ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে জমিদাতাদের শনিবার দেওয়া হবে নতুন ফ্ল্যাটের চাবি

May 06, 2017 02:14 PM IST | Updated on: May 06, 2017 02:14 PM IST

#কলকাতা: ২০০৯ সালে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের নির্মাণকাজ শুরু হয়৷ ২০১২-তে প্রকল্পের কাজ প্রথম থমকে যায় দত্তাবাদে জমি-জটের কারণেই৷ যেখানে মেট্রোর 'ভায়াডাক্ট' তৈরি হওয়ার কথা, সেখান থেকে বসবাসকারী পরিবারগুলিকে সরানো না হলে নির্মাণকাজ সম্ভব নয় বলে রাজ্য সরকারকে হস্তক্ষেপ করার অনুরোধ করে কেএমআরসি৷ এ দিকে এক ছটাকও জমি ছাড়তে নারাজ ছিলেন দত্তাবাদের বাসিন্দারা ৷ নির্দিষ্ট জায়গায় সমীক্ষার কাজ করতে গেলেও বাধাপ্রাপ্ত হন নগরোন্নয়ন দফতর ও এবং কেএমআরসি-র কর্মীরা৷ এর পর ২০১৩-র অগস্টে এই নিয়েই দত্তাবাদ সংলগ্ন বাইপাসের উপরে একে অন্যের বিরুদ্ধে মারমুখী হয়ে ওঠেন শাসকদলেরই দুই বিধায়ক৷

এ দিকে দত্তাবাদে জমি-জটের ফলে প্রকল্প রূপায়ণের সময়সীমা ও খরচ বেড়ে যাওয়ায় ক্ষতিপূরণ দাবি করে নির্মাণকারী ঠিকাদার সংস্থা৷ শেষে প্রকল্প থেকে তারা সরেও দাঁড়ায়।  ফলে নতুন করে কাজের বরাত দিতে হয় কেএমআরসি-কে৷

ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে জমিদাতাদের শনিবার দেওয়া হবে নতুন ফ্ল্যাটের চাবি

দত্তাবাদের বেঙ্গল কেমিক্যাল থেকে শ্যামলী আবাসন পর্যন্ত অংশে ১৩টি স্তম্ভ বসিয়ে তার উপর 'স্টিল গার্ডার' বসিয়ে 'ভায়াডাক্ট' তৈরির জন্য নতুন করে বরাত পেয়েছে কলকাতারই একটি সংস্থা৷

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, বিধায়ক সুজিত বোস ও বিধাননগর মেয়র সব্যসাচী দত্ত বারবার আলোচনা করে সমস্যা মেটায়। রাজ্য নগরোন্নয়ন দফতর জমির ব্যবস্থা করে। ফ্ল্যাট তৈরি করে দেওয়া হয়। দত্তাবাদ সংলগ্ন বিদ্যাধরী স্কুলের পাশে তৈরি হয়েছে ৬০টি ১১০ স্কোয়্যার ফুটের ঘর৷ এক-একটি তলে থাকছে ৫টি করে ২৫০ স্কোয়্যার ফুটের ফ্ল্যাট৷

সমস্যা সত্ত্বেও ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর এই প্রথম পর্যায়ের কাজ অবশ্য এগিয়েছে অনেকটাই৷ গত বছরই শুরু হয়েছে মেট্রোর লাইন বসানোর কাজ৷ অস্ট্রিয়া থেকে এসে গিয়েছে ট্র্যাকও৷ ঢালাইয়ের পর চলছে ট্র্যাক বসানোর কাজ৷ সল্টলেকের ৫টি স্টেশনে চলছে শেড তৈরির কাজও৷ এখন দত্তাবাদের ৩৬৫ মিটার অংশ নিয়েই যত জটিলতা তা মিটে গেল। আগামী বছর শুরু হবে সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে ফুলবাগান মেট্রোর কাজ। ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে জমিদাতাদের শনিবার ফ্ল্যাটের চাবি দেওয়া হবে ৷ এদিন সন্ধে ৮০ জনের হাতে চাবি দেওয়া হবে সন্ধে ৬টা নাগাদ ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES