কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 14, 2017 09:14 AM IST
কী বলছে আজকের খবরের কাগজ ? দেখে নিন
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 14, 2017 09:14 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ শনিবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

৪ জন ‘সুপারি কিলার’কে ৮ লক্ষ টাকা দিয়ে ভাড়া করে আনা হয়েছিল

গুলি-বোমার ধোঁয়ায় তখন চারপাশ ঢেকে গিয়েছে। রেলমাফিয়া শ্রীনু নায়ডুকে মারতে আসা দুষ্কৃতীরা সেই ধোঁয়ায় ঠাওর করতে পারেনি, নিজেরাই নিজেদের দলের একজনের হাতে গুলি চালিয়ে দিয়েছে। গুলিবিদ্ধ সেই আততায়ী গিয়ে উঠেছিল ঘাটালের দ্বন্দ্বিপুরে এক নার্সিংহোম কর্মীর বাড়িতে। বরুণ ঘোষ নামে সেই নার্সিংহোম কর্মী গজ-তুলো-স্যালাইন কিনে গুলি বের করার তোড়জোড়ও করেছিল। কিন্তু পারেনি।

খড়্গপুরের ‘বেতাজ বাদশা’কে খুন করল কে, এমন দুর্জয় সাহস কার?

দু’দিন ধরে রেল শহরে প্রশ্নটা ঘুরছিল। রেল-মাফিয়া শ্রীনু নায়ডুকে তার খাসতালুকে ঢুকে বোমা-গুলি চালিয়ে খুন করতে পারে, এমন দুর্জয় সাহস কার? সাত জনকে গ্রেফতারের পরে শুক্রবার পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের মধ্যে শঙ্কর রাও-ই মূলচক্রী। ঘটনার পিছনে সেই মাফিয়া-দুনিয়ার বদলার তত্ত্বই খাড়া করেছেন তদন্তকারীরা। শুনে চমকেছেন অনেকেই— এই ছেলেটা! যার বিরুদ্ধে এতদিন হুমকি, দাদাগিরির কিছু অভিযোগ শোনা যাচ্ছিল, যে কিনা বছর খানেক ধরে এলাকাতেই থাকে না, সে-ই খড়্গপুরের ‘বেতাজ বাদশা’কে সরাল!

রোজ ভ্যালি তদন্তে মিলল নয়া সূত্র, নেতা-মন্ত্রীর পুজোয় কোটি টাকা ‘দান’!

কলকাতার নামকরা ১২টি পুজো কমিটিকে ‘স্পনসর’ করতে এক বছরে খরচ দেখানো হয়েছে ২০ কোটি টাকা! রোজ ভ্যালির সোনার ব্যবসা অদৃজা-র হিসেব পরীক্ষা করে এমনই তথ্য এসেছে গোয়েন্দাদের হাতে। এঁরা বেশির ভাগই ভিন্ রাজ্যের বাসিন্দা। কলকাতার খুঁটিনাটি জানেন না। ওই তথ্য হাতে পেয়ে কলকাতায় চেনা পরিচিতদের ডেকে তাঁরা জানতে চান, ‘‘আপনাদের এখানে খুব বড় পুজোর বাজেট সর্বোচ্চ কত টাকার হয়?’’

দলের আপত্তি, তবু মমতার আমন্ত্রণে বিশ্ব বঙ্গ সম্মেলনে কলকাতা আসবেন জেটলি

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ চাননি। কিন্তু রাজধর্ম পালনের যুক্তিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে বিশ্ব বঙ্গ সম্মেলনে যোগ দিতে কলকাতা যাচ্ছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। মমতার অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য আনুষ্ঠানিক কোনও অনুমতি প্রধানমন্ত্রীর থেকে নেননি জেটলি। তবে তাঁর সফরসূচি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়ে রেখেছেন। মোদীর তরফে এখনও কোনও আপত্তির কথা জানানো হয়নি। বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব অবশ্য জেটলির এই সফরের কথা জেনে খুবই ক্ষুব্ধ। পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিংহ অমিত শাহের কাছে অনুরোধ জানান, জেটলি যাতে কলকাতায় না যান। বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের বক্তব্য, অরুণ জেটলিকে তাঁরা শ্রদ্ধা করেন। কিন্তু যখন গোটা রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাচ্ছেন, তখন এই সম্মেলনে এসে মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের দাবিতে সায় দেওয়াটা ঠিক হবে না। রাজ্য নেতৃত্বের দাবি মেনে, অমিত শাহের চাপের কাছে নতি স্বীকার করে জেটলি শেষ পর্যন্ত কলকাতা সফর বাতিল করবেন, এমন কোনও ইঙ্গিত অবশ্য এখনও মেলেনি।

bartaman_big11

জেল থেকেই প্রমাণ লোপাটের নির্দেশ দিতেন রোজভ্যালি কর্তা

জেলে বসেই গুরুত্বপূর্ণ তথ্যপ্রমাণ লোপাটের নির্দেশ দিয়েছেন রোজভ্যালিকর্তা গৌতম কুণ্ডু। সেই মতো তা সরিয়ে ফেলেছেন তাঁর দুই বিশ্বস্ত শাগরেদ। এর ফলে রোজভ্যালিকর্তার সঙ্গে রাজনৈতিক দলের নেতাদের ঘনিষ্ঠতা এবং তাঁরা কীভাবে তাঁর কাছ থেকে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা নিয়েছেন, সেই সংক্রান্ত বহু নথিই নষ্ট হয়ে গিয়েছে বলে মনে করছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। পাশাপাশি কোম্পানির টাকা কোথায় কার কাছে রাখা রয়েছে এবং কীভাবে তা বাইরে নিয়ে আসা হয়েছে, এই সংক্রান্ত তথ্যাদিও হাপিস করে ফেলা হয়েছে বলে তাঁরা জেনেছেন। গোটা বিষয়টি জানতেন শাসক দলের দুই শীর্ষ নেতা। তাঁদেরও এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। এমনটাই দাবি সিবিআইয়ের। সেই কারণে গৌতম কুণ্ডুকে হেপাজতে পেলে এই বিষয়টি সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য পাবে তদন্তকারী সংস্থার কাছে। জেলবন্দি গৌতম কুণ্ডুর সঙ্গে যাঁরা দেখা করেছেন, তাঁরা প্রত্যেকেই সিবিআইয়ের নজরে রয়েছেন। জেল থেকে চিটফান্ডকর্তার বেশকিছু ফোন বাইরে গিয়েছে।

শ্রীনু খুনের পিছনে রয়েছে বড় মাথা, বললেন এসপি

এক সময়ের ঘনিষ্ঠ দুই শাগরেদ এবং জামশেদপুরের দুই ‘সুপারি কিলার’সহ খড়্গপুরের ডন শ্রীনু নাইডুর খুনের ঘটনায় মোট সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দুই ঘনিষ্ঠ শাগরেদ হল শংকর রাও এবং নন্দ দাস। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, পুরানো শত্রুতার জেরে কয়েকজন বড় ‘মাথা’ শ্রীনু খুনের পরিকল্পনা করেছিল। পরিকল্পনা চূড়ান্ত করতে খড়্গপুর শহর এবং রাজ্যের বাইরে একাধিক বৈঠকও করা হয়। শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ বলেন, শ্রীনু প্রথম দিকে মাফিয়া জগতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। কিন্তু গত দেড় বছরে তাঁর বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ পাওয়া যায়নি। স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসছিলেন, ব্যাবসা করছিলেন। জনপ্রিয়তার জেরে ক্রমেই একজন বলিষ্ঠ যুবনেতা হয়ে উঠছিলেন। পথের কাঁটা সরাতে তাঁর পুরানো শত্রুরা তাঁকে খুন করার পরিকল্পনা করে। এদের নেপথ্যে রয়েছে কয়েকটি বড় মাথা। পুলিশ সুপার বলেন, শ্রীনুকে পথ থেকে সরাতে জামশেদপুর থেকে আট লাখ টাকা দিয়ে চারজন সুপারি কিলার ভাড়া করা হয়েছিল। ওই মাথাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। সবাইকে গ্রেপ্তার করা হবে।

খাদির নয়া ক্যালেন্ডারে মহাত্মা গান্ধীর ছবি নেই, চরকা কাটছেন মোদি, বিতর্ক তুঙ্গে, চাপে সরকার

শব্দটির নাম খাদি। আর সেই খাদির সঙ্গে প্রায় প্রতীকি হয়ে যাওয়া ছবিটা হল এক ভারতীয় প্রৗঢ় চরকায় সুতো বুনছেন তাঁর অননুকরণীয় বসার স্টাইলে। এই দৃশ্যকল্পটির সঙ্গে কোনও নাম বা পরিচয় দেওয়ার দরকার পড়েনি এতদিন। কারণ ১৯২০ সালে বিদেশি বস্ত্রের পরিবর্তে খাঁটি স্বদেশি পোশাক জনপ্রিয় করার লক্ষ্যে খাদি আন্দোলনের প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ওই চরকা কাটা ব্যক্তি। মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী। খাদি এরং চরকার যুগলবন্দী ইমেজটি সবরমতী আশ্রমের প্রাঙ্গণ ছাড়িয়ে ভারতীয় ইতিহাসের অন্তর্গত হয়েছে। ঢুকে পড়েছে ইতিহাসমনস্ক ভারতীয় মননেও। কিন্তু এবার বোধহয় জওহরলাল নেহরুর পর মহাত্মা গান্ধীর পালা নরেন্দ্র মোদিকে জায়গা ছেড়ে দেওয়ার জন্য।

শীত উপেক্ষা করে‌‌ই আজ সাগরস্নানে লাখো পুণ্যার্থী

শীত উপেক্ষা করেই আজ, শনিবার গঙ্গাসাগরে লাখো পুণ্যার্থী মোক্ষ লাভের উদ্দেশ্যে ডুব দেবেন। ঝকঝকে শপিং মলের গ্ল্যামারশোভিত ‘ইন্ডিয়া’র পাশেই রয়েছে অপূর্ব এবং অদ্ভুত এক গ্রাম-ভারত। ‘গ্লোবাল ইন্ডিয়া’ বা ‘ক্যাশলেস ভারত’-এর ‘স্মার্ট বার্তা’ তার কাছে পৌঁছায় না। সেখানেও প্রচুর মানুষ আছেন, যাঁরা শুধু বিশ্বাসই করতে শিখেছেন। কখনও প্রশ্ন করেননি। তাই বিহারের কিষানগঞ্জ জেলার বছর পঞ্চাশের দেহাতি গৃহবধূ বীণাপাণিদেবী সাগর মেলায় এসে হারিয়ে গিয়েও স্বামীর নাম বলতে পারেন না। অথচ এসেছেন তাঁর সঙ্গেই, খুঁজছেন তাঁকেই। নামটাও যে জানেন না, তা নয়। বীণাপাণিদেবীর আজন্মলালিত বিশ্বাস তাঁকে এই প্রত্যয় দিয়েছে যে কখনও স্বামীর নাম মুখে আনা যাবে না। তাই লক্ষ লোকের মেলায় হারিয়ে গিয়ে, দিশাহারা হয়েও রক্ষা করে চলেছেন বিশ্বাস।

ei samay

দক্ষিণ চিন সাগরের পথ রুখলে যুদ্ধ, হুমকি চিনের

দক্ষিণ চিন সাগরের বুকে কৃত্রিম দ্বীপপুঞ্জে চিনের যাতায়াত রুখতে যুদ্ধে নামতে হবে আমেরিকাকে ৷ শুক্রবার চিন সরকার পরিচালিত সংবাদপত্রে এমনই মন্তব্য করা হয়েছে ৷

সাইকেলে বসবেন কে, পিতা না পুত্র? জানাল না কমিশন

সাইকেল শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্যে জুটবে, তা পরিষ্কার হল না শুক্রবারও ৷ মুলায়ম ও অখিলেশ উভয় শিবিরের বক্তব্য শুনলেও নিজেদের রায় দিল না নির্বাচন কমিশন ৷

দিল্লি তিনে, ঠান্ডা শহরের দোরেও

অবশেষে দেশের সমতলে দাপট দেখাতে শুরু করল শৈত্যপ্রবাহ ৷ অপেক্ষায় শুধু পশ্চিমবঙ্গ ৷ আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এ রাজ্যেও শীত জাঁকিয়ে বসার সম্ভাবনা জোরদার হচ্ছএ ৷ উত্তর পশ্চিম, উত্তর ও মধ্য ভারতের বিস্তীর্ণ অংশে থাবা বসিয়েছে শৈত্যপ্রবাহ ৷

৫০ পয়সা কিলো টমেটো! না বেচে পচিয়ে নষ্ট করছেন চাষিরা

রাঁচি-টাটা হাইওয়ে অথার্ৎ ৩৩ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে যদি সোজা এগোনো যায়, দেখা যাবে রাস্তার দু’পাশে বিভিন্ন সব্জি ডাঁই করে রাখা আছে ৷ বিশেষত টমেটো ৷ বিক্রির জন্য নয় ৷ চাষিরা ফসলের দাম পাচ্ছেন না তাই বাজারে বিক্রি না করে ফেলে দেওয়াই স্থির করেছেন ৷

First published: 09:14:30 AM Jan 14, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर