নিউ আলিপুরের অভিজাত পাড়ায় বাড়ির ভিতর উদ্ধার বৃদ্ধের রক্তাক্ত দেহ !

Aug 06, 2017 05:38 PM IST | Updated on: Aug 07, 2017 11:41 AM IST

#কলকাতা:  নিউ আলিপুরের অভিজাত পাড়ায় ঘর থেকে উদ্ধার বৃদ্ধের রক্তাক্ত দেহ। তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে, গলা টিপে ও মাথায় আঘাত করে খুন। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, লুঠপাটের জন্যই খুন করা হয়েছে ওই বৃদ্ধকে। কিন্তু, খুনের পিছনে প্রোমোটিং চক্রের হাত থাকার সম্ভাবনাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে । উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না প্রতিহিংসার তত্ত্বও।

নিউ আলিপুরের ‘O’ ব্লকের ৬৫৪  নম্বর বাড়ি। রবিবার, সেই বাড়ির একতলার ঘর থেকেই এদিন উদ্ধার হয় মালিক মলয় মুখোপাধ্যায়ের রক্তাক্ত দেহ। কীভাবে খুন হলেন মানসিক ভারসাম্যহীন ৮২ বছরের ওই বৃদ্ধ ?

দুষ্কৃতীরা প্রথমে বাড়ির বাইরে লোহার ঘোরানো সিঁড়ি বেয়ে উপরে ওঠে ৷ লোহার তারজাল কেটে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে ৷ কিন্তু, দরজা খুলতে না পারায় প্রথমবারের চেষ্টা ব্যর্থ হয়। এরপর, তারা বাড়ির পিছনের দিকের দরজার তালা ভেঙে মলয় মুখোপাধ্যায়ের ঘরে ঢোকে। দুষ্কৃতীদের বাধা দেন তিনি। তাঁর মাথার ডানদিকে ভারী জিনিস দিয়ে আঘাত করা হয়। এরপর, তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় বলে প্রাথমিক তদন্তের পর অনুমান পুলিশের।

কেন খুন বলে সন্দেহ ?

- মলয় মুখোপাধ্যায়ের ঘর লন্ডভন্ড

- তছনছ করা হয়েছে ঘরের আলমারি

- তাঁর সর্বক্ষণের সঙ্গী একটি ব্যাগ উধাও

- ঘর থেকে কোনও সুইসাইড নোট মেলেনি

কিন্তু, কী কারণে খুন হলেন তিনি ? ঘটনায় কি প্রোমোটিং চক্রের হাত রয়েছে ? নাকি  ব্যক্তিগত শত্রুতা থেকেই খুন ?  বাড়ির দোতলায় থাকতেন মলয় মুখোপাধ্যায়ের ছেলে ও পুত্রবধূ ৷  তাঁরা কিছুই টের পেলেন না কেন ?রাতে মলয় মুখোপাধ্যায়ের দেখভালের জন্য এক মহিলা ছিলেন ৷ তিনিও কিছু টের পাননি ?  খুনিরা কি বাড়ির ভূগোল সম্পর্কে তাহলে পরিচিত ? এই সমস্ত প্রশ্নগুলিই এখন উঠে আসছে ৷

খুনের তত্ত্বকে সামনে রেখেই যৌথভাবে তদন্তে নেমেছে নিউ আলিপুর থানা ও লালবাজারের হোমিসাইড শাখা। ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয় পুলিশ কুকুর। হাতের ছাপ ও অন্যান্য প্রমাণ সংগ্রহে তলব করা হয় ফরেনসিক বিভাগকেও।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES