রিজওয়ানুর মামলায় অশোক টোডি সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার ধারাই বহাল রাখল হাইকোর্ট

Jun 13, 2017 08:07 AM IST | Updated on: Jun 13, 2017 08:10 AM IST

#কলকাতা: রিজওয়ান মামলার পুরনো চার্জশিটই বহাল রাখার নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের। অর্থাৎ অশোক টোডি সহ ৪ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার ধারাই বহাল থাকছে। হাইকোর্টের রায়ে সামান্য স্বস্তিতে অভিযুক্ত ৩ পুলিশ অফিসার। তাদের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে এখনই মামলা শুরু হচ্ছে না। এব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার নিম্ন আদালতের ওপর ছেড়েছে হাইকোর্ট।

রিজওয়ানুর রহমান মামলায় হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তিতে অভিযুক্ত ৩ অফিসার। তাদের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার ধারা যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিল না হাইকোর্ট। সিদ্ধান্ত নিম্ন আদালতের ওপরই ছাড়ল হাইকোর্ট।

রিজওয়ানুর মামলায় অশোক টোডি সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার ধারাই বহাল রাখল হাইকোর্ট

সাময়িক স্বস্তি পেলেন,

অজয় কুমার - আইপিএস

সুকান্তি চক্রবর্তী - সহকারি কমিশনার, গুণ্ডাদমন শাখা (তৎকালীন)

কৃষ্ণেন্দু দাস - এসআই, গুণ্ডাদমন শাখা (তৎকালীন)

রিজওয়ানুরের আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে অশোক টোডি সহ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে মামলা চলছে। সাড়াসাজানো এই ঘটনায় ২০০৮ সালের ২২ সেপ্টেম্বর চার্জশিট দেয় সিবিআই।

চার্জশিটে ৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ

রিজের শ্বশুর অশোক টোডি, প্রদীপ টোডি, অনিল সারোগী ছাড়াও রিজের প্রতিবেশি মইনুদ্দিন ওরফে পাপ্পুর বিরুদ্ধে অভিযোগ

আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও হুমকির অভিযোগ এনে চার্জশিট দায়ের হয়

অভিযোগ ছিল ৩ পুলিস অফিসারের বিরুদ্ধেও

যদিও ২০১১ সালে মামলার চার্জ গঠনের সময় তিন পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ প্রত্যাহার হয়। সিবিআইয়ের চার্জশিটকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে মামলা করেন অভিযুক্তরা। মামলা করে সিবিআই ও রিজওয়ানুরের দাদা রুকবানুর রহমানও। তাদের আবেদনে দাবি করা হয়,

রিজওয়ানুরকে আত্মহত্যায় বাধ্য করার জন্য দায়ী তিন পুলিশ অফিসারও

তাদের মাধ্যমেও নিয়মিত চাপ দিয়েছিলেন অশোক টোডি সহ অন্য অভিযুক্তরা ৷ ক্ষমতার অপব্যবহার করেছিলেন ওই পুলিশ অফিসাররা ৷ তাই তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ ধারায় মামলার অনুমতি দেওয়া হোক ৷

যদিও, এব্যাপারে হস্তক্ষেপ করতে চায়নি হাইকোর্ট। একাধিক মামলার জটে এতদিন রিজ মামলার বিচার শুরুই হতে পারেনি। হাইকোর্টের এই রায়ে রিজ মামলায় চূড়ান্ত বিচারে আর কোনও বাধা রইল না।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES