ সেই টাকা এখন ‘মৃত’ ৷

হাজার তিরিশেক নোটের বেশিরভাগটাই বাতিল ৫০০ ও ১০০০-এর নোট ৷ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৫-এর পর এখন মূল্যহীন ৷ তাই উদ্ধার হওয়ার পরও সে টাকা না নিয়েই মনের দুঃখে বাড়ি ফিরে এলেন কৌশিকবাবু ৷

এদিকে চুরির টাকা উদ্ধার করেও ফাঁপড়ে পুলিশ ৷ কৌশিক গুপ্তের ঘটনা তো উদাহরণ মাত্র ৷ কলকাতা পুলিশের মালখানায় জমা পড়ে রয়েছে এরকম কয়েক কোটি টাকা ৷ তাঁর অধিকাংশই বাতিল ৫০০ ও ১০০০-এর নোটে ৷ তাই ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৫-এর পর সেই জমার অর্থের ভবিষ্যত নিয়ে প্রশ্ন তুলে কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হয়েছে একটি জনস্বার্থ মামলা ৷ বিচারপতি নিশিতা মাত্রে ও বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর ডিভিশন বেঞ্চে মামলাটি গৃহীত হয়েছে ৷

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক স্পষ্টই জানিয়েছে, নোট বদলের সময় উত্তীর্ণ ৷ কোনও মতেই এখন আর বাতিল নোট পরিবর্তন সম্ভব নয় ৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গাইডলাইন অনুযায়ী, এখন শুধুমাত্র প্রবাসী ভারতীয়রাই ৫০০ ও ১০০০-এর বাতিল নোট রিজার্ভ ব্যাঙ্কের শাখা থেকে বদলে নিতে পারবেন ৷

ফলে মালখানায় জমা বিপুল পরিমাণ বাতিল নোটের ভবিষ্যৎ কী তা জানতে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের অপেক্ষা ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES