মেধাতালিকার বাইরে কলকাতা, চিন্তিত শিক্ষাদফতর, বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী

May 30, 2017 04:52 PM IST | Updated on: May 30, 2017 04:52 PM IST

#কলকাতা: মাধ্যমিকের পুনরাবৃতি উচ্চমাধ্যমিকেও ৷ মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও মেধা তালিকায় কলকাতাকে টেক্কা জেলার। দেশের অন্যতম সেরা শহর, মেট্রো সিটি কলকাতায় একের পর এক নামীদামী স্কুল রয়েছে ৷ সমস্ত ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়েও কেনও কলকাতার পড়ুয়ারা পিছিয়ে পড়ছে এই নিয়ে চিন্তিত শিক্ষা দফতর ৷ শহরের শিক্ষার মান নিয়ে আলোচনার জন্য কলকাতার স্কুলগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷

উচ্চমাধ্যমিকেও মেধার টক্করে সেরা হুগলি। মেধার টক্করে পাসের হারে এগিয়ে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা । প্রথম তিনে জায়গা করে নিয়েছে হুগলির পরীক্ষার্থীরা। পাঁচশোর মধ্যে ৪৯৬ পেয়ে প্রথম হুগলি জেলার কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র অর্চিষ্মান পানিগ্রাহি ।

মেধাতালিকার বাইরে কলকাতা, চিন্তিত শিক্ষাদফতর, বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী

এর আগে শনিবার প্রকাশিত মাধ্যমিকের ফলেও দেখা গিয়েছে একই চিত্র ৷ মাধ্যমিকে মেধাতালিকার ৬৮ জনের ১৬ জনই বাঁকুড়ার ৷ কলকাতা থেকে মেধাতালিকায় স্থান পেয়েছে মাত্র সাত জন ৷ এর মধ্যে মাধ্যমিকে পঞ্চম ও কলকাতায় সম্ভাব্য প্রথম অরিত্র কুমার মণ্ডল ৷ যাদবপুর বিদ্যাপীঠের ছাত্র সে ৷ যাদবপুর বিদ্যাপীঠ থেকেই সত্যম কর, সৌম্যজিৎ বসাক মেধাতালিকায় স্থান পেয়েছে ৷ কলকাতার পাইকপাড়ার মেয়ে ও স্বরসতী বালিকা বিদ্যালয় ও শিল্প শিক্ষা সদনের ছাত্রী মধুমন্তী দে ৷

মাধ্যমিকে পাশের হারেও কলকাতাকে অনেক পিছনে ফেলে দিয়েছে জেলাগুলি। পূর্ব মেদিনীপুরে সাফল্যের হার সবথেকে বেশি ৯৬.০৬% ৷ পাশের হারের নিরিখে প্রথম এই জেলা ৷ কলকাতায় পাসের হার ৮৮.৯৩% ৷ দঃ২৪ পরগনায় পাসের হার ৯০.৫৪% ৷ নদিয়ায় পাশের হার ৮২.৩০% ৷

শুধু এই বছরও বিগত পাঁচ-ছয় বছরের রেজাল্টের ছবিও কমবেশি একইরকম ৷ লাগাতার শহরের প্রথম সারির দেশজোড়া খ্যাতি সমৃদ্ধ স্কুলগুলির পড়ুয়াদের এই লাগাতার ব্যর্থতায় চিন্তিত রাজ্যের শিক্ষা দফতর ৷ মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশের দিনই এব্যাপারে উদ্যোগ প্রকাশ করেছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ৷ সেদিন তিনি বলেন, ‘কলকাতা কেনও মাধ্যমিকে ভাল ফল করছে না তা এখানকার স্কুলগুলির খতিয়ে দেখা উচিত ৷ মেধা তো কখনও গ্রাম শহরের বিভেদ মানে না ৷ যার যোগ্যতা আছে সেই এগিয়ে যায় ৷’

একইসঙ্গে কলকাতার অসফলতায় শিক্ষামন্ত্রীর গলায় ঝরে পড়ে ক্ষোভ, ‘কলকাতার পড়ুয়ারা বেশি ব্যস্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় ৷ কলকাতার ছেলেরা পড়াশোনা করে না ৷ এত কলরব, জনরব, তার মধ্যে পড়ে কোথায়! গ্রামের ছেলেরা পড়াশোনা করে ৷ তাই তারা ভাল ফল করেছে ৷’ কলকাতার পড়ুয়াদের ব্যর্থতার অন্যতম কারণ সোশ্যাল মিডিয়া, মত শিক্ষামন্ত্রীর ৷

তবে উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্টেও মহানগরের পড়ুয়াদের একই অবস্থা দেখে বিষয়ের গভীরে যেতে চায় শিক্ষা দফতর ৷ বছর কয়েক আগেও মেধা তালিকায় এক থেকে দশের মধ্যে কলকাতার স্কুলগুলির একাধিক পড়ুয়া স্থান গ্রহণ করত ৷ নাম থাকত হিন্দু স্কুল, হেয়ার স্কুল, স্কটিশ চার্চ স্কুল, বেথুন, নিবেদিতা গালর্স, হোলিচাইল্ড এবং বাগবাজার মাল্টিপারপাসের মতো শহরের প্রথম সারির স্কুলগুলির ৷ শীঘ্রই স্কুলগুলির সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান শিক্ষামন্ত্রী ৷ হিন্দু ও হেয়ারের মতো প্রাচীন স্কুলগুলি কেন পিছিয়ে রয়েছে ? তা খতিয়ে দেখবে শিক্ষা দফতর ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES