ঘোলা জলে মাছ ধরতে এসেছেন অমিত শাহ, কটাক্ষ মহম্মদ সেলিমের

Apr 26, 2017 04:51 PM IST | Updated on: Apr 26, 2017 04:51 PM IST

#কলকাতা: পাঁচ রাজ্যের পর বাংলা জয়কেই মিশন বানিয়েছে বিজেপি ৷ বুধবার অমিত শাহের রাজ্য সফরের দ্বিতীয় দিন ৷ রাজ্যে পা দেওয়ার পর থেকেই বিজেপির আত্মবিশ্বাসী সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মুখে শোনা গিয়েছে ২০১৯-এ এরাজ্যে গেরুয়া শাসন প্রতিষ্ঠার কথা ৷ বিজেপির এহেন জনসংযোগের প্রচেষ্টার সমালোচনায় সরব হলেন সিপিআইএম সাংসদ মহম্মদ সেলিম ৷

শুধু তাই নয় বিজেপি ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছেন বলে নতুন করে অভিযোগ করেন সেলিম ৷ এদিন তিনি বলেন, ‘তৃণমূলের বিরুদ্ধে অমিত শাহ কিছু বলেন না ৷ তৃণমূল নেত্রীর ভাষণেও বিজেপির বিরুদ্ধাচারণ নেই ৷ চিটফাণ্ড নিয়ে তৃণমূল যেমন দোষী ৷ বিজেপিও দুর্নীতি প্রশ্নে কতটা স‍ৎ বলার দরকার নেই ৷ ঘোলা জলে মাছ ধরতে এসেছেন অমিত শাহ ৷ ধর্মকে আফিমের মত ব্যবহার করা হচ্ছে ৷’

ঘোলা জলে মাছ ধরতে এসেছেন অমিত শাহ, কটাক্ষ মহম্মদ সেলিমের

এদিন তৃণমূল নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর খাস তালুক ভবানীপুর থেকেই বাংলা জয়ের হুঙ্কার দিলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ৷ জনসম্পর্ক মজবুত করার বার্তা দিতে নকশালবাড়ির হত দরিদ্র পঞ্চায়েত এলাকায় মঙ্গলবার ঘুরেছেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। বুধবারের কর্মসূচি ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এলাকায় জনসংযোগ ৷ রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান ও জনপ্রিয় জননেত্রীর পাড়া থেকে অমিত শাহের আত্মবিশ্বাসী মন্তব্য, ‘ভবানীপুরেও পদ্ম ফুটবে ৷ ২০১৯ ভোটেই বিজেপির শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে ৷’

টার্গেট বেঙ্গল। লক্ষ ২০১৯। নির্মূল হবে ঘাসফুল। সবচেয়ে বেশি আসন পাবে বিজেপি। হয়ে উঠবে বাংলার সবচেয়ে বড় দল। বাংলায় ফুটবে পদ্ম। সেই লক্ষেই এগোচ্ছে মিশন বেঙ্গল। ফের বিজেপির টার্গেট স্পষ্ট করলেন অমিত শাহ। একই সঙ্গে উন্নয়ন, দুর্নীতি ইস্যুতে আবারও শাসক দলের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি। বললেন, তৃণমূল রাজত্বে অধিকাংশ কারখানা বন্ধ। চালু শুধুমাত্র বোমা তৈরির কারখানা। সংগঠনের জোরেই বিজেপি এতদূরে পৌঁছেছে ৷ বিশ্বের বৃহত্তম দল এখন বিজেপি ৷ মোদির বিজয়রথ পশ্চিমবঙ্গেও পৌঁছবে ৷’

ভুবনেশ্বরে বিজেপির কর্মসমিতির বৈঠকেই তৈরি হয়ে গেছিল মিশন বাংলার রোডম্যাপ। টার্গেট ২০১৯। এ-রাজ্যের মসনদ দখল। সেই লক্ষে রাজ্যে বুথস্তর পর্যন্ত সংগঠন বাড়াতে মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে রাজ্য সফর। নকশালবাড়ির পর বুধবার কলকাতায় আরও আক্রমণাত্মক বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

‘বাম নয়, বিজেপিকে ভয় পাচ্ছেন মমতা ৷ সব কা সাথ, সব কা বিকাশ ৷ এটাই বিজেপির মন্ত্র ৷ কারও সঙ্গে কোনও অন্যায় হবে না ৷ সবাইকে নিয়েই চলবে বিজেপি ৷ যতক্ষণ না বাংলার মাটিতে বিজেপি আসছে ৷ ততক্ষণ পর্যন্ত মিশন সম্পূর্ণ নয় ৷’ ভবানীপুরে বললেন অমিত শাহ ৷

ষড়যন্ত্র নয়। দুর্নীতি। ক্যামেরার সামনে ঘুঁষ নিতে দেখা গেছে তৃণমূলের নেতাদের। দুর্নীতি প্রশ্নে ফের শাসকদলকে বিঁধলেন বিজেপি সভাপতি ।

আক্রমণ শানালেও, অস্ত্র মিছিল নিয়ে সাবধানী অমিত শাহ। বললেন, এরকম ঘটনা ঘটলে তদন্ত হবে। মঙ্গলবারই মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন , এ রাজ্যে বাঘকে দাঁত ফোটাতে দেবেন না । শুধু দাঁত ফোটানোই নয়। বুধবার সরাসরি আক্রমণের রাস্তায় নেমে অমিত শাহ বুঝিয়ে দিলেন, মিশন বেঙ্গল এখন আর শুধু কথার কথা নয়। দলের ফিক্সড টার্গেট।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES